ঢাকা, শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, || অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

স্ত্রীকে গোখরার ছোবলে খুন!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:৫১, ১৩ অক্টোবর ২০২১

স্ত্রীকে গোখরোর ছোবলে খুন করার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল কেরলের কোলামের আদালত। জরিমানা করা হল পাঁচ লক্ষ টাকা।

অভিযুক্তের নাম সূরয এস কুমার। সোমবার তাকে দোষী সাব্যস্ত করেছে আদালত। ২০২০-র মার্চে স্ত্রী উথরাকে গোখরোর ছোবলে খুন করার অভিযোগ উঠেছিল সূরযের বিরুদ্ধে।

পুলিশ জানিয়েছে, গোখরো এবং বোড়া সাপ কী ভাবে পাওয়া যায় তা নিয়ে অনেক দিন অনলাইনে খোঁজ করেছিলেন সূরয। শুধু তাই নয়, কী ভাবে গোখরোর বিষ বার করা হয় সেই ভিডিও বার চারেক দেখেছিলেন। অনেক খোঁজাখুঁজির পর সুরেশ নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ হয় কেরলের বাসিন্দা সূরযের। ১০ এবং সাত হাজার টাকার বিনিময়ে সুরেশের কাছ থেকে দু’টি সাপ কেনেন তিনি।

অভিযোগ, উথরা যখন বাপেরবাড়িতে ছিলেন সেই সময়ই তাকে সাপের ছোবলে খুন করা হয়। ২০২০-র ৭ মে বাপের বাড়িতেই সাপের কামড়ে ম়ৃত্যু হয় তার। উথরার পরিবারের অভিযোগ ছিল, মেয়েকে সাপের ছোবলে খুন করেছে সূরয। 

পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনাচক্রে ওই ঘর থেকেই গোখরো উদ্ধার হয়। এর আগেও মার্চে শ্বশুরবাড়িতে উথরাকে সাপে কাম়়ড়েছিল। তখন তার পরিবার অভিযোগ তুলেছিল খুন করতেই সাপের ছোবল খাইয়েছিলেন সূরয। কোলামের পুলিশ সুপার এসপি হরিশঙ্কর জানান, প্রথমে ওই ঘটনাকে স্বাভাবিক সাপের কামড় বলে চালাতে চেয়েছিলেন সূরয। তাদের দাম্পত্য জীবনে অশান্তি লেগেই থাকত। অভিযোগ, পণের জন্য উথরার উপর অত্যাচারও চালাতেন সূরয।

সম্প্রতি রাজস্থান থেকে এমনই একটি মামলা প্রকাশ্যে আসে। ২০১৯ সালে রাজস্থানের ঝুনঝুনু জেলার ওই ঘটনায় এক মহিলা সাপের সাহায্যে তার শাশুড়িকে খুন করান বলে অভিযোগ। 

বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক জানতে পারার কারণেই পুত্রবধূ তার প্রেমিকের সাহায্যে শাশুড়িকে হত্যা করেছিলেন। সেই মামলা সুপ্রিম কোর্টে উঠেছিল। তখন আদালত জানায়, এটা আজকাল নতুন প্রবণতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সাপুড়ের কাছ থেকে বিষধর সাপ জোগাড় করে তার কামড় খাইয়ে খুন করানো হচ্ছে। সূত্র: আনন্দবাজার

এসি
 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি