ঢাকা, রবিবার   ১৩ জুন ২০২১, || জ্যৈষ্ঠ ২৯ ১৪২৮

সুস্থ ও মানসিক প্রশান্তিতে বেডরুমের রং! 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২৩:০৯, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বেডরুমের রং নির্বাচনে সবাই রুচির প্রমাণ দেন। কারণ ওটাই আপনার একান্তই বিশ্রামের জায়গা। ওখানেই আপনি আপনার মতো করে থাকতে পারেন। ঘরে শান্তি বজায় রাখতে বাস্তুশাস্ত্রের সাহায্য নেয় মানুষ। কিন্তু আপনি কী জানেন বেডরুমের রং আপনার জীবনে কতটা প্রভাব ফেলে। এই ব্যাপারে  বিশেষজ্ঞরা তাই বলছেন। শুধু তাই নয়, সমীক্ষা বলছে বেডরুমের রং যৌনতাকেও প্রভাবিত করে।  

কেন একথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা?    

প্রায় ২ হাজার ব্রিটিশ দম্পতিতে নিয়ে এই সমীক্ষা চালিয়েছেন একটি সংস্থা। প্রতি সপ্তাহে ‘ইন্টিমেট এনকাউন্টার’ পরিমাপ করে তারা। দেখা যায়, বেডরুমের বিভিন্ন রং মানসিক অবস্থার উপর বিভিন্নভাবে প্রভাব ফেলে। যৌনতা তো বটেই, স্বাস্থ্য ও ঘুমের ক্ষেত্রেও প্রভাব ফেলে বেডরুমের রং।

নীল

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মানুষকে ঘুমোতে এই রং খুব সাহায্য করে। বেডরুমের দেয়ালে নীল রং করলে মস্তিস্ক হালকা হয়। আর সেই কারণেই ঘুম হয় ভালো। বেডরুমে নীল রং করলে রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে রাখে। হৃদরোগের প্রবণতাও কমে যায়।

হলুদ

নীলের পরেই তালিকায় রয়েছে হলুদ রঙ। যেসব দম্পতিরা এই রং পছন্দ করেন, তারা বিশ্রামটাকে বেশিই প্রাধান্য দেন। রাতে গড়ে সাত ঘণ্টা ৪০ মিনিট ঘুমান তাঁরা। হলুদ রং দেহকে আরাম দেয়। ফলে উত্তেজনার উশমিত হয়।  

ধূসর

চাঁদের আলোর অনুভূতি এনে দেয় ধূসর রং। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই রং ঘরে করা হলে ঘুম ভালো হয়। প্রায় সাড়ে সাত ঘণ্টা ঘুমায় মানুষ। যারা ঘরে এই রং করে, তারা সকালে ঘুম থেকে উঠে অনুশীলন করতেও তাঁরা ক্লান্তি অনুভব করেন না।

বেগুনি 

বেগুনি রং লাক্সারি, সম্পদ আর রাজকীয়তার প্রতীক। স্বাস্থ্য তো বটেই এই রং যাদের বেডরুমে থাকে, তারা মানসিক ভাবে ভালো থাকে। এবং তাদের দাম্পত্য জীবন আরও সুখের হয়।   

কেআই/এসি  

 


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি