ঢাকা, বুধবার   ২৬ জানুয়ারি ২০২২,   মাঘ ১২ ১৪২৮

গোড়ালি ফাটার সমাধানে মোম

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪৩ এএম, ২৪ নভেম্বর ২০২১ বুধবার | আপডেট: ১০:৪৭ এএম, ২৪ নভেম্বর ২০২১ বুধবার

শীত হল শুষ্ক ঋতু। এই ঋতুতে ত্বকের নানান সমস্যা দেখা দেওয়া খুবই স্বাভাবিক। কারণ বাতাস শুষ্ক থাকার কারণে ত্বক এই সময়ে পানির পরশ অনেকটাই হারিয়ে ফেলে। তাই ত্বকও বাতাসের সঙ্গে তাল মিলিয়ে হয়ে ওঠে শুষ্ক। শুষ্ক ত্বকের এমনই একটি সমস্যা হল গোড়ালি ফেটে যাওয়া।

গোড়ালি ফেটে গেলে দেখতে খুবই খারাপ লাগে। কারণ ফাটা জায়গায় নোংরা প্রবেশ করে কালো কালো দেখায়। 

এতে বেশ বিপাকেই পড়েন সৌন্দর্য্য সচেতন নারীরা। তাই খুঁজতে থাকেন সমস্যা এড়ানোর উপায়। তবে এখন আর চিন্তা নেই। এবারে খুব সহজেই মিলবে সমাধান। 

তবে তার আগে গোড়ালি ফাটার কয়েকটি কারণ সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

শীতে বাতাসে আর্দ্রতা কম থাকলে ত্বকে পানির পরিমান কমে যায়। তাই শুষ্ক হয় ত্বক। যা সহজেই ফেটে যায়।

জুতো না পরাটাও এই সমস্যার অন্যতম কারণ। এমনকি বাড়িতে জুতো না পরলেও এই সমস্যা হতে পারে। কারণ জুতো পরলে পায়ে শীতের শুষ্ক বাতাস লাগতে পারেনা। এতে পা আর্দ্র থাকে, ফাটেও কম। 

কম পানি পান করলেও ত্বক ফেটে যেতে পারে।

শীতে অনেকেই ঠাণ্ডার হাত থেকে বাঁচতে গরম পানিতে পা চুবিয়ে পরিষ্কার করেন। তবে জানলে অবাক হবেন, এই অভ্যাসও চলবে না একদমই। এমনকী গরম পানিতে প্রায়ই গোসল করতে থাকলেও এই সমস্যা হতে পারে।

প্রোটিন কম খেলেও পা ফাটার সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ব্যাকটেরিয়া, ফাঙ্গাসের মতো ইনফেকশন হলেও কিন্তু দেখা দিতে পারে এই সমস্যা।

কিন্ত পা ফাটার সমস্যায় মোম কীভাবে কাজ করবে? 

আমরা বাড়িতে যেই মোম ব্যবহার করি সেই মোম ব্যবহার করেই কমতে পারে এই সমস্যা। এ ক্ষেত্রে প্রথমে একটি পাত্রে মোম নিন। তারপর সেই পাত্রটিকে গরম করে মোমটি গলিয়ে ফেলুন। এবার এই গলা মোমে বড় ২ চা চামচ সরষের তেল ভালো করে মিশিয়ে দিন। মেশানো শেষ হলে ওই মিশ্রণটি সহনযোগ্য অবস্থায় আসলে পায়ে ব্যবহার করুন। এভাবে কয়েকদিন ব্যবহার করলেই দেখবেন সমস্যা কমেছে অনেকটা। 

সূত্র: এই সময়
এমএম/এসএ