ঢাকা, শুক্রবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, || ফাল্গুন ১৩ ১৪২৭

তামিম-সাকিবদের ব্যাটিং অর্ডার ফাঁস!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৯:৫৬, ১৮ জানুয়ারি ২০২১

সাকিব ও তামিমের সঙ্গে আলাপরত প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো।

সাকিব ও তামিমের সঙ্গে আলাপরত প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো।

২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপটা স্বপ্নের মতোই কাটিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। দল তলানিতে থেকে শেষ করলেও ব্যাট হাতে সাকিব ছিলেন অতিমানবীয় পারফরম্যান্সের অধিকারী। বিশ্বকাপের মতো মঞ্চে অনেকগুলো রেকর্ড গড়া সাকিব ব্যাট করেছিলেন তিন নম্বরে। তবে ক্যারিবীয় সিরিজে সাকিব থাকছেন না তার সাফল্যমণ্ডিত এই ব্যাটিং পজিশনে।

জাতীয় দলের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো জানিয়েছেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে সাকিবকে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলানোর পরিকল্পনা করছে টিম ম্যানেজমেন্ট। সাকিবের পর ব্যাটিং অর্ডারে থাকবেন মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আর দুই ওপেনারের পর গুরুদায়িত্ব অর্থাৎ তিন নম্বর পজিশন থাকবে নাজমুল হোসাইন শান্তর কাঁধে।

ডমিঙ্গো বলেন, ‘আমি খেলোয়াড়দের সঙ্গে ইতোমধ্যে কথা বলেছি। তারা তাদের দায়িত্ব সম্পর্কে জানে। এখনও একাদশ জানাইনি, কিন্তু আজই গণমাধ্যম জানার আগেই তারা জেনে যাবে তাদের কার পজিশন কোথায় হবে। শান্ত দারুণ ফর্মে আছে। সাকিবকে ফিরে পাওয়াটাও সুখবর। বিশ্বকাপে তিন নম্বরে অবিশ্বাস্য ব্যাটিং করেছে। কিন্তু এই মুহূর্তে আমি চার, পাঁচ ও ছয়ে ভাবছি তিন অভিজ্ঞ সাকিব, মুশফিক ও রিয়াদকে। এতে মিডল অর্ডার পরিপক্বতা পাবে, কেননা- উপমহাদেশে মিডল অর্ডার বড় ভূমিকা রাখে।’

আগামী ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে এগোচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট, নির্বাচকরা তা স্পষ্ট করেই বলেছেন। ডমিঙ্গো বলেন, সেই বিশ্বকাপের অন্তত ছয় থেকে আট মাস আগে ব্যাটিং অর্ডারে ক্রিকেটারদের অবস্থান চূড়ান্ত বা প্রতিষ্ঠিত করা হবে। দীর্ঘ সময় এক পজিশনে খেলে খেলোয়াড়রা যেন নিজেদের প্রস্তুত করতে পারেন সেদিকে নজর ডমিঙ্গোর। তার আগে স্বভাবতই কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করে নিতে চান টাইগার কোচ।

সাকিবকে চারে পাঠিয়ে শান্তকে কেন তিনে নামানোর পরিকল্পনা? ডমিঙ্গো পরিস্কার করেছেন সেই বিষয়ও। তিনি বলেন, ‘শান্ত তরুণ, ভালো একজন খেলোয়াড়। যে ইদানীং ভালো করছে। আমাদের তরুণ ব্যাটসম্যানদের তো গড়ে তুলতে হবে। এই অঞ্চলে শীর্ষ তিন পজিশনই ব্যাটসম্যানদের গড়ে তোলার আদর্শ জায়গা।’

ডমিঙ্গো আরও বলেন, ‘সাকিব অনেকদিন হলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেনি। চার নম্বর পজিশন তাকে দম ফেলার সুযোগ দিবে। আমরা সবাই জানি সে বিশ্বমানের খেলোয়াড়। এই ব্যাটিং লাইনআপ তো স্থায়ী হচ্ছে না। বিশ্বকাপের আগে অনেক সময় আছে, আমাদের অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে হবে।’

এদিকে, তামিম ও লিটনকে ওপেনিংয়ে রেখে সৌম্যকে দেয়া হচ্ছে গুরুদায়ীত্ব। এ বিষয়ে ডমিঙ্গো পুরোপুরি স্পষ্ট করে বলেন, সৌম্য সরকার এখন একজন ফিনিশারের ভূমিকায় খেলবেন। তিনি এখন পর্যন্ত যা করেছেন তার থেকে একবারেই আলাদা। 

প্রধান কোচ বলেন, "এই মুহূর্তে আমি মনে করি, টপ অর্ডারটি তামিম ইকবাল এবং লিটন দাসের ব্যাটিংয়ের সাথে দুর্দান্তভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। আমরা সম্ভবত মিডল অর্ডারে সৌম্যের দিকে নজর রাখতে চাই। আমরা এমন কাউকে খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছি, যা হতে পারে আমাদের ইনিংসের ব্যাক-এন্ডে একটি পাওয়ার হিটার এবং সম্ভবত কয়েক ওভার বল করা।"

তিনি বলেন, "আমি জানি সৌম্য সর্বদা ইনিংসের শীর্ষে খেলেছে। কিন্তু এই মুহুর্তে আমরা সৌম্যকে দিয়ে মিডল অর্ডারে ব্যাট করাতে এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো খেলোয়াড়ের সাথে খেলা শেষ করার দিকে তাকিয়ে আছি। তার অভিজ্ঞতা আছে এবং সে একজন ক্লিন হিটার। তার ব্যাটিংয়ে আমার অনেক বিশ্বাস আছে। আশা করি সে কিছু ভাল পারফরম্যান্স করতে পারবে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি