ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৭ জুন ২০২১,   আষাঢ় ৪ ১৪২৮

নির্বাচন পেছানোর অনুরোধে ট্রাম্পের পাশে নেই  দলের নেতারা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৩:২৯ পিএম, ১ আগস্ট ২০২০ শনিবার

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প- এএফপি

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প- এএফপি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন পিছিয়ে দিতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরামর্শকে নাকচ করে দিয়েছেন তার নিজের দল রিপাবলিকান পার্টির প্রভাবশালী নেতারা। মার্কিন সংসদের উচ্চকক্ষ সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ অংশের নেতা রিপাবলিকান সিনেটর মিচ ম্যাককনেল এবং নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের শীর্ষ রিপাবলিকান নেতা কেভিন ম্যাককার্থি আগামী নভেম্বরের নির্বাচন স্থগিতের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন। সিএনএন ও পার্স টুডে’র। 

ট্রাম্পের পরামর্শের প্রতিক্রিয়ায় ম্যাককনেল বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন এর আগে কখনও পিছিয়ে দেওয়া হয়নি। যুদ্ধ হোক, মন্দা, গৃহযুদ্ধ- ইতিহাসে কখনোই যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল নির্বাচন নির্দিষ্ট সময়ের পরে হয়নি। ৩ নভেম্বর নির্বাচন করতে আবারও আমরা নিশ্চয়ই একটা না একটা উপায় বের করব। 

ম্যাককনেলের কথার প্রতিধ্বনি শোনা গেছে প্রতিনিধি পরিষদের রিপাবলিকান নেতা ম্যাককার্থির কণ্ঠেও। তিনি বলেছেন, নির্বাচন নির্ধারিত সময়েই হওয়া উচিৎ। ট্রাম্প ঘনিষ্ঠ প্রভাবশালী রিপাবলিকান ও সিনেটের বিচার বিষয়ক কমিশনের চেয়ারম্যান লিন্ডসে গ্রাহামও বলেছেন, নির্বাচন পিছিয়ে দেয়ার চিন্তা মোটেও ভালো কিছু নয়।

মার্কিন আইন অনুযায়ী, দেশটিতে নির্বাচন পেছানোর এখতিয়ার প্রেসিডেন্টের নেই। কংগ্রেসের দুই কক্ষের অনুমোদন সাপেক্ষেই কেবল দেরিতে নির্বাচন হতে পারে। নির্বাচন পেছাতে হলে যুক্তরাষ্ট্রে সংবিধান সংশোধনেরও প্রয়োজন পডবে বলে অনেকে বলছেন।

ডাক যোগে ভোটিং ব্যবস্থায় কারচুপি ও ফল জালিয়াতির সম্ভাবনা থাকতে পারে মন্তব্য করে বৃহস্পতিবার ট্রাম্প নভেম্বরের নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন।  মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডাকযোগে ভোটে জালিয়াতির যে যুক্তি দিচ্ছেন, তার পক্ষে তেমন শক্ত প্রমাণ নেই। মার্কিন জরিপগুলোতে দেখা যাচ্ছে, জনপ্রিয়তার দিক থেকে ট্রাম্প তার প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন থেকে অনেক পিছিয়ে পড়েছেন।

এমএস/