ঢাকা, সোমবার   ২৬ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ১০ ১৪২৭

এবার আইপিএল স্পন্সর দৌড়ে রামদেবের পতঞ্জলি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৪:৪৫ পিএম, ১০ আগস্ট ২০২০ সোমবার

আসন্ন আইপিএল টাইটেল স্পন্সর থেকে চীনা সংস্থা ভিভো সরে দাঁড়িয়েছে। ভিভো সরে যাওয়ায় বিসিসিআই আইপিএলের জন্য নতুন টাইটেল স্পন্সর খুঁজছে। এই পরিস্থিতিতে এই মেগা টুর্নামেন্টের টাইটেল স্পন্সর হওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করলো রামদেবের বিতর্কিত সংস্থা ‘পতঞ্জলি’।

রামদেবের এই সংস্থার মুখপাত্র এস কে তিজারাওয়ালা ‘ইকনমিক টাইমস’কে বলেছেন, ‘‘এবারের আইপিএলে আমরা টাইটেল স্পন্সর হতে চাই। গোটা বিশ্বে পতঞ্জলি ব্র্যান্ডের বাজার তৈরি করাই আমাদের লক্ষ্য।’’

তাদের ধারণা, আইপিএলের সঙ্গে পতঞ্জলির নাম জড়িয়ে পড়লে সংস্থাটির নামও ছড়িয়ে পড়বে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। সেই কথা মাথায় রেখে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডকে প্রস্তাব দেওয়ার কথা চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিজারাওয়ালা।

তবে ভারতের ক্রীড়া ও বাণিজ্যিক মহলের একটা বড় অংশের মতে, আইপিএলের টাইটেল স্পন্সর পতঞ্জলি হলে মেগা টুর্নামেন্টের খুব একটা লাভ হবে না। বরং অনেক বেশি লাভ হবে পতঞ্জলির। চীনা পণ্যের বিরুদ্ধে জনমত তৈরি হয়েছে। এ রকম পরিস্থিতিতে দেশীয় কোনও সংস্থা যদি আইপিএলের স্পন্সর হয়, তা হলে জনমানসে তার প্রভাব ইতিবাচকই হবে বলে মনে করছেন অনেকেই।

গালওয়ান উপত্যকায় চীনা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর থেকেই চীনা পণ্য বর্জনের ডাক দেয় ভারতীয়রা। সেই রেশ কাটতে না কাটতেই চীনা টাইটেল স্পন্সরকে আইপিএল-এ রেখে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আইপিএলের গভর্নিং কাউন্সিল।

আইপিএলের সঙ্গে ভিভোকে থেকে যেতে দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফেটে পড়েন দেশটির অনেকে। বোর্ডের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে অনেকেই মতামত দেন, ‘ভিভো বয়কট না করলে আইপিএলকেই বয়কট করা হবে।’ ক্রমশ বাড়তে থাকা চাপের ফলে ভিভো এবারের আইপিএল থেকে সরে যায়।

এর ফলে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে টাইটেল স্পন্সর খুঁজতে হচ্ছে। ইতিমধ্যেই জিয়ো, আমাজন, টাটা-সহ একাধিক সংস্থার নাম উঠে এসেছে এই তালিকায়। সেই তালিকায় এবার রামদেবের বিতর্কিত সংস্থা পতঞ্জলিও ঢুকে পড়ল। উল্লেখ্য, করোনার ওষুধ তৈরি নিয়ে ইতিমধ্যে পতঞ্জলির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা চলছে।

জানা যায়, সব ঠিকঠাক থাকলে সামনের বছর আইপিএল স্পন্সর হিসেবে ফিরে আসতে পারে ভিভো। সূত্র: আনন্দবাজার

এএইচ/এমবি