ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৭ ১৪২৭

শীঘ্রই ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করতে চায় বিসিবি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৫২ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ সোমবার | আপডেট: ০৯:৫৪ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ সোমবার

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন

শ্রীলংকার দেয়া শর্তগুলো বিসিবি প্রত্যাখ্যান করায় বাতিল হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ দলের লংকা সফর। এই সফর যদি শেষ পর্যন্ত বাতিল হয়ে যায়, তাহলে খুব দ্রুতই ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম প্রাঙ্গনে এক বৈঠক শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমন সিদ্ধান্তের কথা জানান।

বিসিবি প্রধান বলেন, তারা তাদের সিদ্ধান্তের কথা ইতোমধ্যে লংকানদের জানিয়ে দিয়েছেন। শ্রীলংকা কেবল তাদের শর্তগুলো পরিবর্তনের ইচ্ছা প্রকাশ করলেই আরেকটি বৈঠক হতে পারে।

পাপন আরো বলেন, শ্রীলংকা যদি তাদের শর্ত পরিবর্তনে রাজি না হয়, তাহলে বোর্ড চেষ্টা করবে যত দ্রুত সম্ভব ঘরোয়া ক্রিকেট মাঠে ফেরাতে। করোনা মাহামারীর কারণে প্রথম পর্ব শেষ হবার পর মার্চের মধ্যভাগ থেকে স্থগিত রয়েছে বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেট।

পাপন বলেন, ‘আমরা শ্রীলংকা সিরিজের পরিবর্তিত সিরিজ নিয়ে এখনো ভাবিনি। তবে একটি বিষয় ভেবেছি। সেটি হচ্ছে- যেভাবেই হোক ক্রিকেটকে মাঠে ফেরানো। এজন্য আমরা কিছু একটা করতে চাই।

কোন আন্তর্জাতিক দল আমাদের সঙ্গে খেলবে কিনা তা নিয়ে এখনো নিশ্চিত নই। তবে আমরা শিগগির ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করতে চাই। সেটি এখনো পরিকল্পনার পর্যায়ে রয়েছে। তবে আমরা অচিরেই মাঠে ক্রিকেট ফেরাব। কোচিং স্টাফরা ফিরে এসেছেন। ক্রিকেটাররা দীর্ঘদিন ধরে খেলায় নেই। সুতরাং আমাদেরকে কিছু একটা পরিকল্পনা করতে হবে।’

ইতোমধ্যে বিসিবির ব্যবস্থাপনায় ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করেছে ক্রিকেটাররা। প্রথমিকভাবে শ্রীলংকা সফরকে টার্গেট করেই তারা অনুশীলন করছে। একইভাবে যে সব ক্রিকেটাররা জাতীয় দলের বাইরে রয়েছে তারা চায় দ্রুত ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করতে।

বোর্ড যদি ঢাকা লিগের স্থগিতাদেশ তুলে নেয় তাহলে কবে নাগাদ সেটি শুরু হবে জানতে চাইলে পাপন বলেন, ‘আপনি যদি জিজ্ঞেস করেন তাহলে বলবো আমরা এখনই সব ক্লাবকে একসাথে দেখভাল করতে পারব না। তবে ৪০-৫০ জন খেলোয়াড়ের ব্যবস্থাপনা করা যেতে পারে। যে কোন ফর্মেটের খেলা দিয়েই আমরা ক্রিকেটকে মাঠে ফেরাতে চাই। তবে একইসঙ্গে আমাদেরকে কোভিড-১৯ থেকে খেলোয়াড়দের সুরক্ষার বিষয়টিও ভাবতে হবে। আমাদের নিয়ন্ত্রণের ভেতর রাখা যাবে এমন ক্রিকেট নিয়েই ভাবতে হবে। তবে আমরা ক্রিকেটকে মাঠে ফেরাতে চাই।’

বিসিবি প্রধানের ভাষ্যমতে, শ্রীলংকার জবাবের অপেক্ষায় দীর্ঘ সময় বসে থাকতে চায় না বাংলাদেশ। তিনি বলেন, ‘তাদের জবাবের আশায় আমরা দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকব না। তাদের শর্ত মানা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। আমাদের ক্রিকেটকে মাঠে ফেরানোর বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে আমরা চিন্তাভাবনা করতে শুরু করেছি। তারা যদি দ্রুত জবাব দেয় তাহলে ভাল। অন্যথায় আমরা আমাদের পরিকল্পনা নিয়েই এগুবো। আমরা সেই পরিকল্পনা থেকে খুব দূরে নেই।’

এনএস/