ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রাহায়ণ ১০ ১৪২৭

নেপালে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:০৮ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার | আপডেট: ১১:৪১ এএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ মঙ্গলবার

প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর থেকে এই প্রথম প্রাণঘাতি করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখল নেপাল। সময় যত গড়াচ্ছে ভাইরাসটির দাপট ততটাই বাড়ছে এশিয়ার দেশটিতে। যেখানে গড়ে এখন হাজারের বেশি মানুষের শরীরে করোনা শনাক্ত হচ্ছে। আক্রান্তদের দুই-তৃতীয়াংশ সুস্থতা লাভ করলেও থামছে না প্রাণহানি। 

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটারের নিয়মিত পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ১৫৪ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫ হাজার ২৭৬ জনে দাঁড়িয়েছে। প্রাণহানি ঘটেছে আরও ১৬ জনের। যা একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। এতে মৃতের সংখ্যা ৪২৭ জনে ঠেকেছে। 

তবে সুস্থতার হারও কম নয়। যেখানে গত একদিনেও হাজারের বেশি রোগী করোনামুক্ত হয়েছেন। এতে করে বেঁচে ফেরার সংখ্যা ৪৭ হাজার ২৩৮ জনে পৌঁছেছে। 

গত ৩১ জানুয়ারি নেপালে প্রথম করোনাক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। ভাইরাসটির উৎপত্তিস্থল চীনের উহান থেকে ফেরা ৩১ বছর বয়সী এক শিক্ষার্থীর শরীরে করোনার সংক্রমণ পায় সে দেশের স্বাস্থ্য বিভাগ। আর প্রথম প্রাণহানি ঘটে ১৬ মে। 

দ্বিতীয় রোগী শনাক্তের পরপরই গত ২৪ মার্চ থেকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি লকডাউনে চলে যায়। সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি পালন ও জরুরি অবস্থা অত্যান্ত কঠোরভাবে পালনের ফলে অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আসে ভাইরাসটি। 

গত ২১ জুলাই লকডাউন তুলে নিয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যায় দেশটি। এরপর থেকেই আবারও করোনা বিস্তার লাভ করতে থাকে। যা ভাইরাসটির দ্বিতীয় আঘাত বলে মনে করছেন সেখানে বিশেষজ্ঞরা। 

এদিকে, বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত করোনার শিকার ৩ কোটি ১৪ লাখ ৭৯ হাজারের বেশি মানুষ। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ২ লাখ ৩০ হাজারের বেশি। একই সময়ে প্রাণহানি ঘটেছে ৪ হাজার ১৩৩ জনের। এতে করে মৃতের সংখ্যা ৯ লাখ ৬৯ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আর সুস্থতা লাভ করেছেন এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৩১ লাখ ৪ হাজারের বেশি রোগী। 

এআই//এমবি