ঢাকা, বুধবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪,   ফাল্গুন ৮ ১৪৩০

আরও ৪ বছর বাফুফের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:০৪ এএম, ৪ অক্টোবর ২০২০ রবিবার

দেশের ফুটবলের প্রধান নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সভাপতি হিসেবে আরও চার বছর থাকছেন কাজী সালাউদ্দিন। এ নিয়ে টানা চতুর্থবার সভাপতির চেয়ারে বসলেন তিনি। 

শনিবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়লাভ করেন এই কিংবদন্তি ফুটবলার। 
নির্বাচনে  ২১ পদে ১৩৯ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দেন ১৩৫ জন। এতে সর্বোচ্চ ৯৪টি ভোট পেয়ে সভাপতি হন কাজী সালাউদ্দিন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বাদল রায় পেয়েছেন ৪০ ভোট। আর অনেকটা হাক-ঢাক দিয়েও মাত্র এক ভোট পেয়েছেন জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক এবং কোচ শফিকুল ইসলাম মানিক। নির্বাচনে মোট প্রার্থী দাঁড়িয়েছিলেন ৪৭ জন। 

শুধু সালাউদ্দিনই নয় তার দীর্ঘদিনের সঙ্গী এবং আগের কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদি এবারও স্বপদে বহাল রয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ৯১টি ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ মোহাম্মদ আসলাম পেয়েছেন ৪৪টি ভোট।  

নির্বাচনের আগে সভাপতি সালাউদ্দিন বলেছিলেন, ‘অসামাপ্ত কাজগুলো শেষ করতেই এ নির্বাচনে অংশ নিয়েছি।’জয়লাভের পর সে কথাই আবারও স্বরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, ‘ইশতেহারে যা আছে সব পূরণ করে যেন আপনাদের হাতে দিতে পারি সে চেষ্টাই থাকবে। যে ইশতেহার দিয়েছিলাম আমার মনে হয় বাস্তাবায়ন সম্ভব। এজন্য সবার সহযোগিতা চাই।’ 

পাশাপাশি জাতীয় দলের ফুটবলারসহ যারা তাকে সমর্থন দিয়েছেন, শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ জানান কাজী সালাউদ্দিন। বলেন, ‘আমার শক্তি আমার ফুটবলাররা। জাতীয় দলের সব খেলোয়াড়রা আমাকে ভালোবাসে। আজকের নির্বাচন শেষে সব খেলোয়াড়রা আমাকে শুভেচ্ছা জানাতে এসেছে। এটা অনেক বড় জিনিস। যারা আজকে খেলছে, এখন দেশের ফুটবলকে এগিয়ে নিচ্ছে তারা আমাকে শুভকামনা জানাতে এসেছে। তখনই আমার মনে হয়েছে, অবশ্যই আমি ভালো কিছু করেছি তাই ওরা আমাকে এতোটা সাপোর্ট করে।’

সালাহউদ্দিন বলেছেন, ‘নির্বাচনের আগে ভোটারদের নিয়ে মিডিয়ায় অনেক কথা শুনেছি। ভোটাররা নাকি আমাকে ভোট দেবেন না, এমনও অনেক কথা শুনেছি। আমি ২০০৮ সালের নির্বাচনে ৮০ ভোট পেয়ে জিতেছিলাম। পরের নির্বাচনে ৮৪ ভোটে জিতে সভাপতি হয়েছিলাম। এবার কিন্তু আমি পেয়েছি ৯৪ ভোট। আমি তো দেখতেছি আমার ভোট বাড়ছে। মানুষ যাই বলুক না কেন, ফুটবল যারা করেন, ফুটবল যারা বোঝেন ও যারা ফুটবলের সঙ্গে আছেন তাদের কাছে তো আমি জনপ্রিয়। ধন্যবাদ সবাইকে।’
এআই/এসএ/