ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৯ ১৪২৮

‘আপনি ক্রিকেটার, হিন্দুদের ধর্মগুরু নন’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১৪ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০২০ সোমবার

সব উৎসবেই বিশেষ বার্তা দেন তারকারা। দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানান সেই বার্তায়। কেউ কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় জানান শুভেচ্ছা। আবার কেউ দেন ভিডিও বার্তা। তবে এবার পুরো বিশ্বের পরিস্থিতি একেবারেই আলাদা। কারণ হচ্ছে- করোনা। এর কারণে মানুষের জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত। দীর্ঘদিন লকডাউনে থাকার ফলে মানসিক অবস্থাও বেশ খারাপ। তারপরেও উত্সবের মৌসুমে প্রিয়জনদের সঙ্গে আনন্দে মেতে ওঠেন কেউ কেউ। ভারতে করোনার কারণে এবারের দীপাবলি খুব একটা ঝলমলে হয়ে ওঠেনি। আতশবাজি ফাটানোর ব্যাপারে সরকারী নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ফলে আলোর উত্সবে অন্ধকার হানা দেয়। এরই মধ্যে সরকারের এই নির্দেশ মানতে সবার কাছে আবেদন করেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। একটা বছর দেশবাসীকে বাজি না পোড়ানোর আবেদন করেছিলেন তিনি। কিন্তু তার এই উপদেশ মেনে নিতে পারেনি কেউ। বরং অনেক কটু কথা শুনতে হয়েছে এই ক্রিকেটারকে।

টুইটারের মাধ্যমে দেশবাসীকে দীপাবলির শুভেচ্ছা জানান কোহলি। সেইসঙ্গে এবার বাজি না পোড়ানোর অনুরোধ করেন। প্রশাসনের পক্ষে বারবার বলা হচ্ছে, এবার বাজি পুড়লে করোনা পরিস্থিতি আরও মারাত্মক হতে পারে। কারণ করোনা শ্বাসতন্ত্রকেই আক্রমণ করে। ফলে বাতাসে দূষণ ছড়ালে করোনা পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে যেতে পারে। কিন্তু কোহলির সেই আর্জি বেশ কিছু সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীর পছন্দ হয়নি। তারা কোহলিকে ব্যাপক ট্রোল করেছেন। বিরাট যেন ভবিষ্যতে এরকম আর্জি আর না করেন, এমনও বলছেন কেউ কেউ। 

কোহলি বলেছিলেন, ‘আপনাদের সবাইকে দীপাবলির অনেক শুভেচ্ছা। মনে রাখবেন, এবার বাজি পোড়ানো চলবে না। আপনারা বাড়িতে প্রিয়জনের সঙ্গে দিওয়ালি উদযাপন করুন। মটির প্রদীপ ও মিষ্টি মুখে উত্সবে মেতে উঠুন। তার পরই তাকে নানান ভাষায় আক্রমণ করা হয়। 

এক ভক্ত লেখেন, ‘এই মানুষটার মেরুদণ্ড নেই। পশুদের হত্যা করার উত্সবের সময় ইনি কিছু বলেন না। উনি শুধু বলবেন, পশুরা বাজি ফাটলে ভয় পায়।’ 

আরেকজন লিখেছেন, ‘'আপনি ক্রিকেটার। আমরাই আপনাকে ভালোবাসা, পরিচিতি, সম্মানে ভরিয়ে দিয়েছি। তাই বলে এটা কখনও ভাববেন না যে আপনি হিন্দুদের সামাজিক বা ধর্মীয় গুরু। অকারণ জ্ঞান দেবেন না। আপনি সেটা দেওয়ার উপযুক্ত ব্যক্তি নন।’
সূত্র : জি নিউজ
এসএ/