ঢাকা, সোমবার   ১০ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৬ ১৪২৮

লন্ডনে বাংলাদেশ শেয়ার বাজার মেলা

একুশে টেলিভিশন  

প্রকাশিত : ১১:১০ পিএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ রবিবার

বাংলাদেশের শেয়ার বাজারে প্রবাসী ও বিদেশী বিনিয়োগ বাড়াতে বাংলাদেশি স্টকব্রোকার ও মার্চেন্ট ব্যাংকার নিয়ে লন্ডনে  অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ শেয়ার  বাজার মেলা বা বংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট ফেয়ার। আগামী ১০ অক্টোবর সেন্ট্রাল লন্ডনের একটি বিখ্যাত পাঁচ তারকা হোটেল রয়্যাল ল্যাংকস্টার হোটেলে এই শেয়ার বাজার মেলা অনুষ্ঠিত হবে। মেলার আয়োজক কারি লাইফ ইভেন্টস তৃতীয়বারের মতো লন্ডনে এই মেলার আয়োজন করছেন। কারি লাইফ মিডিয়া গ্রুপের প্রতিষ্ঠান কারি লাইফ ইভেন্টস এর আগে ২০১১ সালে এবং ২০১২ সালে লন্ডনে দুটি সফল শেয়ার বাজার মেলার আয়োজন করে। 

মেলার আন্যতম উদ্যাক্তা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, কারি লাইফ মিডিয়া গ্রুপের প্রধান  সৈয়দ বেলাল আহমেদ বলেন, 'প্রবাসীদের কাছে বাংলাদেশের শেয়ার বাজারে বিনিয়োগের সকল তথ্য ও সুবিধাদি পৌছে দেবার লক্ষ্যে তৃতীয় বারের মতো এই মেলার আয়োজন করছি।'

বাংলাদেশের একজন প্রবাসী বিনিয়োগ কারী হিসাবে আমি মনে করি শেয়ার বাজারের প্রাতিস্ঠানিক বিনিয়োগ আমাদের মতো প্রবাসীদের জন্য নিরাপদ ও উপকারি। তবে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগে ঝুঁকি আছে এজন্য ভেবে চিন্তে এবং বাজারের অভিজ্ঞ পেশাদারদের পরামর্শ নিয়ে বিনিয়োগ করা উচিত। আর আমরা সে ব্যাপারে সুযোগ করে দেয়ার জন্যেই মেলার আয়োজন করেছি।

বালাদেশ শেযার বাজারে আস্থা ফিরিয়ে আনার জন্য বাংলাদেশ সরকার নানা প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়েছে। বাংলাদেশ সিকিউরিটি এক্সচেঞ্জ কমিশনকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। তাছাড়া শেযার বাজার ভালো করে নিয়ন্ত্রন করারও নানা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।পুজি বাজারে বিনিয়োগ উতসাহিত করতে নানা প্রণোদনাও ঘোষণা করেছে সরকার । এর ফলে বাংলাদেশের পুজি বাজার অনেকটা আগের অস্থিরতা কাটিয়ে ঘুরে দাড়িয়েছে বলা যায়। সরকারী, বেসরকারী ভালো ভালো কোম্পানী, ব্যাংক মোবাইল ফোন অেপেরাটরসহ এখন অনেকেই পুজি বাজার থেকে পুজি সংগ্রহ করতে আসছে। 

বাংলাদেশের সার্বিক অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো থাকায় বিদেশীরা ও বাংলাদেশে বিনিয়োগে ব্যাপক ভাবে আগ্রহী হচ্ছেন। এই মহামারির সময়ে বাংলাদেশের সার্বিক অর্থনীতি দক্ষিণ এশিয়ায় ভালো অবস্থানে রয়েছে। 

বেলাল আহমেদ আরো বলেন, অন্যান্য দেশের প্রবাসী বাংলাদেশিদের তুলনায় বৃটেন প্রবাসী বাংলাদেশীরা নানা ভাবে ভালো অবস্থানে রয়েছেন। বিলেতে বাংলাদেশিদের বসতি দীর্ঘকাল ব্যাপী। দীর্ঘকাল ধরে বিলেতে বসবাসরত বাংলাদেশীদের সাথে গত বছরের ৩১শে ডিসেম্বরে ব্রেক্সিটের পূর্বেই ইতালী, জামার্নী ও স্পেন তথা ইউরোপ থেকে হাজার হাজার বাংলাদেশী ব্রিটেনে স্থায়ী ভাবে বসবাসের সুযোগ নিয়েছেন। তার মূল কারণ তারা তাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে ইংরেজী শিক্ষায় শিক্ষিত করতে চান এবং বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগ ও ব্যবসা বাণিজ্যে যুক্তরাজ্য একটি স্ট্রাটেজিক অবস্থানে রয়েছে। 

এই বিশাল বাংলাদেশী প্রবাসীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগে ব্যাপক ভাবে আগ্রহী। তুলনামূলক ভাবে ব্রিটিশ বাংলাদেশীদের বিনিয়োগের ক্ষমতা অনেক বেশী। কারণ তাদের অনেকই ভালো চাকুরি অথবা ব্যবসা বাণিজ্যের সাথে জড়িত। মধ্যপ্রাচ্য বা অন্যান্য দেশের প্রবাসী বাংলাদেশীদের মতো তাদের পরিবারকে ভরণ পোষণের অর্থ পাঠাতে হয়না। তারা এখন যে দেশেই অর্থ বিনিয়োগ করে মুনাফা অর্জন করা যায়, সেদিকেই নজর দেন বেশি। অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙ্গে বাংলাদেশের আর্থিক প্রবৃদ্ধি এখন অনেক বেশি ও সার্বিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল। আর এজন্য ব্রিটিশ বাংলাদেশিদের মধ্যে আরও বেশি করে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে।  

আগামী ১০ অক্টোবর লন্ডনের অভিজাত রয়েল ল্যাংকাষ্টার হোটেলে পাবলিকের জন্য একদিনের মেলা, সারাদেশ থেকে আসা ব্যবসায়ীদের সাথে নেটওয়ার্কিং, গালা ডিনার সহ মোট চারদিনের বিভিন্ন কর্মসূচী হাতে নিয়েছেন উদ্যোক্তারা। এতে ভিন্ন ভিন্ন ভেন্যুতে হাই নেটওয়ার্থ ব্যবসায়ীদের সাথে সরাসরি মিটিং, বিভিন্ন ট্রেড সংস্থা যেমন চেম্বার, ক্যাটারার্স ও যারা ইতোমধ্যেই বাংলাদেশে ব্যাংকিং ও অর্থনৈতিক খাতে বিনিয়োগ করেছেন তাদের সাথে মিটিং ও ডিনারের আয়োজন থাকছে এই কর্মসূচীতে। মেলার পূর্বে ঢাকা ও লন্ডনে সাংবাদিক সম্মেলন ও ব্যাক প্রচারের আয়োজন করা হয়েছে।

আরও বিস্তারিত জানতে হলে অথবা স্টল বুকিংয়ের জন্য নিম্ন ইমেইলে অথবা ফোন নম্বরে যোগাযোগের অনুরোধ করা হয়েছে। 

আরকে//