ঢাকা, রবিবার   ২৫ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ৯ ১৪২৮

৮৬ শতাংশ শ্রমিকের আয় কমেছে, সিপিডি জরিপ (ভিডিও)

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৪৮ পিএম, ৬ মে ২০২১ বৃহস্পতিবার

করোনার কারণে ৬২ শতাংশ শ্রমিক বছরে গড়ে ৯৫ দিন কর্মহীন ছিল। তাদের মধ্যে একটি অংশের পুনরায় কর্মসংস্থান হলেও বেশিরভাগই আগের পেশায় ফিরতে পারেননি। তবে কর্মহীন অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমিকদের বড় একটি অংশ কৃষিকাজে সম্পৃক্ত হতে পেরেছেন। গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডি-অক্সফাম পরিচালিত খানা জরিপে এসব তথ্য উঠে আসে। বলা হয়, ৮৬ শতাংশ শ্রমিক চাহিদার চেয়ে, আর ৪২ শতাংশ শ্রমিক আগের চেয়ে কম আয় করছেন।

করোনা সময়ে শ্রমজীবী মানুষের আয় ও কর্মসংস্থান কেন্দ্র করে পরিচালিত হয় সিপিডি-অক্সফামের এই খানা জরিপ। এতে বলা হয়, ৭৮ শতাংশ শ্রমিকের খরচ কমে গেছে। আর ৫২ শতাংশ শ্রমিক আয়ের সাথে সঙ্গতি রেখে খাদ্য-চাহিদা পূরণ করছেন।

গত বছরের এপ্রিল-মে মাসে যেসব শ্রমিক কর্মহীন হয়ে পড়েছিলেন, তাদের বড় একটি অংশ আগের পেশায় ফিরতে না পেরে কৃষিকাজে নিয়োজিত হয়েছেন।

সিপিডির সিনিয়র গবেষক তৌফিকুল ইসলাম খান বলেন, মূলত আমরা যেটা দেখতে পাচ্ছি, সেবা খাত থেকে কর্মসংস্থানগুলো কৃষি খাতের দিকে গিয়েছে। একই সাথে ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে যে ধরনের শ্রমিকরা আছেন এখানেও শ্রমিকদের আগের চেয়ে আয় কমে গেছে। এটা দু’ভাবেই হয়েছে, একটা হলো কর্মঘণ্টা কমেছে অন্যটি হলো যে মজুরীটা ছিল সেটার ভেতরও নেতিবাচক ভাব আছে।

শ্রমিকদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণে ব্যবস্থা না নিলে শ্রমবাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন আলোচকরা।

তারা জানান, প্রত্যেকটা শিল্পাঞ্চলে একটা বিশেষায়িত হাসপাতাল প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ আমরা এই বাজেটে বরাদ্দটা দেখতে চাই।

দেশের অর্থনীতি ও উৎপাদনমুখী কর্মকাণ্ড গতিশীল করতে দক্ষ ও প্রশিক্ষিত কর্মীর যোগান বাড়ানোর প্রয়োজনীয়তার কথা বললেন উদ্যোক্তারা। 

স্কয়ার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তপন চৌধুরী বলেন, কৃষিখাতে যেসমস্ত শ্রমিকরা কাজ করে তাদের পেছনে অনেক বড় অংকের টাকা যায়। যার জন্য উৎপাদন খরচটা বেড়ে যায়।

বিজিএমইএ সহ-সভাপতি শহিদুল্লাহ আজিম বলেন, গত পেনডেমিকের পরে আমাদের অনেকগুলো অর্ডার বাতিল হয়েছিল, অনেকগুলো স্থগিত করা হয়। এছাড়া তাদের পেমেন্টের ধরন পাল্টেছে।

করোনার প্রভাব মোকাবেলায় নতুন করে আর্থিক প্রণোদনার দাবিও তাদের। সার্বিকভাবে শ্রমিকের আয় কমলেও কিছু মানুষের আয় বেড়েছে মন্তব্য করেন বক্তারা।
দেখুন ভিডিও :


এএইচ/এসএ/