ঢাকা, শুক্রবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

চুয়াডাঙ্গায় একদিনে করোনায় শনাক্ত ৫৭

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১১:৪৩ এএম, ১৪ জুন ২০২১ সোমবার

চুয়াডাঙ্গায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫৭ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে মারা গেছেন একজন। এতে শনাক্তের হার দাঁড়িয়েছে ৪৩ দশমিক ১৮ শতাংশ। 

রোববার (১৩ জুন) রাতে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সবশেষ করোনা প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে গত শনিবার শনাক্তের হার ছিল ৬৬ দশমিক ০৭ শতাংশ। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২৭৯ জনে। আর এ পর্যন্ত জেলায় মারা গেছেন ৭২ জন।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্য মতে, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫৭ জনের শরীরে করোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এর মধ্যে সীমান্তবর্তী দামুড়হুদা উপজেলাতেই আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ জন। চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলায় ১৩ জন, আলমডাঙ্গায় দু’জন ও জীবননগরে ৭ জন রয়েছে।

বর্তমানে জেলায় সক্রিয় রোগী ৩২২ জন। তাদের মধ্যে বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন ২৮৩ জন, হাসপাতালে আছেন ৩৬ জন এবং বাকি তিনজনকে রেফার্ড করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সুস্থ হয়েছেন আরও ২৩ জন। এ পর্যন্ত জেলায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৮৬ জন। 

চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. এএসএম মারুফ হাসান জানান, গত শনিবার ১৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৫৭ জনের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া গেছে। যা একদিনে সর্বোচ্চ ৪৩ দশমিক ১৮শতাংশ। এটিই এখন পর্যন্ত জেলায় একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্তের হার।

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার বলেন, চুয়াডাঙ্গায় করোনা সংক্রমণের হার বাড়ছে। বিশেষ করে দামুড়হুদা উপজেলায় ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। দরকার হলে পুরো দামুড়হুদা উপজেলা লকডাউন দেওয়া হতে পারে। এ বিষয়ে আজ সোমবার করোনা সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
 
তিনি আরও বলেন, দামুড়হুদার ডুগডুগি ও নাটুদহ পশুহাটগুলো বন্ধ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে উপজেলার কয়েকটি গ্রামে সংক্রমণ বেশি হওয়ায় এসব গ্রামের প্রবেশমুখে ব্যারিকেড দিয়ে চলাচল সীমিত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ভারত সীমান্তঘেঁষা ১৬ গ্রামে লকডাউন চলছে। 

এএইচ/