ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৮ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৯

রেগে নিজের সব চুল উড়িয়ে দিয়েছিলেন সালমান

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:০৪ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২১ শুক্রবার

বেশ কয়েক বছর আগের কথা, একের পর এক ছবি করে চলেছেন সালমান খান। বেশির ভাগ ছবিই বক্স অফিসে সফল। ঠিক এমন সময় ‘তেরে নাম’-এ অভিনয়ের প্রস্তাব আসে।

ঘনিষ্ঠরা বারবার সলমনকে এই ছবি ফিরিয়ে দেওয়ার উপদেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু ‘ভাইজান’ কবেই কার কথা মতো চলেছেন! সব বাধা নিষেধ উড়িয়েই এই ছবিতে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

সেই সময় অন্য একটি ছবিতেও কাজ করছিলেন সালমান। ভেবেছিলেন দু’দিক একসঙ্গে সামলে নেবেন অনায়াসে। কিন্তু বিপাকে পড়েন ‘তেরে নাম’-এর প্রযোজকের আবদারে! সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে এসে সেই গল্পই ফাঁস করলেন ‘টাইগার’। 

বললেন, “একদিন ছবির প্রযোজক এবং আমার প্রিয় বন্ধু সুনীল মনচন্দ এসে বলল আমাকে সব চুল উড়িয়ে দিতে হবে। তা হলেই নাকি সেই চরিত্রের সঙ্গে একাত্ম হতে পারব। আরও ভালভাবে অভিনয় করতে পারব।”

অন্য দিকে আর একটি ছবির শ্যুটের মাঝেই চুল উড়িয়ে দেবেন কি না, তা নিয়ে দোটানায় ভুগছিলেন সালমান। কিন্তু প্রযোজকও তখন নাছোড়বান্দা। অগত্যা বাধ্য হয়ে রেগে গিয়ে নিজেই নিজের সব চুল উড়িয়ে ন্যাড়া হয়ে যান সলমন। হয়ে ওঠেন বদরাগী ‘রাধে’। 

তিনি বললেন, “এক দিন কিছু না ভেবেই রেগে গিয়ে আমি সব চুল উড়িয়ে দিলাম। এর পরেই আমি সুনীলকে ফোন করে জানাই ছবির জন্য আমি রাজি।সবাই আমার এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ছিল। কিন্তু কোনও কারণে আমি এই চরিত্রটা করতে চাইছিলাম।”

সালমানের সিদ্ধান্ত যে ভুল নয়, তা প্রমাণ করেছিল ‘তেরে নাম’-এর সাফল্য। প্রায় দু’দশক পরেও তাই এলোমেলো, বদমেজাজি ‘রাধে মোহন’কে (ছবিতে তাঁর চরিত্রের নাম) মনে রেখেছেন সিনেপ্রেমীরা।

এসি