ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৬ মে ২০২২,   জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৯

বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৮:৫২ এএম, ৪ ডিসেম্বর ২০২১ শনিবার

পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ হবে শনিবার। বছরের দ্বিতীয় এবং শেষ সূর্যগ্রহণ এটি। এর আগে সূর্যগ্রহণ হয়েছিল ১০ জুন। যখন চাঁদ সূর্য ও পৃথিবীর মাঝখানে চলে যায় এবং সূর্যকে আড়াল করে তখন সূর্যগ্রহণ ঘটে। বিশ্বের কিছু জায়গা থেকেই এই সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে। 

দক্ষিণ আফ্রিকা ও নামিবিয়ার কিছু কিছু এলাকাসহ আফ্রিকার দক্ষিণাঞ্চলের কোন কোন দেশ থেকে এই পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ আংশিকভাবে দেখা যাবে -যদি আবহাওয়া পরিষ্কার থাকে। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বলছেন গ্রহণ লাগার প্রায় চার ঘণ্টা পর থেকে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ডের একেবারে দক্ষিণ মাথা থেকে এই আকর্ষণীয় মহাজাগতিক ঘটনার কিছুটা প্রত্যক্ষ করা যাবে।

তবে পূর্ণগ্রাস দেখা যাবে অ্যান্টার্কটিকা, দক্ষিণ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আমেরিকা ও দক্ষিণ মেরুর কিছু অংশ থেকে। ভারতে থেকে এবার দেখা যাবে না।

ভারতীয় সময় অনুসারে, সূর্যগ্রহণটি শনিবার সকাল ১০টা ৫৯ মিনিটে শুরু হয়ে চলবে বিকাল ৩টা ৭ পর্যন্ত। ঘটনার লাইভ দেখাবে নাসার ইউটিউব চ্যানেল। পূর্ণগ্রাস শুরু হবে দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে। পূর্ণগ্রাস সম্পন্ন হবে দুপুর ১টা ৩ মিনিটে। ১টা ৩৩ মিনিটে পূর্ণগ্রাস গ্রহণ শেষ হবে। ৩টা ৭ মিনিটে আংশিক সূর্যগ্রহণ শেষ হবে। মোট ৪ ঘণ্টা ৮ মিনিট স্থায়ী হবে এই গ্রহণকাল।

একটি পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ তখনই ঘটে, যখন চাঁদ, সূর্য এবং পৃথিবীর মাঝখানে আসে এবং আমাদের গ্রহে তার ছায়া ফেলে। পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণের সময় চাঁদ সূর্যকে সম্পূর্ণভাবে ঢেকে রাখে। যখন আংশিক ও বৃত্তাকার সূর্যগ্রহণ ঘটে, চাঁদ সূর্যের একটি অংশকে আড়াল করে। 

‘গ্রহণ’ একটি বর্ণিল আর আকর্ষণীয় মহাজাগতিক ঘটনা। সে কারণেই গ্রহণকে ঘিরে রয়েছে মানুষের গভীর আগ্রহ আর গ্রহণকে ঘিরে গড়ে উঠেছে নানাধরনের পর্যটন আকর্ষণ। মহাজগতে যত রকমের গ্রহণ হয়, তার মধ্যে একটি হল সূর্যের পূর্ণগ্রাস গ্রহণ। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের গ্রহণ আছে।
সূত্র : স্পেস ডটকম
এসএ/