ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ মে ২০২৪,   জ্যৈষ্ঠ ৯ ১৪৩১

মিঠুন-মিজানুরের জোড়া শতকে উড়ছে মধ্যাঞ্চল

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:১১ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০২১ সোমবার | আপডেট: ০৬:১৮ পিএম, ১৩ ডিসেম্বর ২০২১ সোমবার

দেড় শতাধিক রানের ইনিংস খেলেই আউট হন দুজনেই

দেড় শতাধিক রানের ইনিংস খেলেই আউট হন দুজনেই

চলমান বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) প্রথম রাউন্ডে আশরাফুলের পর ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন ওয়াল্টন মধ্যাঞ্চলের দুই ওপেনার মোহাম্মদ মিঠুন ও মিজানুর রহমান। দুজনেই থেমেছেন দেড়শ রানের মাইলফলক স্পর্শ করে। যাতে ইতোমধ্যেই ২১১ রানের লিড নিয়েছে ওয়াল্টন মধ্যাঞ্চল।

দুইদিন বিলম্বে রোববার থেকে শুরু হওয়া এবারের বিসিএলে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করা বিসিবি উত্তরাঞ্চলকে ২১৯ রানে অলআউট করে ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল প্রথম দিন শেষ করেছিল বিনা উইকেটে ৬১ রান নিয়ে। দ্বিতীয় দিনে এসে আরও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে মধ্যাঞ্চলের উদ্বোধনী জুটি।

প্রথম উইকেটে মোহাম্মদ মিঠুন ও মিজানুর রহমান গড়েন ৩২৭ রানের অনবদ্য এক জুটি। ৪৭১ বলের ম্যারাথন এই জুটি ভাঙে মিজানুরের বিদায়ে। অবশ্য তার আগেই প্রায় ছয় ঘণ্টা ক্রিজে থেকে ২৪৩ বলের মোকাবেলায় ২১টি চার ও ৩টি ছক্কায় ১৬২ রান করেন ঘরোয়া ক্রিকেটের এই নিয়মিত পারফর্মার।

সঙ্গীর বিদায়ে যেন খেই হারিয়ে ফেলেন মোহাম্মদ মিঠুনও। সৌম্যের সঙ্গে মিলে মাত্র ২৯ রান যোগ করেই বিদায় নিতে হয় চলতি আসরের প্রথম শতক হাঁকানো ওপেনারকে। যদিও দেড়শর মাইলফলক ছুঁয়ে ডাবল সেঞ্চুরির ইঙ্গিতই দিচ্ছিলেন মিঠুন। তবে তরুণ পেসার নোমান চৌধুরীর চমৎকার এক ডেলিভারিতে উইকেটের পিছনে ক্যাচ দিয়ে সেই স্বপ্নে পানি ঢালেন চলতি বছরে তুমুল ট্রলের শিকার হওয়া ব্যাটার। 

সাড়ে ছয় ঘণ্টা ক্রিজে থেকে ফেরার আগে ২৫৬ বলে ২১টি চার ও ২টি ছক্কায় ১৭৬ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন মিঠুন। দুই ওপেনারের বিদায়ের পর অবশ্য দিনের বাকি সময়টা দেখেশুনে খেলেই পার করেন সৌম্য সরকার ও সালমান হোসাইন ইমন। 

ইমন ৫৪ বলে ৪০ ও সৌম্য ৬৫ বলে ৩৯ রান করে অপরাজিত আছেন। যাতে দ্বিতীয় দিন শেষে ১০৩ ওভার ব্যাট করে ২ উইকেট হারিয়ে মধ্যাঞ্চলের সংগ্রহ ৪৩০ রান। দলটির লিড ২১১ রান। উত্তরাঞ্চলের নোমান চৌধুরী সাগর ছাড়া বাকি উইকেটটি নিতে পারেন অভিজ্ঞ স্পিনার নাঈম ইসলাম।

এনএস//