ঢাকা, রবিবার   ২৬ জুন ২০২২,   আষাঢ় ১১ ১৪২৯

ওমিক্রন প্রতিরোধে কড়াকড়ি আরোপ বেনাপোল বন্দরে

বেনাপোল প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১০:৪৯ এএম, ৮ জানুয়ারি ২০২২ শনিবার | আপডেট: ১০:৫২ এএম, ৮ জানুয়ারি ২০২২ শনিবার

বেনাপোল চেকপোস্ট ও বন্দর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা

বেনাপোল চেকপোস্ট ও বন্দর পরিদর্শনে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা

সম্প্রতি ভারতে করোনাভাইরাস ও ওমিক্রনের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বেনাপোল চেকপোস্টে কড়াকড়ি আরোপসহ বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়েছেন যশোর জেলা প্রশাসক তজিমুল ইসলাম খান। বন্দর পরিদর্শন ও বিভিন্ন মহলের সাথে বৈঠক করে এই নির্দেশনা দেন তিনি।

শুক্রবার বিকেলে জেলা প্রশাসক মোঃ তজিমুল ইসলাম খান ও যশোর জেলা সিভিল সার্জন আবু শাহীনসহ সরকারি ঊর্ধতন কর্মকর্তারা বেনাপোল চেকপোষ্ট কাস্টমস ও নোম্যান্সল্যান্ড পরিদর্শন শেষে বন্দরের প্যাসেঞ্জার টার্মিনালে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ নিয়ে বৈঠক করেন।

যশোর জেলা প্রশাসক বলেন, বেনাপোল বন্দর রাষ্ট্রের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রবেশদ্বার। এই পথ দিয়ে যাত্রীরা যাতায়াত করে এবং ভারতীয় ট্রাক ড্রাইভাররা প্রবেশ করেন। সকলে যেন মাস্ক পরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল করেন। বন্দর এলাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের এসব দেখার দিকনির্দশনা দেন তিনি।

যশোরের সিভিল সার্জন আবু শাহীন বলেন, ভারত থেকে গত মঙ্গলবার ২ জন করোনা পজিটিভ যাত্রী দেশে ফেরত এসেছে, এটা আমাদের কাম্য নয়। যেখানে করোনা পজিটিভ ধরা পড়বে সেখানে আইসোলেশনে থাকার কথা। নইলে এরা জীবাণু ছড়াতে ছাড়তে আসবে। ভারতীয় ট্রাকচালক এবং যাত্রীরা যাতে স্বাস্থ্য বিধি মেনে দেশে প্রবেশ করেন সে ব্যপারে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। 

তিনি আরও বলেন, ওমিক্রনের সংক্রমণ যাতে যাত্রীদের মাধ্যেমে দেশে প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে গত বছরের মত বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। ভারতের ট্রাকচালকরা যাতে অবাধে বাজারে প্রবেশ করতে না পারে সে দিকেও সতর্ক থাকতে হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা, নাভারণ সার্কেল এ এসপি জুয়েল ইমরান, বেনাপোল বন্দর উপ-পরিচালক মামুন কবির তরফদার, শার্শা সহকারী কমিশনার (ভুমি) রাসনা শারমীন মিথি, বেনাপোল কাস্টমস এর ডেপুটি কমিশনার আব্দুল কাইয়ুম, নাভারন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার ইউসুফ আলী, বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন, বেনাপোল পোর্ট থানা ওসি মামুন খান ও ইমিগ্রেশন ওসি মোঃ রাজু প্রমুখ।

এএইচ/