ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৫ জুন ২০২৪,   আষাঢ় ১১ ১৪৩১

ভিডিও ফাঁসের ভয় দেখিয়ে গৃহবধূকে ‘ধর্ষণ’

মাদারীপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১২:২৬ পিএম, ৭ মার্চ ২০২২ সোমবার

ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে মাদারীপুরে এক গৃহবধূকে ছয় মাস ধরে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক দন্ত চিকিৎসক ও তার বন্ধুদের বিরুদ্ধে। 

চিকিৎসার জন্য গেলে প্রথমে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে ওই গৃহবধূকে ধর্ষণ ও গোপনে সেই দৃশ্য ভিডিও করেন ওই চিকিৎসক। 

পরবর্তীতে সেই ভিডিও ফাঁস করে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখিয়ে দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে ছয় মাস ধরে ধর্ষণ করে আসছেন বলে অভিযোগ ওই গৃহবধূর। শুধু তাই নয়, ওই নারীর কাছ থেকে ২০ হাজার টাকাও হাতিয়ে নিয়েছে চক্রটি।

কালকিনি থানায় মামলা হলেও কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। 

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ মামলায় অভিযোগ করেছেন, গত বছরের সেপ্টেম্বরে কালকিনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে ‘সেবা ওরাল অ্যান্ড ডেন্টাল কেয়ারে’ চিকিৎসা নিতে যান। সেখানে প্রতিষ্ঠানের চিকিৎসক ছায়েদুল হক কিরণ ওই গৃহবধূকে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে ধর্ষণ এবং সেই দৃশ্য মোবাইল ফোনে ভিডিও করেন। 

পরে সেই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে বন্ধু মেহেদী হাসান শিকদার ও সোহাগ মিয়াকে গত ছয় মাস ধরে বিভিন্ন সময় গৃহবধূকে ধর্ষণ করে আসছিলেন। 

ওই গৃহবধূ বলেন, “ভিডিও মুছে ফেলার আশ্বাস দিয়ে আমার কাছ থেকে ২০ হাজার টাকাও নেয় সোহাগ। কিন্তু ভিডিও মোছেনি। উল্টো আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে বার বার ধর্ষণ করে।”

এ বিষয়ে কালকিনি থানার ওসি ইশতিয়াক আশফাক রাসেল একুশে টেলিভিশনকে বলেন, “ছয় মাস আগের ঘটনা। জানাজানি হওয়ার পর অভিযুক্তরা পালিয়েছে। আসামিদের ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে।”

এএইচ