ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৬ জুলাই ২০২৪,   শ্রাবণ ১ ১৪৩১

বান্দরবানে তিনশ’ একর ফসলি জমি দখলের অভিযোগ (ভিডিও)

বান্দরবান প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ০১:৪৩ পিএম, ২২ মে ২০২২ রবিবার | আপডেট: ০১:৪৪ পিএম, ২২ মে ২০২২ রবিবার

বান্দরবানে প্রায় তিনশ’ একর ফসলি জমি দখলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে লামা রাবার ইন্ডাস্টিজের বিরুদ্ধে। জুম চাষীদের অভিযোগ, ফলের বাগান ও মূল্যবান গাছ কেটে জমি দখলে নিয়েছে তারা। তবে রাবার কারখানা কর্তৃপক্ষের দাবি, জমিটি লিজ নিয়েছে তারা।

প্রায় ৪০ বছর ধরে এই জমিতে জুম চাষ করে আসছে লামার ডলুছড়ি মৌজার জয়চন্দ্র ত্রিপুরাপাড়া, লাংকম ম্রো-পাড়া ও রেংয়াং ম্রো-পাড়ার ৩৯ পরিবার।

তারা জানায়, নব্বই দশকের প্রথম দিকে কিছু জমি লিজ নিয়ে রাবার কারখানা গড়ে তোলা হয়। গত মাসে রাবার কারখানার লোকজন জুম চাষীদের প্রায় তিনশ’ একর জমি দখল করে নেয়।

স্থানীয়রা বলেন, “২ হাজার রোহিঙ্গা গুণ্ডাপান্ডা নিয়ে গাছপালা কেটে জমি দখলে নিয়েছে। বাধা দিতে গেলে তারা মারতে আসে। এখন আমরা থাকব কোথায়।”

আরেকজন জানান, “ধ্রুজন হ্যাডম্যান মদদদাতা এবং তার সাথে হাজী রাম ত্রিপুরা। এই দু’জনের মদদে লামা রাবার ইন্ড্রাস্ট্রিজের পরিচালক কামাল উদ্দিন নির্ভয়ে জায়গাগুলো দখল করার চেষ্টা চালাচ্ছেন। তারা পাহাড়ীদের উপর জোর জুলুম চালাচ্ছেন।”

তবে এই জমি রাবার ইন্ডাস্ট্রিজের লিজ নেয়া বলে দাবি এই কর্মকর্তার।

লামা রাবার ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. কামাল উদ্দিন বলেন, “এই জায়গা ডিসি অফিস বুঝিয়ে দিয়েছে, কাগজপত্র আমরা বুঝে নিয়েছি। এই জায়গা যদি ঠিক না হয় তাহলে জমি ফেরত দেওয়া হবে।”

বিষয়টি তদন্তের আশ্বাস দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

বান্দরবান জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরিজী বলেন, “বিষয়টি নিয়ে কেন দ্বন্দ্ব লাগল, আগুন কোত্থেকে আসল, তাদের ঝুম ফসলের কতটুকু ক্ষতি হয়েছে- সব বিষয় নিয়ে একটি তদন্ত রিপোর্ট দেওয়া হবে।”

এঘটনায় রাবার কারখানার ৮ জনের বিরুদ্ধে পাড়াবাসীরা মামলা করেছেন। এরইমধ্যে ২ জনকে গ্রেফতারের পর আদালতের নির্দেশে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এএইচ/