ঢাকা, সোমবার   ২০ মে ২০২৪,   জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

ঠাকুরগাঁওয়ে ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত ৫ আসামী গ্রেফতার

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৮:৫৬ পিএম, ২৩ আগস্ট ২০২২ মঙ্গলবার

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে স্বামীর বন্ধুর বাড়ি থেকে বোনের বাড়িতে যাওয়ার পথে এক গৃহবধূকে অপহরণের পর গণধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত পাঁচ জনকেই গ্রেফতার করেছে। ভুক্তভোগী ওই নারী বাদী হয়ে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে শনিবার হরিপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। 

মঙ্গলবার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত পলাতক দুই আসামি হরিপুর উপজেলার বকুয়া ইউনিয়নের চাপধা (তুলাদিঘী) গ্রামের সেন্টুর ছেলে রকিম ওরফে কাঠকাঠ (৩০) ও মানিকখাড়ি গ্রামের রশিরের ছেলে লসকর (৩১) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর আগে ঘটনার দিন ঘটনাস্থলেই হাটপুকুর গ্রামের সলেমান আলীর ছেলে ফজলুর রহমান(২০)কে ও পরে অভিযান চালিয়ে চাপধা পিপলা গ্রামের করিমুল ইসলামের ছেলে রিসাদ (১৯) ও একই এলাকার গুচ্ছ
গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে আকাশ(২০)কে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশনায় গ্রেফতারকৃতদের কারাগারে পাঠানো হয়।
  
এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হরিপুর থানার ওসি তদন্ত আনোয়ার হোসেন বলেন, অভিযুক্ত পাঁচজন আসামি জবানবন্দিতে তাদের অপরাধের কথা স্বীকার করেছে। বিজ্ঞ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট তাদের জবানবন্দি গ্রহণ করেন। 

মামলায় অভিযোগ করা হয়, ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার দক্ষিণ পাড়িয়া এলাকার ওই নারী গত শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে তার সাত বছর বয়সী ছেলেকে নিয়ে তিনি হরিপুর উপজেলার রুহিয়া এলাকায় স্বামীর বন্ধুর বাড়ি থেকে বোনের বাড়িতে যাচ্ছিলেন। এসময় অভিযুক্তরা হরিপুর উপজেলার কামারপুকুর অটো স্ট্যান্ড হতে ওই নারী (২৮) কে অটোরিক্সাযোগে অপহরণ করে উপজেলার বকুয়া ইউনিয়নের চাপধা বাজারের পূর্ব উত্তর পাশে আনোয়ার মাস্টারের আম বাগানের ভিতরে নিয়ে যায়। সেখানে অপহরণকারীরা ওই গৃহবধূর ছেলে (৭)’র গলায় ছুড়ি ঠেকিয়ে জিম্মি করে তার মাকে পর্যায়ক্রমে গণধর্ষণ করে। 

পরে রাত সাড়ে ১২ দিকে ধর্ষকরা ওই গৃহবধূ ও তার ছেলেকে রাস্তার পাশে ফেলে পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় লোকজন ধর্ষক ফজলুর রহমানকে আটক করে ৯৯৯ কল দেন। পরে ফজলুর রহমান ও ভিকটিমের ভাষ্যমতে হরিপুর থানা পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে আরও দুই ধর্ষক রিসাত ও অটো চালক আকাশকে গ্রেফতার করে হরিপুর থানা পুলিশ।
কেআই//