ঢাকা, শুক্রবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩,   অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪৩০

সৈকতে হারানো টাকা ফেরত পেয়ে অভিভূত পর্যটক 

কুয়াকাটা-কলাপাড়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ০৪:১৯ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২৩ শনিবার

কুয়াকাটা সৈকতে ভ্রমণে আসা এক পর্যটকের ৪৮ হাজার টাকা কুড়িয়ে পেয়ে ফেরত দেয়ার দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সৈকতের এক ফটোগ্রাফার। এ ঘটনায় ব্যাপক কৌতূহল এবং আস্থা তৈরি হয়েছে পর্যটকদের মাঝে। অভিভূত ও বিস্মিত হয়েছেন টাকার মালিক বগুড়া থেকে আসা পর্যটক মিজানুর রহমান।

ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকেলে কুয়াকাটার লেম্বুর বনে।

জানা গেছে, পর্যটক মোঃ মিজানুর রহমান দম্পতি কুয়াকাটা ভ্রমণে এসে সৈকতের জিরো পয়েন্ট থেকে অটোরিকশায় লেম্বুর বনে যান। এসময় তার পকেটে থাকা ৪৮ হাজার টাকা হারিয়ে যায়। এরপর বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক অনুসন্ধান করে না পেয়ে হাতাশ হয়ে হোটেলে ফিরে আসেন। 

এদিকে ওই টাকা কুয়াকাটা সৈকতের ফটোগ্রাফার হাবিবুর রহমান কুড়িয়ে পেয়ে কুয়াকাটা ট্যুরিস্ট পুলিশের নজরে আনেন। প্রকৃত মালিককের হাতে টাকা ফিরিয়ে দিতে করা হয় মাইকিং। 

খবর পেয়ে টাকার মালিক হাবিবুর রহমান উপযুক্ত প্রমাণ দিয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশের মাধ্যমে ৪৮ হাজার টাকার পুরোটাই পেয়ে যান।

পর্যটক মিজানুর রহমান বলেন, আমি লেম্বুর বনে ঘুরতে যাওয়ার পরে নামাজ আদায়ের উদ্দেশ্যে সেখানকার একটি মসজিদে যাই। এসময় পকেটে হাত দিয়ে টাকা না পেয়ে ব্যাপক অনুসন্ধান করেও পাচ্ছিলাম না। ধারণা ছিল, এই টাকা আর কখনো হাতে পাবো না। কিন্তু পুলিশের মাইকিংয়ের মাধ্যমে খবর পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশ বক্সে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি ফটোগ্রাফার হাবিব টাকা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন। ওই ফটোগ্রাফার এবং ও স্থানীয় মানুষের ব্যবহারে মুগ্ধ হলাম।

টাকা কুড়িয়ে পাওয়া ফটোগ্রাফার হাবিব বলেন, ছবি তুলছিলাম তখন একটি টিস্যু পেপারে মোড়ানো কিছু টাকা দেখতে পেয়ে ট্যুরিস্ট পুলিশকে জানাই। যার টাকা তাকে দিতে পেরে আমি আনন্দিত।

সৈকতে কর্তব্যরত ট্যুরিস্ট পুলিশের পরিদর্শক হাসনাইন পারভেজ বলেন, ফটোগ্রাফার হাবিব কুড়িয়ে পাওয়া ৪৮ হাজার টাকা আমাদের কাছে জমা রাখলে টাকার প্রকৃত মালিক অনুসন্ধানে মাইকিংয়ের ব্যবস্থা করি। উপযুক্ত প্রমাণ দিতে পারায় বগুড়া থেকে আগত পর্যটক মিজানুর রহমানের হাতে টাকাগুলো তুলে দিতে সক্ষম হয়েছি। 

এএইচ