ঢাকা, সোমবার   ২৭ মে ২০২৪,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪৩১

অটোচালক হত্যার রহস্য উদঘাটন, চাচাসহ গ্রেপ্তার ২

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১০:২৭ এএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩ সোমবার

কুড়িগ্রামের উলিপুরে চাঞ্চল্যকর অটোরিকশা চালক হত্যার ২৪ ঘন্টার মধ্যে রহস্য উদঘাটনসহ আলামত উদ্ধার করে হত্যার সঙ্গে জড়িত দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

রোববার (২২ জানুয়ারি) বিকালে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় কুড়িগ্রাম জেলা পুলিশ। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার ধরনীবাড়ি তেলীপাড়া এলাকার অটোচালক রফিকুল ইসলাম (৩২) গত ১৯ জানুয়ারি দুপুরে গুনাইগাছ আমিন মোড়ে ‘আশা এনজিও’ থেকে লোনের ৫০ হাজার টাকা উত্তোলনের জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে যাযন। বিকেলে লোনের টাকা উত্তোলন করে তার স্ত্রীকে ফোন দিয়ে উলিপুর বাজারে ডেকে নেন। 

তখন তার স্ত্রী স্টিলের বাক্স কিনতে চাইলে, প্রতিবেশী মোঃ রফিকুল ইসলাম নিষেধ করেন। অতঃপর স্ত্রীকে সন্ধ্যায় নিজ বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে প্রতিবেশী মোঃ রফিকুল ইসলামের সঙ্গে চলে যান ভিকটিম রফিকুল ইসলাম। 

এ সময় ভিকটিম রফিকুল ইসলামের নিকট লোনের ৫০ হাজার টাকাসহ অটো বিক্রির টাকা ছিল। তিনি বাড়িতে ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন। এক পর্যায়ে গত ২০ জানুয়ারি ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ধরণীবাড়ী তেলীপাড়া গ্রামের জনৈক ব্যক্তির পুকুরের পাড়ে ভিকটিম রফিকুল ইসলামকে গলা কাটা অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশকে খবর দেয়। 

এ ঘটনায় উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়।


উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আশরাফুজ্জামান জানান, গোপন তথ্য সংগ্রহ করে তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার সঙ্গে জড়িত ধরনীবাড়ি তেলিপাড়া গ্রামের মোঃ রফিকুল ইসলাম (৩৫) ও একই গ্রামের মোঃ ফেরদৌস আলম (৩৫)কে গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী হত্যার কাজে ব্যবহৃত একটি চাকু, একটি মোবাইল ও ৭ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মোঃ শাহ আলম জানান, আসামি রফিকুল সম্পর্কে ভিকটিম রফিকুলের চাচা। গ্রেফতারকৃত অপর আসামি ফেরদৌস আলম বিজ্ঞ আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি ১৬৪ ধারায় হত্যার পরিকল্পনা, কিভাবে হত্যাকাণ্ডটি ঘটিয়েছে তার বিশদ বর্ণনা দিয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

এএইচ