ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৫ এপ্রিল ২০২৪,   বৈশাখ ১১ ১৪৩১

কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছরে আরব আমিরাত-বাংলাদেশ (ভিডিও)

মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম তালুকদার, আরব আমিরাত থেকে

প্রকাশিত : ০৩:১৯ পিএম, ২৪ মে ২০২৩ বুধবার

নানা আয়োজনে উদযাপন করা হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাংলাদেশের ক‚টনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর। ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সফরের মধ্য দিয়ে দু’দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের যাত্রা শুরু হয়। এই সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করতে নানা উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস। তারই অংশ হিসেবে দুই দেশের শিল্পীদের নিয়ে চলছে চিত্রকর্ম প্রদর্শনী। 

১৯৭৪ সালের ১৮ ডিসেম্বর, সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের রাষ্ট্রনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পা রাখেন সংযুক্ত আরব আমিরাতে। দেশটির তৎকালীন রাষ্ট্রপতি শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের আমন্ত্রণে ওই সফরে নতুন মাত্রা পায় দু’দেশের সু-সম্পর্ক। 

আর এই সম্পর্ককে আরও একধাপ এগিয়ে নেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দুদেশের বন্ধুত্বের চিহ্ন এখন আবুধাবির যুবরাজকে শেখ হাসিনার দেয়া বঙ্গবন্ধু-নাহিয়ানের দূর্লভ ছবি।

দু'দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক এখন অর্ধশতাব্দির যাত্রায়। আর এই যাত্রাকে প্রসারিত করতেই বাংলাদেশ মিশনের ব্যতিক্রমী এই আয়োজন। দু’দেশের ১৬ শিল্পীর ৮০টি চিত্রকর্ম প্রদর্শনী।

একদিকে চিরায়ত বাংলার পালতোলা নৌকা, সবুজের সমারোহ- অন্যদিকে দুই রাষ্ট্রনায়কের যুগল ছবি- দেয়াল জুড়ে এরকম সারি সারি চিত্রকর্মে স্পষ্ট হয়ে ওঠে বাংলাদেশ-আমিরাতের ইতিহাস-ঐহিত্য ও সংস্কৃতির নানা গল্প।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ও আরব আমিরাতের কূটনীতিকরা। অংশ নেন এশিয়ার বিভিন্ন দেশের নাগরিকরাও।

আয়োজকরা জানান, এ ধরণের উদ্যোগ দু’দেশের সংস্কৃতির বন্ধন আরও দৃঢ় করবে। 

সেইসঙ্গে বিশ্বের কাছে বাংলার শিল্পীদের পরিচয় করাতেও বড় ভূমিকা রাখবে এই প্রদর্শনী।

আবুধাবি বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত মো. আবু জাফর বলেন, “এটির ব্যাপ্তি অনেক বেশি এবং দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বৃদ্ধি হয়েছে। এদেশে বসবাস করছেন প্রায় ১০ লক্ষাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি।

দুবাইয়ের আমেরিকান ইউনিভার্সিটিতে পাঁচ দিনের এই আয়োজনই শেষ নয়, আগামী মাস থেকে যৌথভাবে থাকবে নতুন নতুন আয়োজন।

এএইচ