ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০২৪,   আষাঢ় ৫ ১৪৩১

সেপ্টেম্বরে রেলে যুক্ত হচ্ছে মোংলা বন্দর (ভিডিও)

মহেন্দ্রনাথ সেন, খুলনা থেকে

প্রকাশিত : ১২:২২ পিএম, ২৭ জুলাই ২০২৩ বৃহস্পতিবার

চলতি বছর সেপ্টেম্বরেই রেলযোগাযোগ ব্যবস্থায় যুক্ত হতে চলেছে দেশের দ্বিতীয় সমুদ্রবন্দর মোংলা। এরইমধ্যে শিল্প রাজধানী খুলনার সাথে বন্দরের রেলপথের কাজ শেষ হয়েছে ৯৮ ভাগ। এর ফলে শুধু বাংলাদেশ নয়, ভারত-নেপাল ও ভুটানের আমদানী-রপ্তানি বাণিজ্যের প্রসারে অপার সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত হবার আশা করছেন ব্যবসায়ীরা। 

পুরনো শহর খুলনা। রেলপথ ব্রিটিশ আমলেও ছিল এখানে। তবে মোংলা বন্দরের সাথে রেল যোগাযোগে বড় বাধা ছিল রূপসা নদীতে রেল সেতু না থাকা। 

অবশেষে রূপসার বুকে শেষ হয়েছে ৫.১৩ কিলোমিটারের সেতুর নির্মাণ কাজ। এছাড়া, মোংলা পর্যন্ত ১শ’ ৭টি ছোট সেতু, ৯টি আন্ডার পাসও তৈরি হয়েছে। 

পাশাপাশি প্রায় ৮৫ কিলোমিটার রেলপথ বসেছে, বাকি আছে সাড়ে ৪ কিলোমিটার। এর মধ্যে ব্রডগেজ রেলপথ ৬৪ দশমিক সাত-পাঁচ কিলোমিটার। 

খুলনা-মোংলা রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প পরিচালক আহম্মেদ হোসেন মাসুম বলেন, “২০১৬ সালের অক্টোবর মাসে কাজ শুরু হয়। এরপর বিভিন্ন চড়াই-উৎড়াই পেরিয়ে বর্তমানে প্রায় ৯৮ শতাংশ কাজ সমাপ্ত হয়েছে।”

১১টি প্ল্যাটফর্ম আর স্টেশনসহ প্রকল্পের ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ শেষ। এখন চলছে, টেলিকমিউনিকেশন ও সিগন্যালিং বসানো এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজ।  

আহম্মেদ হোসেন মাসুম বলেন, “কানেক্টিং রেললাইনের কিছু কাজ বাকি আছে, এই কাজগুলো সম্পন্ন করে এবছরের সেপ্টেম্বরে ট্রেন চলাচল শুরু করতে পারবো বলে আশা রাখছি।”

সুদীর্ঘ অপেক্ষার অবসান। মোংলায় ফিরবে বাণিজ্যের প্রাণ; নতুন ছোঁয়া লাগবে সুন্দরবন কেন্দ্রিক পর্যটনেও। 

খুলনা চেম্বার অব কমার্স পরিচালক জেড এ মাহমুদ ডন বলেন, “রূপসা রেল ব্রিজ এই অঞ্চলের অর্থনৈতিক চালিকাশক্তি হয়ে দাঁড়াবে।”

ব্যবসায়ী নেতা শফিকুল ইসলাম মধু বলেন, “এই রেলের যোগাযোগের মাধ্যমেই ইন্ডিয়া-মিয়ানমার যেখানেই হোক না কেন আমরা সুবিধা ভোগ করতে পারবো।”

সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, এ অঞ্চলে পদ্মা সেতুর সুফলও ঘরে তোলার পথকে আরও মসৃণ করতে যাচ্ছে এই রেলপথ। 

খুলনা চেম্বার অব কমার্স পরিচালক মফিদুল ইসলাম টুটুল বলেন, “মোংলা বন্দরে পণ্য আমদানি-রপ্তানিতে রেললাইনটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।”

২০১০ সালের ডিসেম্বরে একনেকে অনুমোদন পাওয়া খুলনা-মোংলা রেলপথ প্রকল্পের ব্যয় দাঁড়িয়েছে সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা।

এএইচ