ঢাকা, শনিবার   ১৮ মে ২০২৪,   জ্যৈষ্ঠ ৪ ১৪৩১

পালিত হচ্ছে বিশ্ব শ্রবণ দিবস

শিউলি শবনম

প্রকাশিত : ১০:২০ এএম, ৩ মার্চ ২০২৪ রবিবার

রাজধানীর ৮০ ভাগ বিদ্যালয়েই মানমাত্রার দ্বিগুণ বেশি শব্দ দূষণ হচ্ছে- এমনটা বলছেন গবেষকরা। এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কোমলমতি শিশুরা। আর ঢাকায় দীর্ঘদিন বসবাসকারীরা ধীরে ধীরে কানে কম শুনতে পারেন বলে সতর্ক করছেন চিকিৎসকরা। এমন বাস্তবতায় দেশে আজ পালিত হচ্ছে বিশ্ব শ্রবণ দিবস। 

মানুষের কানের সহনীয় শব্দমাত্রা সাধারণত ৫৫ থেকে ৬০ ডেসিবেল। অথচ ঢাকার প্রায় সব এলাকায়ই শব্দের আদর্শমান অতিক্রম করেছে ১ দশমিক ৩ থেকে ২ গুণ বেশি। 

চরম ঝুঁকিতে আছে রাজধানীর বিদ্যালয়গুলো। বায়ুমন্ডলীয় দূষণ অধ্যয়ন কেন্দ্র-ক্যাপসের গবেষণায় উঠে আসে, এই শহরের অন্তত ৮০ ভাগ বিদ্যালয়ের শিশুরা উচ্চমাত্রার শব্দ দূষণের ঝুঁকিতে আছে। 

এমন পরিস্থিতিতে কানের মতো গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের বিশেষ যত্ন নিতে দেশে পালিত হচ্ছে বিশ্ব শ্রবণ দিবস। ২০০৭ সাল থেকে পালিত হয়ে আসছে দিবসটি। 

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শব্দ দূষণ নিয়ন্ত্রণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আশপাশে যানবাহন প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা, শ্রেণীকক্ষে সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি আইনের কঠোর প্রয়োগের কোনো বিকল্প নাই। 

উচ্চমাত্রার শব্দের কারণে ঢাকায় কানে কম শুনতে পাওয়া রোগীর সংখ্যা বাড়ছে- বলছেন চিকিৎসকরা। ২০৩৫ সালের মধ্যে প্রায় ৩৫ শতাংশ মানুষ বধির হওয়ার ঝুঁকিতেও রয়েছে। 

সংকট সমাধানে ঢাকাকে হর্নমুক্ত ঘোষণার পাশাপাশি নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্নের ব্যবহার কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণের পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

এএইচ