ঢাকা, শুক্রবার   ১২ জুলাই ২০২৪,   আষাঢ় ২৮ ১৪৩১

ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর নিজস্ব মাতৃভাষায় শিক্ষাদান চালু

প্রকাশিত : ১২:২১ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৮:১৩ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বৃহস্পতিবার

পার্বত্য চট্টগ্রামে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর শিশুদের মাতৃভাষায় শিক্ষাদানে তাদের ভাষায় পাঠ্যপুস্তক চালু করেছে সরকার। তবে প্রশিক্ষিত শিক্ষকের অভাবে কাঙ্খিত সুফল মিলছে না। নিয়মিত বেতন-ভাতাসহ পর্যাপ্ত প্রশিক্ষিত শিক্ষক নিয়োগের দাবি সংশ্লিষ্টদের।

১৯৯৭ সালের পার্বত্য চুক্তিতে নিজ নিজ ভাষায় শিক্ষার কথা বলা হয়েছিল। তাই ২০১৭ সাল থেকে সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামের চাকমা, মারমা ও ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের শিশুদের জন্য মাতৃভাষার পাঠ্যপুস্তক চালু করে। শুরুতে একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা থেকে ৫০ জন প্রশিক্ষিত শিক্ষককে রাঙামাটির বিভিন্ন বিদ্যালয়ে মাতৃভাষায় পাঠদানের অনুমোদন দেয় প্রশাসন। তবে আজ পর্যন্ত মেলেনি বেতন ভাতা। প্রশিক্ষিত শিক্ষকের অভাবে ব্যাহত হচ্ছে পাঠদানও।

ইতোমধ্যে সাড়ে তিনশ’ শিক্ষককে মাতৃভাষায় পাঠদানের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলে জানালেন, স্থানীয় প্রশাসন। পার্বত্য চট্টগ্রামে চাকমা, মারমা, ত্রিপুরাসহ এগারো ভাষাভাষীর ১৩টি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী রয়েছে। প্রশিক্ষিত শিক্ষকের মাধ্যমে মাতৃভাষায় পড়াশোনা করার সুযোগ পাবে, এমনটাই প্রত্যাশা পাহাড়ী জনগোষ্ঠীর।

এসএইচ/