ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২০,   মাঘ ৯ ১৪২৬

গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকে বাঁচার উপায়

প্রকাশিত : ১১:১৫ এএম, ২৯ জুলাই ২০১৮ রবিবার | আপডেট: ১২:১৫ পিএম, ১৬ আগস্ট ২০১৮ বৃহস্পতিবার

সামান্য একটু অসতর্কতার কারণে নাগরিক জীবনে ঘটে নানাবিধ দুর্ঘটনা। তাই প্রতি দিনের তাড়াহুড়ো আর ব্যস্ততার মধ্যেও দুর্ঘটনা এড়াতে নেওয়া হয় নানামুখী সতর্কতা। তবে নানাবিধ এ সতর্কতার মধ্যে অন্যতম হলো গ্যাস সিলিন্ডার ভাল ভাবে বন্ধ হল কি না, গ্যাসের নব বন্ধ হয়েছে কি না— এ সব অত্যন্ত জরুরি ভাবনা। সিলিন্ডার বিস্ফোরণের হাত থেকে বাঁচার কিন্তু প্রাথমিক শর্ত এটাই।

এর পরেও বেশ কিছু জরুরি বিষয়ে নজর রাখলেই এড়ানো যায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ। সিলিন্ডারের পাইপ, গ্যাসের রেগুলেটর ইত্যাদির ক্ষেত্রে একটু খেয়াল রাখলেই বাড়িকে নিরাপদ রাখা যায়। জানেন কি, ঠিক কোন কোন দিকে যত্নবান হলে বাড়িকে সুরক্ষা দেওয়া যায়?

সিলিন্ডার গরম হতে পারে এমন কোনও কাজ করবেন না। অনেকেই গ্যাসের রেগুলেটর বা দেশলাই ব্যবহারের পর অবহেলার সঙ্গে তা রেখে দেন সিলিন্ডারের উপরেই। এই দু’টি জিনিসের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখুন।

গ্যাসের পাইপটির গায়ে ভারত সরকারের ‘আইএসআই’ ছাপ আছে কি না দেখে নিন। না থাকলে সেই সিলিন্ডার অবিলম্বে পরিসেবা প্রদানকারী সংস্থাকে ফেরত দিন। পাইপটির দৈর্ঘ্য এক থেকে দেড় ফুটের বেশি লম্বা না হওয়াই বাঞ্ছনীয়।

রান্নাঘরে ঢুকেই গ্যাসের গন্ধ পেলে তখনই বেরিয়ে আসুন রান্নাঘর থেকে। ওই অবস্থায় কোনও সুইচ বোর্ড বা বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম চালু করবেন না। গ্যাস বেরিয়ে যাচ্ছে বুঝলে দ্রুত খবর দিন পরিসেবা প্রদানকারী সংস্থার হেল্প লাইন নম্বরে।

সেফটি ক্যাপ ব্যবহার করুন। রান্নাঘর থেকে বেরনোর পরেই সিলিন্ডারের মুখ ঢেকে রাখুন সেফটি ক্যাপে।

অনেকেই পাইপ পরিষ্কার করতে সাবান ব্যবহার করেন। এটা অত্যন্ত ভয়ের। পরিষ্কার শুকনো কাপড় ব্যবহার করুন। খুব নোংরা হলে হালকা করে জলে ভিজিয়ে নিন কাপড়। সেই কাপড়েই পরিষ্কার করুন গ্যাসের পাইপ।

পাইপ পরিষ্কার করতে অনেকে গ্যাসের পাইপের গায়ে কোনও কাপড় বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়িয়ে রাখবেন না। এমন করলে পাইপ থেকে গ্যাস লিক হলে ধরা পড়বে না। একই পাইপ বছরের পর বছর ব্যবহার না করে প্রতি দুই থেকে তিন বছর অন্তর বদলে ফেলুন।

গ্যাসের রেগুলেটরের নজল ভাল করে পাইপ দিয়ে ঢেকে রাখুন। গ্যাস বন্ধ করে বেরনোর আগে দেখে নিন গ্যাসের পাইপ যেন কোনও ভাবে গরম বার্নারের গায়ে লেগে না থাকে।

সূত্র- আনন্দ বাজার পত্রিকা

আরকে//