ঢাকা, রবিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ৮ ১৪২৮

রাখির বিরুদ্ধে কেন তনুশ্রী মামলা করলেন জানেন?  

প্রকাশিত : ০৩:৩৭ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৭:৪৭ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০১৮ মঙ্গলবার

‘মি-টু’ আন্দোলনের জেরে এবার তনুশ্রী দত্ত মানহানি মামলা করলেন অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্তের বিরুদ্ধে। মানহানির খোরপোশ হিসেবে ১০ কোটি টাকা চেয়েছেন রাখির থেকে৷   

তনুশ্রীর আইনজীবী নিতিন সতপুতে জানিয়েছেন, “আমরা রাখি সাওয়ান্তের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেছি৷ আমার মক্কেলের চরিত্র নিয়ে বেশ খারাপ মন্তব্য করেছেন৷ এই কারণে তাঁকে আমার মক্কেলকে ১০ কোটি টাকা দিতে হবে৷ টাকা না দিলে শাস্তি হবে তাঁর৷”   

নানা-তনুশ্রীর বিতর্কে কেউ কেউ তনুশ্রীর পক্ষ নিয়ে কথা বলেছেন৷ অন্যদিকে নানা পাটেকারের হয়ে কথা না বললেও নিঃশব্দে তাঁকে সমর্থনও করেছেন অনেকে৷ এসব কন্ট্রোভার্সির মধ্যে নাম উঠে এসেছিল রাখি সাওয়ান্তেরও৷ ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির আইটেম সংয়ে তনুশ্রীকে রিপ্লেস করেছিলেন রাখি৷ ২০০৮ এ রিপ্লেস করার পর রাখি, তনুশ্রীর সম্বন্ধে নানা রকমের মন্তব্য করেছিলেন৷

‘তনুশ্রীর গায়ে কী হীরে-সোনা লাগানো আছে যে ওকে ছোঁয়া যাবে না? পুরোটাই পাব্লিসিটির জন্য করেছে ও৷ আইটেম নাম্বারে একটু ক্লোজ তো আসতেই হয়৷ ইমরান হাশমির সঙ্গে ইন্টিমেট দৃশ্য শ্যুট করার সময় তো তনুশ্রীর তো কোনও অসুবিধা হয়নি, তাহলে নানা পাটেকারের কী দোষ৷’

এছাডা়ও ১০ বছর পর তনুশ্রী আবারও সেই ঘটনার উল্লেখ করে বলেছিলেন, “আমার রিপ্লেসমেন্ট রাখি সাওয়ান্ত৷ সবথেকে বড়ো অপমান৷ অন্তত আরও একটু ক্লাসি কাউকে আনতে পারতে৷ আমার জায়গায় রাখিকে আনার কোনও দরকার ছিল? আর এর থেকেও বড়ো বিষয় হল, আমি পরে শুনেছিলাম, সেটে এসে আমার সম্বন্ধে অজস্র খারাপ কথা বলেছে ও৷ একজন নারী হয়ে এই ধরণের মন্তব্য কেউ করে কী করে৷ নারী হিসেবে রাখি যে কী সেটা সবাই জানে৷””

তনুশ্রীর এই স্টেটমেন্টের পর একটি সাংবাদিক বৈঠকে সমস্ত ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন তিনি৷ তনুশ্রী দত্ত মাদক সেবন করতেন, তাঁর সব অভিযোগ মিথ্যে, নানা পাটেকারের মতো মানুষ হয় না, তনুশ্রীর আসলে মাথার ঠিক নেই৷ একের পর এক বিভিন্ন কথা বলে গিয়েছেন রাখি৷ তাঁর কথায়, “হ্যাঁ আমি ক্লাসি নই৷ আমার কোনও স্ট্যান্ডার্ড নেই, কিন্তু তনুশ্রী কী? এতদিন ধরে চুপ ছিল কেন? ১০ বছর ধরে কি কোমায় ছিল যে মুখ খুলতে পারেনি৷ ইংরেজিতে দু-একটা কথা বলল আর সবাই ওটাকে সত্যি মেনে ওকে সমর্থন করছে৷ সেটে তো আমিও ছিলাম, ওখানে কেউ নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে কথা বলেনি৷”

এসি