ঢাকা, বুধবার   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬

বাবা দিবস আমার জন্য দারুণ এক অপরাধবোধের দিন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:১১ এএম, ১৭ জুন ২০১৯ সোমবার

বাবা হিসেবে আমি গেল প্রায় পাঁচ বছরে দুই একটা সাবজেক্ট বাদে সবগুলায় ফেইল মারসি! নিজের ত্যাড়ামির জন্য জন্মের পরপরই পোলারে ফেলায় দিসিলাম কঠিন অর্থসংকটে, বেচারাকে দেড় বছর বয়সে একবার রোযাও রাখতে হইসিলো! তখন আমি দেশের এক নম্বর চ্যানেল (ততকালীন) ছেড়ে দিয়ে বিপ্লব করিতেছিলাম। দেশের প্রথম খেলাধুলা বিষয়ক অনলাইন নিউজ পোর্টাল (sportstimes24) গড়ায় ব্যস্ত ছিলাম, উফ কি চেতনা!

একটা সাইকেলের আবদার মিটাইতে পাক্কা আট মাস তাকে ভুজুং ভাজং দিয়ে কাটাইসি! ২২৪ টাকা পকেটে আর মাথায় একরাশ অনিশ্চয়তা নিয়ে অসুস্থ পোলারে নিয়া হাসপাতালে হাজির হইসি! এমন আরো অনেক কেলেঙ্কারির ঘটনা আছে! তাই বাবা দিবস আমার জন্য দারুণ এক অপরাধবোধের দিন।

কিছু স্বান্তনাও অবশ্য আছে। এই সংগ্রামের মধ্যেও আমি আমার ছেলেকে প্রথম যেই শব্দটা শিখেয়েছি তা হলোঃ `না`। যারা আমার ছেলেকে চেনেন তারা জানেন ও বোল্ডলি না বলতে জানে। না কইতে হেডাম লাগে! যেইটা আমার নাই! অহন একটু আক্টু হইতাসে! এখন চেষ্টা চলছে ধর্ম-বর্ণের উর্ধ্বে ঊঠে মানুষকে মানুষ হিসেবে গণ্য করতে শেখানো। আশিভাগ পেরেছি, বাকিটাও হয়ে যাবে। আরেকটা প্রচ্ছন্ন আস্কারা আছে, সেটা আমি করেই ছাড়বো, ঋদ্ধের মাথায় গেঁথে দিব `অলওয়েজ লিসেন টু ইউর হার্ট`। সবকিছু গুল্লি মেরে শুধু হৃদয়েরটা শুনো, দেখবা তুমিই সেরা, তোমার সবকিছুই সেরা! এইটা আমার মা আমাকে ঢুকায় দিয়ে, গ্যাছে সো আমিও দিয়াম!

আমি তো পারলাম না, হয়ত পারবোও না আদর্শ বাবা হইতে দোয়া কইরেন আমার বাবাটার জন্য, সে যেনো পারে।

আরকে//