ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রাহায়ণ ২৭ ১৪২৬

ইয়ানমার কৃষি প্রযুক্তির বাংলাদেশে শুভ উদ্বোধন

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৫:৪৬ পিএম, ২০ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৭:২৮ পিএম, ২০ জুন ২০১৯ বৃহস্পতিবার

এসিআই মটরস্ জাপানের বিখ্যাত ইয়ানমার কোম্পানির সাথে ২০১৮ সালে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করে। উক্ত সমঝোতা চুক্তি অনুযায়ী উভয় প্রতিষ্ঠানই বাংলাদেশের কৃষি উন্নয়নে নতুন কলাকৌশল উদ্ভাবন ও উন্নয়নে এক সাথে কাজ করছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ১৯ জুন ২০১৯ ইং তারিখ হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল, ঢাকায় এসিআই মটরস্ ও ইয়ানমার এগ্রোটেক আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করলো।

কৃষিমন্ত্রী ডঃ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, এম.পি. ইয়ানমার এগ্রোটেক এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষনা করেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসিআই ও ইয়ানমার’কে তাদের এই উদ্যোগের জন্য ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, নতুন এই আধুনিক যন্ত্রপাতি এদেশের কৃষির উৎপাদন বৃদ্ধি ও কৃষকের আয় বৃদ্ধিতে অবদান রাখবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত হিরোইয়াসু ইযুমি ও ইয়ানমার অ্যাগ্রিবিজনেস এর প্রেসিডেন্ট হিরোআকি কিতাওকা বিশেষ অতিথি হিসাবে তাদের বক্তব্য প্রদান করেন।

এসিআই লিমিটেডের চেয়ারম্যান এম. আনিস উদ্ দৌলা, এসিআই লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডঃ আরিফ দৌলা, এসিআই মটরস্ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডঃ ফা হ আনসারী ও নির্বাহী পরিচালক সুব্রত রঞ্জন দাস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া ইয়ানমার এগ্রো ও এসিআই মটরস্ এর এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। ইতিমধ্যে বাংলাদেশে বিক্রি করা ইয়ানমার হারভেস্টার ও ট্রান্সপ্লান্টার এর ক্রেতাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশের জমি ও ফসল উপযোগী অত্যাধুনিক সেন্সর বিশিষ্ট “ইয়ানমার” কম্বাইন হারভেস্টার দ্বারা কাঁদা ও শুয়ে পড়া জমির ধান/গম কাটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দী করা যায় এবং প্রতি একরে জ্বালানী খরচ হয় মাত্র ৭-৮ লিটার ডিজেল। এতে খরচ বাঁচে ৬১% ও শ্রম বাঁচে ৭০% ।

এছাড়াও “ইয়ানমার” রাইস ট্রান্সপ্লান্টার দিয়ে ১ ঘণ্টায় ৫০ শতাংশ জমিতে ধানের চারা রোপণ করা যায় এবং এতে জ্বালানী খরচ হয় ৫ লিটার ডিজেল। এতে খরচ বাঁচে ৩৭% ও শ্রম বাঁচে ৮০% ।


টিআর/