ঢাকা, মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ২৮ ১৪২৬

সীতাকুণ্ডের ঐতিহ্যবাহী সিসিসি উচ্চবিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন সভা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৪:১৩ পিএম, ২৩ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার | আপডেট: ০৭:৫১ পিএম, ২৩ জুলাই ২০১৯ মঙ্গলবার

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সিসিসি উচ্চ বিদ্যালয়ের (সাবেক বিআইডিসি উচ্চ বিদ্যালয়) সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির ৪র্থ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (২২ জুলাই) সন্ধ্যা ৭টায় চট্টগ্রামের দেওয়ানহাটস্থ সীতাকুণ্ড সমিতি-চট্টগ্রাম কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের ১ম ব্যাচের ছাত্র কৃষিবিদ মো.আলতাফ হোসেনের সভাপতিত্বে ও প্রচার সচিব মোহাম্মদ শোয়ায়েব এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রায় পঞ্চাশ জন প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত ছিলেন। বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন পরিষদের আহবায়ক লায়ন মো. গিয়াস উদ্দিনের স্বাগত বক্তব্যের পর প্রধান অতিথি বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি ও বাড়বকুণ্ড ইউ.পি চেয়ারম্যান সাদাকাত উল্যাহ মিয়াজী, প্রধান আলোচক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের প্রফেসর ড.মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক সঞ্জীব কুমার দে,ফেরদৌসী সুলতানা শীলা বক্তব্য রাখেন।

আরও উপস্থিত ছিলেন, জিল্লুর রহমান, ফেরদৌস আহমেদ মুন্না, বরু নেওয়ার, শওকত হোসেন,সাইফুদ্দিন মাহমুদ রুমন, জিয়াউল হক সুমন, আবু কাশেম, জহিরুল ইসলাম, উত্তম কুমার বড়ুয়া, রিন্টু সরকার, শেখ মুসলিম উদ্দিন মিয়াজী, সামছুদ্দিন মাহমুদ, রশিদুজ্জামান চৌধুরি, আনোয়ারা বেগম, জাহিদ হাসান ইমন, হিরণ দাশ, সাইফুল আলম ভূঞা বাবু, মো.ইসমাইল, আবল কাশেম মিঠু, রোকেয়া বেগম, হাসিনা বেগম, আবু বক্কর সিদ্দিক, নুরুল করিম খোকন, এবিএম সেলিম উল্যাহ প্রমুখ ।

সভায় সিসিসি উচ্চবিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটি চট্টগ্রাম সিটি কমিটি গঠন করা হয়। প্রধান সমন্বয়কারী প্রফেসর ড.মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম-আহবায়ক, কৃষিবিদ মো.আলতাফ হোসেন-যুগ্ম আহবায়ক, ফেরদৌসী সুলতানা শীলা-সদস্য সচিব, আবল কাশেম মিঠু-যুগ্ম সদস্য সচিব, সামছুদ্দিন মাহমুদ, জিয়াউল হক সুমন, শেখ মুসলিম উদ্দীন মিয়াজী, রিন্টু সরকার, জিল্লুর রহমান, রোকেয়া বেগম, সাইফুল আলম ভূঞা বাবু, রফিকুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, সিসিসি উচ্চ বিদ্যালয়টি ১৯৭০ সালে বিসিআইসি কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হয়ে প্রাথমিকভাবে পাঠদান শুরু করে। পরে ১৯৭২ সালে নিম্ন মাধ্যমিক এবং ১৯৭৫ সালে মাধ্যমিক পর্যায়ে উন্নীত হয়। ১৯৭০ সাল থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত এটি বিসিআইসি কর্তৃক পরিচালিত হয়। ২০০৩ সালে সিসিসি (চিটাগাং কেমিক্যাল কমপ্লেক্স) কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর ২০০৪ সালের ১লা মে বিদ্যালয়টি এমপিওভুক্ত হয়।

বিদ্যালয়টি ৩.৮৭ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত। বিদ্যালয়ের মূল ভবনটি একটি দক্ষিণমুখী দ্বিতল ভবন। এছাড়া একটি টিনের আধাপাকা ঘর আছে। একটি প্রধান শিক্ষক কার্যালয়, একটি শিক্ষক মিলনায়তন, একটি অফিস সহকারীর কক্ষ, একটি ছাত্রী মিলনায়তন সহ সর্বমোট ২১টি কক্ষ রয়েছে। বিদ্যালয়ের সামনে ছাত্র-ছাত্রীদের খেলাধুলার জন্য বিশাল খেলার মাঠ রয়েছে।

বর্তমানে সাত শতাধিক শিক্ষার্থী এ প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়ন করছে। প্রত্যেক বছর এসএসসি ও জেএসসি পরীক্ষায় ভাল ফলাফলের পাশাপাশি খেলাধুলায় ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে এ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কৃতিত্বের সাথে সুনাম অর্জন করে চলেছে। একসময় এ স্কুলের নাম ছিল বিআইডিসি উচ্চ বিদ্যালয়।

 টিআর/