ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯,   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬

ছোট্ট শিশুর মুখ থেকে বের হল ৫২৬ দাঁত!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৩৩ পিএম, ৩১ জুলাই ২০১৯ বুধবার

সাত বছর বয়সী এক শিশুর মুখ থেকে বের করা হলো একে এক ৫২৬টি দাঁত! সম্প্রতি ভারতের চেন্নাইয়ের সবিতা ডেন্টাল কলেজে পাওয়া যায় এই বিরল ঘটনার খবর।

আসলে মহাবিশ্বের বিশালতার তুলনায় বেশ ক্ষুদ্র আমাদের এ পৃথিবী। আর এই ক্ষুদ্র পৃথিবীতে কত বিচিত্র ঘটনাই না ঘটে। কয়েকদিন আগেই পাওয়া যায় মায়ের পাকস্থলী, অন্ত্র, খাদ্যনালী ও লিভারের ফাঁকে এক শিশুর বেড়ে ওঠার খবর। সেই খবরের রেশ না কাটতেই পাওয়া গেল এমনই বিরল ঘটনার খবর।  

ভারতীয় স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, ছোট ছেলেটির যখন মাত্র তিন বছর বয়স, তখন থেকেই তার ডানদিকের মাড়ি থেকে পুঁজ গড়িয়ে পড়তো। প্রথমে ছেলেটির মা-বাবা তেমন গুরুত্ব দেননি বিষয়টাতে। কিন্তু ধীরে ধীরে সমস্যা বেড়ে গেলে তাকে সবিতা ডেন্টাল কলেজে নিয়ে যান মা-বাবা।

চেন্নাইয়ের ওই ডেন্টাল কলেজটির চিকিৎসকরা বলেন, এটি ‘কমপাউন্ড কম্পোজিট অনডন্টোম’ এর ঘটনা। ছোটবেলায় যখন সমস্যা শুরু হয়েছিল, তখনই তার মা-বাবা তার চিকিৎসা শুরু করলে এতটা সমস্যা হতো না।

ডেন্টাল কলেজের ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি ডিপার্টমেন্টের অধ্যাপক পি. সেন্থিলনাথান বলেন, প্রথমে শিশুটির ডান চোয়ালের একটি এক্স-রে করা হয়। পরে সিটি-স্ক্যানও করা হয়। তাতেই ধরা পড়ে ভেতরে বেশ কয়েকটা দাঁত রয়েছে। কিন্তু ঠিক কতগুলো রয়েছে এক্স-রে বা স্ক্যানে তা স্পষ্ট হয়নি। সে সময়ে ছেলেটির বাবা-মা'র সিদ্ধান্ত দেন অপারেশন করার ব্যাপারে।

অপারেশনে ছেলেটির ডানদিকের মাড়ি কাটা হয়, সেখানে প্রায় দু’শ গ্রামের একটি দাঁতের থলি পাওয়া যায়। তার মধ্যে ছোট ছোট মুক্তার মতো আকারের ৫২৬টি দাঁত পাওয়া যায়! বেশ কয়েকটা খুবই ছোট হলেও সেগুলো কিন্তু পুরোদস্তুর দাঁতই। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে চলে এই উদ্ধারকার্য।

সবিতা ডেন্টাল কলেজের ওরাল অ্যান্ড ম্যাক্সিলোফেসিয়াল প্যাথোলজির হেড প্রতিভা রামানি বলেন, শিশুটি এখন সুস্থ আছে। অপারেশনের পর তাকে তিন দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। 

এদিকে ডেন্টাল কলেজের চিকিৎসকরা দাবি করছেন, এ ধরনের সার্জারি এই প্রথম হলো বিশ্বে। এভাবে এর আগে কখনও কোনও মানুষের মুখ থেকে এতগুলো দাঁত অপারেশন করে কোনও চিকিৎসক বের করেননি। এটা একটা রেকর্ডই বলা যায়।

সূত্র: দ্য ওয়াল।

এনএস/এসি