ঢাকা, শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০,   মাঘ ৪ ১৪২৬

সাদা পতাকা হাতে লাশ নিয়ে গেল পাকিস্তান

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:১০ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শনিবার | আপডেট: ০৬:১৮ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ শনিবার

নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর গোলাগুলিতে দুই পাক সেনা নিহত হয়। কিন্তু ভারত সীমান্তে গিয়ে লাশ নিয়ে আসা তাদের পক্ষে সম্ভব হচ্ছিল না। তাই ঘটনার প্রায় দু'দিন পরে পাকিস্তানি সেনারা একটি পাহাড়ের পেছন থেকে বেরিয়ে এসে তাঁদের সহকর্মীদের লাশ উদ্ধার করার জন্য সাদা পতাকা দেখায়।

সাদা পতাকাকে যুদ্ধ বিরতি হিসেবে ধরা হয়। পরে ভারতীয় সেনা জওয়ানরা গুলি চালানো থেকে বিরত থাকার ইঙ্গিত দিলে তাঁরা দুটো মৃতদেহ সংগ্রহ করে নিয়ে যায়। পাকিস্তান-অধিকৃত কাশ্মীরের (পিওকে) হাজিপুর সেক্টরের একটি পাহাড়ের পাদদেশের ওপারে চলে যায় পাক সেনা।

জানা যায়, গত ১০ সেপ্টেম্বর ভারত-পাকিস্তান দু’পক্ষের গুলি বিনিময় হয়। সেই সময় সিপাহী গোলাম রসুল নামে এক পাকিস্তানি সৈন্যকে ভারতীয় সেনা গুলি করে হত্যা করে। এরপরেই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তাদের সেনার লাশ উদ্ধারের চেষ্টায় ঘন ঘন গুলি চালানো শুরু করে। কিন্তু তাতে ফল হয় উল্টো। ভারতীয় সেনার গুলিতে প্রাণ হারায় সেদেশের আরও এক সেনা।

টানা দু'দিন গুলি চালানোর পর ক্ষান্ত দেয় পাকিস্তানি সেনাবাহিনী। পরে লাশ উদ্ধার করতে না পেরে সাদা পতাকা হাতে নিয়ে নিজেদের সহকর্মীর লাশ নিতে আসে তারা।

শুক্রবার তিন-চারজন পাকিস্তানি সেনাকে সাদা পতাকা হাতে নিয়ে ওই লাশের দিকে আসতে দেখা যায়। ভারতীয় জওয়ানদের চালানো গুলিতে নিহত দুই পাক সেনা মূলত পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত পাঞ্জাবের বাসিন্দা।

 

এসি