ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৪ ১৪২৬

ভারতের ইনিংস ঘোষণা, কঠিন সমীকরণে বাংলাদেশ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৩২ এএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৯ শনিবার

প্রথম দিনের ব্যাটিং ব্যর্থতা আর দ্বিতীয় দিনে ছন্দহীন বোলিংয়ে রানের পাহাড় গড়েছে ভারত। মায়াঙ্কা আগারওয়ালের অনবদ্য ২৪৩ রানের ওপর ভর করে ৬ উইকেটে ৪৯৩ রান তুলেছে কোহলিরা। যেখানে ইতিমধ্যে ৩৪৩ রানের লিড নিয়েছে তারা।

ফলে, প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের অবস্থা মাথায় রেখে তৃতীয় দিনে টাইগারদের ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছে ভারত। বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় শুরু হয়েছে ম্যাচটি।

ইন্দোর টেস্টে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসে মুমিনুল-মুশফিকরা অলআউট হয় মাত্র ১৫০ রানে। সেখানে প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে ভারতের ওপেনার মায়াঙ্ক আগরওয়াল একাই করেছেন ২৪৩ রান। দ্বিতীয় দিন শেষে ১১৪ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৪৯৩ রান তুলে ভারত।

৩৪৩ রানে এগিয়ে থেকে আজও ব্যাট করার কথা থাকলেও, মুশফিকদের ব্যাটিং দুর্বলা মাথায় রেখে শনিবার ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছে তাদের।

দ্বিতীয় দিনের শুরুতে অবশ্য দুর্দান্ত বোলিংয়ের আভাস দিয়েছিল বাংলাদেশ। ১ উইকেটে ৮৬ রানে প্রথম দিন শেষ করা ভারত প্রথম ইনিংসের দ্বিতীয় দিন শুরু করে দলীয় ১০৫ রানে হারায় চেতশ্বর পুজারাকে (৫৪)। আবু জায়েদের বলে বদলি ফিল্ডার সাঈফ হাসানের তালুবন্দী হন তিনি। এর পরপরই অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে ‘ডাক’ উপহার দেন রাহী

অষ্টম টেস্ট খেলতে নেমে ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া ওপেনার আগরওয়াল ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকান। সেঞ্চুরির পথে ছুটতে থাকা আজিঙ্কা রাহানেকে ফিরিয়েছেন আবু জায়েদ রাহি।

রাহানে সাজঘরে ফেরেন ৮৬ রান করে। তার ১৭২ বলের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৯টি বাউন্ডারিতে। রাহি নিজের চতুর্থ শিকার বানান রাহানেকে। দলীয় ৩০৯ রানের মাথায় ভারত চতুর্থ উইকেট হারায়। রাহানে-মায়াঙ্ক ১৯০ রানের জুটি গড়েন।

আগরওয়াল ৩৩০ বলে ২৪৩ রানের ইনিংসটি সাজান ২৮ চার ও ৮ ছক্কায়। ভারতের মাটিতে চার টেস্ট খেলতে নেমে তৃতীয় সেঞ্চুরি পান তিনি। মিরাজের বলে রাহির তালুবন্দি হন আগরওয়াল।

১২ রান করা রিদ্ধিমান সাহাকে বোল্ড করেন এবাদত হোসেন। দিন শেষে রবীন্দ্র জাদেজা ৭৬ বলে ৬টি চার আর দুটি ছক্কায় ৬০ রানে আর উমেস যাদব ১০ বলে একটি চার আর তিনটি ছক্কায় ২৫ রানে অপরাজিত থাকেন।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৮ রান। সাদমান ইসলাম ৪ রান নিয়ে একপ্রান্তে, অপরপ্রান্তেও একই রান নিয়ে আছেন ইমরুল কায়েস।

এআই/