ঢাকা, সোমবার   ৩০ মার্চ ২০২০,   চৈত্র ১৬ ১৪২৬

উইন্ডিজের বিপক্ষে আফগানদের বড় জয়

নাজমুশ শাহাদাৎ

প্রকাশিত : ১১:২১ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৯ শনিবার | আপডেট: ১১:৩০ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৯ শনিবার

পাঁচ উইকেট নেয়ার পর করিম জানাতের উদযাপন

পাঁচ উইকেট নেয়ার পর করিম জানাতের উদযাপন

ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হবার পর টি-টোয়েন্টি সিরিজে উইন্ডিজের মুখোমুখি আফগানিস্তান। শনিবার (১৬ নভেম্বর) রাতে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে উইন্ডিজকে সহজেই হারিয়েছে রশিদ খানের দল। করিম জানাতের রেকর্ড গড়া বোলিংয়ে ৪১ রানের জয়ে সিরিজে ১-১ সমতায় ফেরে আফগানিস্তান।  

এদিন ভারতের লক্ষ্ণৌতে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শুরু হওয়া দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে ব্যাট করতে নামে আফগানরা। তবে ক্যারিবিয় বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের বিপরীতে নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রানের মাঝারি স্কোর গড়ে আফগানিস্তান। 

জবাব দিতে নেমে আফাগান পেস অ্যাটাক বিশেষ করে, করিম জানাতের তোপের মুখে পড়ে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০৬ রান তুলতে সক্ষম হয় সফরকারীরা। ফলে ৪১ রানের বড় জয় পায় রশিদ বাহিনী। 

দলের এ জয়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন তরুণ পেসার করিম জানাত। ডানহাতি এই পেসার ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ১১ রানের বিনিময়ে একে একে তুলে নেন পাঁচটি উইকেট। হন ম্যাচ সেরা। 

এছাড়া নিয়ন্ত্রিত বোলিং করেন রশিদ খান, মুজিবুর রহমান, নাভিন উল হকসহ অন্যরাও। যাতে এদিন ক্রিজে এসে দাঁড়াতেই পারেননি কোন ক্যারিবিয় ব্যাটসম্যান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৪ রান আসে দীনেশ রামদিনের ব্যাট থেকে। উইকেট কীপার এই ব্যাটসম্যানের ২৭ বলের ইনিংসে চার ছিল মাত্র দুটি। যা আফগানদের বিপক্ষে জয়ের জন্য যথেষ্ট ছিলনা। 

অন্যদের মধ্যে সর্বোচ্চ ১৪ রান আসে ওপেনার এভিন লুইসের ব্যাট থেকে। আগের ম্যাচে ঝড় তোলা (৪১ বলে খেলে ৬৮) মারকুটে ওপেনার আজ খেলেন ২২ বল, যাতে চারের মার ছিল মাত্র দুটি। যে কারণে ১৪৮ রানের লক্ষ্যে ছুটতে গিয়ে ১০৬ রানেই থেমে যায় উইন্ডিজ। 

এর আগে হযরতুল্লাহ জাজাই (২৬), করিম জানাত (২৬), নাজিবুল্লাহ জাদরান (২০) ও গুলবাদিন নায়িবের (২৪) মাঝারি মানের সমন্বিত ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৭ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। 

ক্যারিবিয় বোলারদের মধ্যে এদিনও সফল বোলার ছিলেন কেসরিক উইলিয়ামস। সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট নেন আজও। অন্যদের মধ্যে হোল্ডার ও কিমো পল পান ২টি করে উইকেট। 

এদিকে, ১-১ সমতা হওয়ায় দু'দলের মধ্যকার শেষ ম্যাচটি হয়ে দাঁড়িয়েছে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে। আগামীকাল রোববার রাত সাড়ে ৭টায় লক্ষ্ণৌতে শেষ ম্যাচে মুখোমুখি হবে দল দুটি।  

এনএস/