ঢাকা, সোমবার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ১২ ১৪২৮

পাকিস্তানে ৩০০ রুপি ছাড়ালো টমেটোর দাম

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৬:৩৩ পিএম, ১৯ নভেম্বর ২০১৯ মঙ্গলবার

পাকিস্তানে টমেটোর দামে আগুন

পাকিস্তানে টমেটোর দামে আগুন

মোদী সরকার জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলুপ্তির পর ক্ষোভে ফেটে পড়ে পাকিস্তান। যার প্রেক্ষিতে ভারতের সঙ্গে ব্যাবসা বন্ধও করে দেয়। ইমরান খান সরকারের এহেন সিদ্ধান্তই এখন কাঁদিয়ে ছাড়ছে পাকিস্তনের জনগণকে। ভারত থেকে আমদানি করা পণ্য-সামগ্রির ওপর পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা জারি করার পর পাকিস্তানে টমেটোর দামে আগুন লেগে যায়। যার ফলে দেশটিতে টমেটো এখন ৩২০ রুপি কেজি।

টমেটোর দাম এতো বৃদ্ধি দেখে এটা পরিস্কার যে, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সরকার ভারতের সঙ্গে ব্যবসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত সোজাসুজি পাকিস্তানের জনতার মাথায় পড়েছে বাজ হিসেবে। 

ডনের দেয়া খবর অনুযায়ী, গত শনিবার করাচির বাজারে টমেটো বিক্রি হয় ৩০০ থেকে ৩২০ রুপিতে। যা আগের সপ্তাহে ছিল ২৪০ থেকে ২৫০ রুপিতে। 

যদিও দেশটির সরকার এখন পার্শ্ববর্তী দেশ ইরান থেকেই টমেটো আমদানি করছে। ইতোমধ্যে ইমরানের সরকার ইরান থেকে ৪ হাজার ৫০০ টন টমেটো আমদানির অনুমোদন দিয়েছে। 

অন্যদিকে, দেশটির বাজারে খুচরা বিক্রেতারা পেঁয়াজের দাম বাড়িয়েছে কেজি প্রতি ১০ থেকে ১৫ রুপি। বর্তমানে সেখানে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১০০ রুপি কেজি। তবে পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৭০ রুপিতে।

প্রসঙ্গত, ভারতের তরফ থেকে রোজ পাকিস্তানে শাক-সবজি আর টমেটো পাঠানো হয়। আর এই কারণে পাকিস্তানে সবজি আর টমেটোর দাম নিয়ন্ত্রণে থাকে। কিন্তু পাকিস্তান সরকারের এই সিদ্ধান্তের পর এবার ভারত থেকে বন্ধ হয়ে গেছে টমেটোর সাপ্লাই। আর সে কারণে পাকিস্তানে টমেটোর দাম আকাশ ছোঁয়া।

জম্মু কাশ্মীর নিয়ে ভারতের তরফ থেকে এই সিদ্ধান্তের পর পাকিস্তান এমন হতাশ হয়েছে যে, ভারতকে তারা আর্থিক দিক থেকে আঘাত দেয়ার জন্য একের পর এক সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। আর সেই সিদ্ধান্তে পাকিস্তান নিজেই বরবাদ হয়ে যাচ্ছে। 

এর আগে, ইমরান খানের সরকার প্রথমে সমঝোতা এক্সপ্রেস বন্ধ করে দেয়। এরপর দিল্লী থেকে লাহোর বাস সেবাও বন্ধ করে দেয়া হয়।

এনএস/