ঢাকা, রবিবার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৭

হ্যালো লিডারে এবারের অতিথি নজরুল ইসলাম বাবু

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৪:১৪ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২০ শনিবার | আপডেট: ০৪:৩৭ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২০ শনিবার

হ্যালো লিডার’র শুটিং- একুশে টেলিভিশন

হ্যালো লিডার’র শুটিং- একুশে টেলিভিশন

সাধারণ মানুষ অনেক আশা নিয়ে ভোট দেন। ব্যালটে সিল দেয়ার মধ্য দিয়ে স্বপ্ন দেখেন পূর্ণাঙ্গ নাগরিক সেবা ভোগ করবেন। কিন্তু মানুষের সে আশা কি পূরণ হয়? অনেকাংশেই হয়তো হয় না। ক্ষমতার রাজনীতিতে যখন জবাবদিহিতা উধাও হতে বসেছে তখন একুশে টেলিভিশনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ ‘হ্যালো লিডার’। নেতাদের ভুলে যাওয়া প্রতিশ্রুতিগুলো মনে করিয়ে দিয়ে তা বাস্তবায়নই ‘হ্যালো লিডার’র উদ্দেশ্য।
 

আগামীকাল রোববার রাত ১০টায় হ্যালো লিডারের ১৯ তম পর্বে একুশে টেলিভিশনের জনপ্রিয় সাংবাদিক ড. অখিল পোদ্দারের মুখোমুখি হবেন সংসদ সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু। যিনি তুখোড় ছাত্রনেতা হিসেবে প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন। পরবর্তীতে নারায়ণগঞ্জ-আড়াইহাজার আসন থেকে একাধিকবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কতোটুকু কাজ করেছেন তার চুলচেরা বিশ্লেষণ রয়েছে একুশে টেলিভিশনের হ্যালো লিডার অনুষ্ঠানে। 

হ্যালো লিডার’র সঞ্চালক ড. অখিল পোদ্দার ও নজরুল ইসলাম বাবু- একুশে টেলিভিশন

অনুষ্ঠান প্রযোজক মানিক সিকদার বলেন, ‘হ্যালো লিডার একুশে টিভির ভিন্নমাত্রার জবাবদিহিতামূলক অনুষ্ঠান। যার উদ্দেশ্য জনক্ষমতায়ন এবং উন্নয়নের গতি বৃদ্ধি করা।’
 
একুশে টেলিভিশনের হেড অফ ইনপুট ড. অখিল পোদ্দারের সঞ্চালনায় এবারের পর্বে প্রাসঙ্গিক বিষয় মেঘনাপাড়ের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর নানান চাহিদা। আছে না পাওয়ার বেদনার চিত্র। এর  আগে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, গাজীপুরের মেয়র অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম, কুষ্টিয়ার খোকসা-কুমারখালী আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎক সিরাজগঞ্জের সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্না, কেরাণীগঞ্জের উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ, সিরাজগঞ্জের জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, মৌলভীবাজারের সংসদ সদস্য উপাধ্যক্ষ ড. আব্দুস শহিদ, ভোলার বোরহানউদ্দিন-দৌলতখানের সংসদ সদস্য আলী আযম মুকুল, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামসহ অন্যরা অনুষ্ঠানে লিডারের আসনে ছিলেন। 

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ- একুশে টেলিভিশন

অনুষ্ঠানটি রোববার রাত ২টায় ও পরদিন সোমবার সকাল ৭টায় পুণ:প্রচার হবে বলে জানান ড. অখিল পোদ্দার। তিনি বলেন, ‘এটি একটি জনক্ষমতায়নবিষয়ক অনুষ্ঠান। দুর্নীতি রোধ করে জনপ্রতিনিধিদের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নে বাধ্য করাই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য, যা সংশ্লিষ্ট নেতার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিও ছিল। বিশেষকরে বিভিন্ন ভাতার কার্ডের নামে লুটপাট, ঠিকাদারিতে পুকুরচুরিসহ নানামূখি অনিয়ম বন্ধ করতেই জবাবদিহিমূলক এ অনুষ্ঠান। 

উল্লেখ্য, গণমানুষের দুঃখ-কষ্ট ও সেবাবঞ্চনা নিয়ে এক যুগ ধরে ‘জনদুর্ভোগ’ শিরোনামে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রচার করে আসছেন অখিল পোদ্দার। হ্যালো লিডারের গবেষক মোস্তাফিজুর রহমান অপু জানান, একুশে টেলিভিশনের এ অনুষ্ঠানটি সাধারণ মানুষের কথা বলার প্ল্যাটফরম। সুশাসন প্রতিষ্ঠায় অনুষ্ঠানটি সহায়ক হবে আশা করছি। উন্নয়ন ও অপরাধদমনে ‘হ্যালো লিডার’ ইতোমধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে-এমন অভিমত অনুষ্ঠানের সহকারি প্রযোজক রাশেদুল হাসানের। 

এমএস/