ঢাকা, বুধবার   ২১ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৮ ১৪২৮

করোনা নিয়ে চীনা প্রেসিডেন্টকে মোদীর চিঠি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪১ পিএম, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ রবিবার

করোনা ভাইরাসে চীনে ইতিমধ্যেই ৮০০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৪০ হাজার মানুষ। রবিবার চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে চিঠি লিখে সহমর্মিতা জানালেন ভারতের প্রধামন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

চিঠিতে, মৃতদের প্রতি সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি এই মারণ ভাইরাসের মোকাবিলায় সাহায্যেরও আশ্বাস দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এছাড়াও চীনের উহান শহরে আটকে পড়া ৬০০ জন ভারতীয়, যাদের মধ্যে বেশিরভাগই ছাত্র, তাদের ফেরৎ আনতে পারায় চীনকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

এয়ার ইন্ডিয়ার জাম্বো জেট বিমানে তাদের ফিরিয়ে আনা হয়। বুধবার, সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে চীনের রাষ্ট্রদূত সান উইংডং বলেন, স্বাস্থ্য ও চীনে ভারতীয়দের সুরক্ষার স্বার্থে ভারতের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত চীন।

চীন থেকে নিজেদের দেশের নাগরিকদের সরিয়ে আনার কাজ শুরু করেছে ভারত। তবে আসা যাওয়া নিয়ে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে।

চীনের উহান থেকে আনা ভারতীয়দের বিশেষ সুবিধাযুক্ত আলাদা জায়গায় রাখা হয়েছে, দিল্লির মানেসারে এই ধরণের একটি জায়গা তৈরি করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

দিল্লিতে আইটিবিপির তৈরি আরও একটি জায়গায় আলাদাভাবে রাখা ব্যক্তিদের সংক্রমণমুক্ত বলে দেখা গিয়েছে, এমনটাই জানিয়েছে সংবাদসংস্থা এএনআই। তারমধ্যে রয়েছেন মলদ্বীপের ৭ জন এবং একজন বাংলাদেশের নাগরিক, যিনি দ্বিতীয়বারের এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে ফেরেন।

ভারতে তিনটি করোনা ভাইরাসের নিশ্চিত খবর রয়েছে, তিনজনেই কেরলের এবং তারা উহান থেকে ফিরেছেন। তাদের রাজ্যের পৃথক জায়গায় আলাদাভাবে রাখা হয়েছে এবং তাদের অবস্থা স্থিতিশীল বলে খবর।

গত সপ্তাহে চীনা নাগরিক এবং সেখানে বসবাসকারী বিদেশিদের জন্য অনলাইন ভিসা প্রদানের সুবিধা সাময়িক স্থগিত করে ভারত।

চীনের হুবেই প্রদেশের একটি সি ফুডের মার্কেট থেকে এই মারণ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে মনে করা হচ্ছে, গতমাসে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়াকে আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে “বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা”।

এসি