ঢাকা, বুধবার   ২৭ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭

‘মূ’ ড্রামা সিরিজের ২য় পর্বের সার সংক্ষেপ 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:৩৮ পিএম, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ বুধবার

মূ’র দ্বিতীয় পর্বের একটি দৃশ্য- একুশে টেলিভিশন

মূ’র দ্বিতীয় পর্বের একটি দৃশ্য- একুশে টেলিভিশন

একুশে টেলিভিশনে প্রচারিত হচ্ছে বাংলায় ডাবিংকৃত চীনা মেগা ড্রামা সিরিজ ‘মূ’। ১০০ পর্বের এই সিরিজে চীনা মিং সাম্রাজ্যের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব, ষড়যন্ত্র, ঘৃণা ও ভালোবাসার ঘটনা প্রবাহ তুলে ধরা হয়েছে। ১৫ ফেব্রুয়ারী থেকে ড্রামা সিরিজটি একুশে টেলিভিশন প্রচার শুরু করেছে। 

চীনের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে তৈরি করা ড্রামা সিরিজটি পরিচালনা করেছেন রিংগো ইয়ু। ওয়াং জুয়ানের চিত্রনাট্যের এই সিরিজ ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। ২০১২ সালে সিরিজিটি প্রথম চীনের সরকারি টেলিভিশন’তে (সিসিটিভি) ‘টার্বুলেন্স অব দ্যা মু ক্লেন’ নামে প্রচারিত হয়। 

২য় পর্বে যা আছে: 

বড় স্ত্রী নুওলাম আলিসিওর নামে অভিযোগ দায়ের করলে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রানী ঠিকই বুঝতে পারেন নুওলানের চক্রান্ত। তিনি মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন। রাতের এক প্রহরের সংকেতের সময় তার দণ্ড কার্যকরের আদেশ দেন। 

মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের আগে নুওলাম গোপনে আলিসিওকে বলেন, সে যেন ছোট পুত্র মু খুংকে খবর দেয়, তার বিশ্বাস এক মাত্র সেই তাকে বাঁচাতে পারে। কথা মতো আলিসিও সকলের অগোচরে দিপালী অনুষ্ঠানে রওনা দেয়। 

আলিসিও মু খুংকে খবর দিয়ে রাজ প্রসাদে পাঠিয়ে দেন তার বড় আম্মার মৃত্যুদণ্ড ঠেকানোর জন্য। কিন্তু নিজে আটকে যান মু চিং এর কাছে। তিনি আলিসিওকে রেখে দেন তার সঙ্গে সময় দেওয়ার জন্য। এদিকে আততায়ীরা সুযোগ খুঁজতে থাকে কিভাবে হত্যা করা যায় মু চিংকে। এরই মধ্যে আততায়ীদের নেতা আলিসিওর মামা আলিসিওকে দেখে চমকে যান। তিনি বুঝতে পারেন না কিভাবে সে এখানে আসলো। 

 

বাংলায় ডাবিং করা এমনই থ্রিলারধর্মী চীনা ড্রামা সিরিজটি দেখতে চোখ রাখুন একুশে টিভির পর্দায়। প্রতিদিন রাত সাড়ে ১০টায় প্রচারিত হয় এই সিরিয়ালটি। পরের দিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় পুন:প্রচার হয় আগের দিনের পর্ব। 

উল্লেখ্য, মিং সাম্রাজ্য ১৩৬৮ সাল থেকে ১৬৪৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৩০০ বছর চীন শাসন করে।

দেশের জনপ্রিয় এই টেলিভিশন স্টেশনে খবর ছাড়াও প্রচারিত হচ্ছে খবরের বিশ্লেষণধর্মী টকশো অনুষ্ঠান ‘একুশের রাত’। এছাড়াও ‘খোলা জানালা’ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বিষয়ের উপর বিশেষজ্ঞ মতামতসহ দেখতে পাবেন নানা বিশ্লেষণ। 

এ ছাড়াও একুশে টেলিভিশনে রয়েছে বিভিন্ন বিনোদনধর্মী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন। রান্না বিষয়ক অনুষ্ঠান- সেরা নারীর সেরা রান্না, মজার টিফিন চাই; কমেডি শো- মামাভাগ্নের বৈঠকখানা; লাইফ স্টাইল বিষয়ক অনুষ্ঠান- বিয়ের রাজকন্যা, রুপ লাবণ্য, প্রবাস জীবন; গানের অনুষ্ঠান- ফোক মোমেন্টেস, মিউজিক এক্সপ্রেস, গানের ওপারে; স্বাস্থ্য বিষয়ক অনুষ্ঠান- হেলদি লাইফ, দ্য ডক্টরস ইতিমধ্যেই দর্শকদের মন জয় করেছে। 

এএ/এমএস