ঢাকা, বুধবার   ১৫ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ৩০ ১৪২৭

বিয়ের সাজে পদ্মায় ভেসে উঠল সেই নববধূর লাশ

রাজশাহী প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১১:২৮ এএম, ৯ মার্চ ২০২০ সোমবার | আপডেট: ০৭:০৪ পিএম, ৯ মার্চ ২০২০ সোমবার

যখন পদ্মা থেকে উদ্ধার করা হলো নববধূ সুইটি খাতুন পুর্ণিকে, তখনও সবই ঠিকঠাক। হাতে মেহেদি, গায়ে গহনা, পরনে লাল বেনারসি। শুধু দেহটায় নিথর। 

আজ সোমবার সকাল ৭টার দিকে পবা উপজেলার শ্যামপুর ঘাট থেকে নববধূর পুর্ণির লাশ উদ্ধার করে জেলেরা। রাজশাহীর পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় এ নিয়ে উদ্ধার হলো নিখোঁজ ৯ জনের লাশ। 

অতিরিক্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক এবং উদ্ধার অভিযানের সমন্বয়ক আবু আসলাম বলেন, ‘সাঁতার জানা সুইটি ভারী কাপড়-চোপড় পরিধান করে থাকায় তলিয়ে যায় পানিতে। ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে শ্যামপুর ঘাটে সুইটির লাশ ভেসে উঠেছে। লাশটি প্রথমে জেলেরা উদ্ধার করে দমকল কর্মীদের খবর দেয়। পরে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে এসে পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। একইসঙ্গে উদ্ধার অভিযানও সমাপ্ত করা হয়।’

গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বউভাতের আনুষ্ঠানিকতা শেষে পদ্মার চরের খানপুর এলাকা থেকে দুটি নৌকায় করে পবা উপজেলার ডাইঙ্গেরহাটের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় যাত্রীরা। চরখিদিরপুর ও শ্রীরামপুর এলাকার মাঝ পদ্মায় নৌকা দুটি ডুবে যায়। 

এরপর যৌথভাবে উদ্ধার অভিযান চালায় দমকল, বিজিবি, নৌ-পুলিশ ও বিআইডাব্লিউটি’র ডুবুরি দল। উদ্ধার করা হয় ৯ জনের লাশ। সর্বশেষ উদ্ধার হয় নববধূ সুইটি খাতুন পুর্ণির লাশ। এরপর উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত ঘোষণা করেন কর্তৃপক্ষ।

এ ঘটনায় নিহতরা হলেন, কনে সুইটি খাতুন পুর্ণি, তার বড় বোন শাহীনুর বেগমের স্বামী রতন আলী (৩০), তাদের মেয়ে মরিয়ম খাতুন (৫), চাচা শামীম হোসেন (৩৫), চাচি মিনা খাতুন (৩০), চাচাতো বোন রশ্নি (৭), খালাতো ভাই এখলাস আলী (২২), কনের ফুপাতো বোন রুরাইয়া খাতুন স্বর্ণা (১২) ও খালা আঁখি খাতুন (২৫)।

এআই/