ঢাকা, শনিবার   ১১ জুলাই ২০২০,   আষাঢ় ২৬ ১৪২৭

দীর্ঘ ২৬ মাস বন্ধের পর হিলি রেলস্টেশনের কার্যক্রম শুরু 

হিলি প্রতিনিধি 

প্রকাশিত : ০৬:২১ পিএম, ৯ মার্চ ২০২০ সোমবার

জনবল সংকটের অজুহাত দেখিয়ে দীর্ঘ ২৬ মাস বন্ধ থাকার পর আবারও দিনাজপুরের হিলি রেলস্টেশনের কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। এদিকে দীর্ঘদিন পর হিলি রেলস্টেশনের কার্যক্রম শুরু হওয়ায় স্বস্তি ফিরেছে রেলযাত্রীদের।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের জিএম মিহির কান্তি গুহ এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এর আগে তিনি তিতুমির এক্সপ্রেস ট্রেনে করে ১নং লাইনের মাধ্যমে হিলি রেলস্টেশনে আসলে উপজেলা প্রশাসন ও রেলস্টেশন কতৃপক্ষ তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। এসময় তার সাথে রেলওয়ের বিভাগীয় অফিসার নাসির উদ্দিন, এটিও আব্দুস সোবহান, বিভাগীয় ম্যানেজার আহসান উল্লাহসহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পরে হিলি রেলস্টেশন চত্বরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রাফিউল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের জিএম মিহির কান্তি গুহ, উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশীদ, পৌরমেয়র জামিল হোসেনসহ অনেকে। এসময় পৌরমেয়র স্থানীয়দের পক্ষ থেকে ২নং লাইনে প্লাটফর্ম নির্মান, আসন সংখ্যা বরাদ্দ ও ঢাকাগামী একটি ট্রেনের যাত্রাবিরতীর দাবী জানান।

এসময় রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলের জিএম মিহির কান্তি গুহ বলেন, আপনারা জানেন আমাদের প্রচন্ড রকমে জনবল সংকট রয়েছে। স্টেশন মাস্টার ও পয়েন্টসম্যান সংকটের কারনে পাকশি ডিভিশনে হিলিসহ ৪৮টি স্টেশনের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। হিলি স্থলবন্দরের গুরুত্বের কথা বিবেচনা করে দীর্ঘ দিন পরে হলেও আজ হিলি রেলস্টেশনের কার্যক্রম চালু করা হলো। এতে করে বন্দর এলাকার মানুষের যাতায়াতের বিশেষ করে রোগিদের সুবিধা হবে বলেও জানান তিনি। সেই সাথে হিলিবাসীর যে দাবী বিশেষ করে প্লাটফর্ম নির্মান, ট্রেনের আসন সংখ্যা বৃদ্ধি ও ঢাকাগামী ট্রেনের যাত্রাবিরতীর বিষয়টি পরিক্ষা নিরীক্ষা করে দেখার পর সিন্ধান্ত গ্রহন করা হবে।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার রেল বান্ধব সরকার, রেলকে উন্নয়নের জন্য যা যা দরকার সরকার তা করে যাচ্ছে। বর্তমানে রেলওয়ের ৩৬টি প্রকল্পের কাজ চলছে এতে করে পুরো উত্তরাঞ্চলের দৃশ্যপট পরিবর্তন হয়ে যাবে। বর্তমান রেলমন্ত্রী মহোদর যোগদানের পরে ৪টি নতুন ট্রেন সংযুক্ত করেছেন আরো নতুন নতুন ট্রেন আসবে। বঙ্গবন্ধু সেতুর উপর দিয়ে ২৪টি ট্রেন চলার কথা থাকলেও বর্তমানে ৪২টির মতো ট্রেন চলাচল করছে যার কারনে ট্রেনের শিডিউল ঠিক করা যাচ্ছেনা, এটা যখন ডাবল লাইন হয়ে যাবে তখন ট্রেনগুলো সুন্দরভাবে চলবে এবং আরো নতুন নতুন ট্রেন যুক্ত হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২০১৮ সালের ৮ই জানুয়ারী জনবল সংকটের অজুহাত দেখিয়ে হিলি রেলস্টেশনের কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর পর থেকে পার্শ্ববর্তী বিরামপুর ও পাচবিবি স্টেশন থেকে নিয়ন্ত্রনের মাধ্যমে ২নং লাইন দিয়ে ট্রেন চলাচল করতো।

আরকে//