ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৬ ১৪২৭

হাঁচি-কাশি, মাথা ব্যাথা হলেই করোনা নয়, আতঙ্কিত হবেন না

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:২৭ পিএম, ১৬ মার্চ ২০২০ সোমবার | আপডেট: ১০:০৬ পিএম, ১৬ মার্চ ২০২০ সোমবার

দেশে এখন পর্যন্ত দুইজন শিশুসহ মোট আটজন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। তবে এ নিয়ে খুব বেশি হতাশা বা আতঙ্কিত হওয়ার প্রয়োজন নেই। করোনায় আক্রান্ত হলেই যে মানুষ মারা যায়, এমনটা নয়। এ রোগে মৃত্যুহার খুবই কম। এখন পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত ৮০ ভাগ রোগীই সুস্থ হয়ে গেছে।

তবে বাচ্চা,বৃদ্ধ বয়স্ক, অন্যান্য রোগে (বিভিন্ন রোগ-ব্যাধীসহ ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন ইত্যাদি) আক্রান্ত মানুষ অনেকটা ঝুঁকিতে রয়েছেন। এই ভাইরাসের বিস্তার ক্ষমতা ব্যাপক। তাই সচেতনতা, সাবধানতা এবং পরিচ্ছন্নতাই এটি প্রতিরোধের অন্যতম উপায়।

সর্দি, হাঁচি, কাশি, মাথা ব্যাথা হলেই নিজেকে করোনা আক্রান্ত ভেবে হতাশ হবেন না, অন্য অনেক কারণেও এমন হতে পারে। তবে এমন উপসর্গ দেখা দিলে বিলম্ব না করে ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া উচিত।

আর করোনায় আক্রান্ত হয়ে গেলে উপজেলা, জেলা হাসপাতালে করোনার চিকিৎসার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা না থাকলে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল কিংবা সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে অতি দ্রুত চিকিৎসার জন্য চলে আসা উচিত। এই হাসপাতাল গুলোতে করোনার চিকিৎসার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে।

করোনা ভাইরাস অন্যান্য ভাইরাসের তুলনায় ভারী,তাই এটি মাটি,মেঝে/ফ্লোরেও অবস্থান করে। তাই মেঝে সব সময় পরিষ্কার রাখবেন। হাত-পা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখুন। খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের সাথে হাতে হাত মেলানো, কোলাকুলি, জনসমাগম স্থানে যাওয়া থেকে আপাতত বিরত থাকুন।যেখানে সেখানে কফ,থুথু ফেলবেন না।হাঁচি-কাশি দেওয়ার সময় টিস্যু /রুমাল ব্যবহার করুন।রুমাল ব্যবহারের পর সেটা আবার ধুয়ে নিন। নিজে যথাযথ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন এবং পরিবারের সদস্যদেরও সচেতন করুন।

সবকিছুই সৃষ্টিকর্তার ইচ্ছে, তাই সর্বোপরি সৃষ্টিকর্তার শরণাপন্ন হোন,তাঁর প্রতি ভরসা রাখুন এবং নিজেরা সচেতন থাকুন।

লেখক: তাজ ইবনে মোস্তাক, মেডিকেল শিক্ষার্থী, প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ মেডিকেল কলেজ।