ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ২৯ ১৪২৭

রোজায় বৃদ্ধদের খানাপিনা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:৫৮, ২৭ মে ২০১৮

বয়স যত বাড়বে ততই বার্ধক্যের দিকে ঝুঁকে পড়বে। আর বার্ধক্যে হলেই জীবন-যাপনের মানও পরিবর্তন হয়ে যায়। খাবারের ধরনও পরিবর্তন হয়ে যায়। কিশোর-কিশোরী ও মধ্যবয়সের খাবার এক রকম হয় আর বার্ধক্যের জন্য আরেক রকম হয়।

এখন রমজান মাস ছোট থেকে বড় সবাই রোজা রাখে। যারা বার্ধ্যক্যে অর্থাৎ ষাট বছরের ঊর্ধ্বে তারাও রোজা রাখে। কিন্তু তাদের ক্ষেত্রে না খেয়ে থাকা খুব কষ্টকর হয়ে পড়ে। সেক্ষেত্রে তাদের ইফতার, রাতের এবং সেহরির খাবারে একটু বেশি নজর দেওয়া উচিত। এ সময় তাদের খাবার যা যা হতে পারে তার একটি তালিকা দেওয়া হলো-

ইফতারের খাবার

ইফতারে বার্ধক্যদের জন্য নরম খাবার খাওয়া প্রয়োজন। যেহেতু তাদের দাঁতের সমস্যা থাকতে পারে সেহেতু হতে পারে চিড়া ভিজানো, দুধ, কলা, সিদ্ধ ডিম, খেজুর, শরবত অথবা নরম খিচুড়ি। আরও হতে পারে ঘুঘনি, বেগুনি, আলুর চপ ‍ও পুডিং খেতে পারে।

সন্ধ্যা রাতের খাবার

অল্প ভাত তবে ভাতটা হতে হবে স্বাভাবিকের থেকে একটু নরম। ভাতের সঙ্গে থাকবে মাছ (যে মাছগুলোতে বেশি কাঁটা নেই সেগুলোই দেওয়া উচিত)। এর সঙ্গে থাকবে সবজি ও ভর্তা। তবে তাদের রুচি ও ইচ্ছাকে অবশ্যই প্রাধান্য দিতে হবে। খুব ঝাল খাবার তাদের না দেওয়াই ভালো।

সেহরির খাবার

সেহরিতে থাকবে ভাত, মুরগির মাংস তবে হার ছাড়া মাংস দিতে হবে, ডিম, সবজি। এই খাবারগুলো খাওয়ার শেষে এক কাপ দুধ দিতে হবে।

তবে সেহরিতে বার্ধক্যের জন্য দুধ-কলা-ভাত খুব ভালো খাবার হতে পারে। খাবার শেষে পর্যাপ্ত পানি খেতে হবে।

কেএনইউ/  এআর


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি