ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৬:৫৬:৩১

সিলেটে স্মরণীয় জয় চায় বাংলাদেশ

সিলেটে স্মরণীয় জয় চায় বাংলাদেশ

নিজেদের সর্বোচ্চ স্কোর গড়ে সিরিজের জয় করতে চায় বাংলাদেশ। আগামীকাল শুক্রবার দুপুরে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে তৃতীয় ওয়ানডে শুরু হবে। যেহেতু এটা এই মাঠে বাংলাদেশেরই প্রথম ওয়ানডে, তাই যেভাবেই হোক জয় চায় বাংলাদেশে ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। এ মাঠে বাংলাদেশ এখনো পর্যন্ত ম্যাচই খেলেছে মোটে দুটি। যার একটি টি-টোয়েন্টি (এ বছর ১৮ ফেব্রুয়ারি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে) আর অন্যটি টেস্ট (এই তো গত ৪ থেকে ৬ নভেম্বর)।মাশরাফি টেস্ট খেলেন না সেই ২০০৯ সাল থেকে। তাই সাদা পোশাকে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলার প্রশ্নই আসে না। যেহেতু গত বছর ৬ এপ্রিলের পর থেকে দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটও খেলছেন না, তাই জাতীয় দলের লাল সবুজ জার্সি গায়ে চড়িয়েও সিলেট মাঠে নামা হয়নি মাশরাফি বিন মর্তুজার।সে কারণেই বলা, শুক্রবারের ম্যাচটি সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে জাতীয় দলের হয়ে প্রথম ম্যাচ হবে মাশরাফির। লাল সবুজ জার্সি গায়ে চড়িয়ে না খেললেও গত বছর রংপুর রাইডার্সের হয়ে এই মাঠে বিপিএলের দুটি ম্যাচ খেলে গেছেন তিনি। তাই এ মাঠে খেলার অভিজ্ঞতাও খুব কম তার। উইকেটের চরিত্র সম্পর্কেও তেমন পরিষ্কার ধারণা নেই।পরিবেশ-পারিপার্শ্বিকতার বিবেচনায় মাশরাফির চোখে এটাই বাংলাদেশের সুন্দরতম ভেন্যু। এই স্টেডিয়াম সম্পর্কে আজ প্রেস কনফারেন্সে কথা বলতে গিয়ে তাই টাইগার অধিনায়কের কণ্ঠে উচ্ছসিত প্রশংসা, ‘এই মাঠ অবশ্যই বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ভেন্যু। সিলেট এমনিতেই সুন্দর। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ঘেরা। স্টেডিয়ামের আশেপাশের এলাকাটাও খুব সুন্দর। সৌন্দর্য্যরে কথা যদি বলেন, তাহলে তো অবশ্যই এটা অন্যতম সেরা।    টিআর/   
দেশে ফিরেছেন ক্রিকেটার চামেলী

ডান পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়া এবং মেরুদণ্ডে ব্যথার চিকিৎসা নিয়ে ভারতের চেন্নাই থেকে দেশে ফিরেছেন জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সাবেক অলরাউন্ডার চামেলী খাতুন। বুধবার সকালে তিনি রাজশাহীতে নিজের বাড়িতে ফিরেছেন। বাড়ি ফিরেই তিনি পাশে থাকার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রাজশাহী সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, সদরের এমপি ফজলে হোসেন বাদশা, বিসিবি ও আনসার ভিডিপির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। চামেলী জানান, এখন তিনি অনেকটাই সুস্থ। চামেলী নারী দলের হয়ে ১৯৯৯ থেকে ২০১১ পর্যন্ত খেলেছেন। কিন্তু আট বছর আগে পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়াসহ মেরুদণ্ডের হাড়ের ব্যথা নিয়ে তিনি দুর্বিষহ জীবনযাপন করছিলেন। গণমাধ্যমে এ নিয়ে খবর প্রকাশিত হলে তার চিকিৎসার ভার নেন প্রধানমন্ত্রী। তার নির্দেশনায় গত ২ নভেম্বর চামেলীকে রাজশাহী থেকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর ঢাকার পঙবগু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য ২৩ নভেম্বর তাকে নিয়ে যাওয়া ভারত। সেখানে ১৮ দিন চিকিৎসা শেষে তিনি ঢাকায় ফেরেন। এখন ৬ মাস বিশ্রাম নিতে হবে তাকে। আরকে//

টাইগারদের জার্সিতে থাকছে ইউনিসেফের লোগো

এখন থেকে সাকিব-তামিমদের জার্সিতে থাকছে ইউনিসেফের লোগো। এ বিষয়ে ইউনিসেফের সঙ্গে দুই বছরের একটি চুক্তি সই করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। জাতিসংঘের অধীনে এই সংস্থাটি এই প্রথম কোনো জাতীয় দলের সঙ্গে এমন চুক্তি করল। ফুটবল দলে ইউনিসেফের লোগো বিরল কিছু। কয়েক বছর আগেও বার্সেলোনার জার্সিতে কোনো স্পন্সর ছিল না। সে সময় জাভি-মেসিদের শার্টে শোভা পেত শুধু ইউনিসেফের লোগো। বাংলাদেশ ফুটবল দলের জার্সিতেও এখন থেকে তা দেখা যাবে। আজ বিসিবির সঙ্গে যে চুক্তি হয়েছে তাতে উপস্থিত ছিলেন বিসিবি সিইও নিজাউদ্দিন চৌধুরী সুজন ও ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি এডওয়ার্ড বেগবেদার। শুধু ছেলেদের জাতীয় ক্রিকেট দল নয়, মেয়েদের ও অনূর্ধ্ব-১৯ দলেও এই লোগো থাকবে। এখন থেকে বিশেষ করে অনূর্ধ্ব-১৮ মেয়েদেরসহ শিশু-কিশোরদের ওপর জোর দিয়ে বিসিবির ক্রিকেট কার্যক্রমের অংশীদার হবে ইউনিসেফ। অনুষ্ঠানে ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি বেগবেদার বলেছেন, আগেও বিসিবি ও ইউনিসেফের মধ্যে বেশ কিছু কর্মসূচি সাফল্যের সঙ্গে হয়েছে। নতুন এই চুক্তির মাধ্যমে ক্রিকেট আরও বেশি সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কাছে পৌঁছাবে বলে আমরা আশা করি। আরকে//

রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়লেন লিটন দাশ

ওপেনিংয়ে নামা লিটন দাশ দলীয় দ্বিতীয় ওভারে ওশানে থমাসের তৃতীয় বলে গোড়ালিতে গুরুতর চোট পান, পরে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন।ম্যাচের মাত্র নবম বলেই মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশ দলের উদ্বোধনী এই ব্যাটসম্যানকে। ক্যারিবীয়ান গতি তারকা ওশেন থমাসের করা ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারের তৃতীয় বলে দ্রুতগতির ইয়র্কারটি সামাল দিতে পারেননি লিটন। তার করা ফ্লিক শটটি গিয়ে আঘাত হানে সরাসরি লিটনের পায়ের গোড়ালির পাশের অরক্ষিত অংশে। তবে এক রান সম্পন্ন করলেও নন স্ট্রাইক প্রান্তের পপিং ক্রিজ ছুঁয়েই মাটিতে শুয়ে পড়েন লিটন। পায়ের ব্যথার আর উঠে দাঁড়াতে পারেননি তিনি। তাৎক্ষণিকভাবে দলের ফিজিও এসে পর্যবেক্ষণ কতেন তার অবস্থা। ব্যথা গুরুতর দেখে স্ট্রেচারে করে তাকে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয় লিটনকে।এসএ/

অধিনায়কত্বের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মাশরাফি

মাশরাফি বিন মুর্তজা। একজন নির্ভরযোগ্য অধিনায়কের নাম। যার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ওয়ানডে ম্যাচে অনেকগুলো জয় পেয়েছে। ওয়ানডে অধিনায়কের সাফল্যের দিক থেকে তিনি শীর্ষ পর্যায়ে রয়েছেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে’তে মাঠে নেমে ক্যারিয়ারের ২০০ ম্যাচ খেলার মাইলফলক ছুঁয়েছেন তিনি। আজ তার সামনে আরেকটি মাইলফলক স্পর্শ করার হাতছানি। আজকে মাঠে টস করতে নেমেই ছুঁয়ে ফেললেন আরেক কিংবদন্তী খেলোয়াড় হাবিবুল বাশারকে। বাংলাদেশে ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি ম্যাচে নেতৃত্বে দেওয়ার রেকর্ড ছিল হাবিবুল বাশার সুমনের। আজ মাশরাফিও হাবিবুল বাসারের সমান ৬৯টি ওয়ান’ডে ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়া রেকর্ড পূর্ণ করলেন। ৬৮টি ওয়ানডে’তে অধিনায়ক মাশরাফির জয় ৩৯টি। ৬৯ ম্যাচে হাবিবুলের জয় ২৯টি। আর সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে ৫০ ম্যাচে জয় ২৩টি। ৩৭ ম্যাচে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের ১১ ম্যাচে জয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে শেষ দু’টি ম্যাচ খেললে হাবিবুল বাশার কে ছাড়িয়ে এককভাবে সর্বোচ্চ ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়ার রেকর্ড করবে মাশরাফি। ২০০১ সালে অভিষেক হওয়ার পর থেকে ১৭ বছরের ওয়ান ডে ক্যারিয়ারে অনেক চড়াই-উতরাই পেরিয়ে এই পর্যন্ত এসেছেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’। ক্যারিয়ারের প্রথম নেতৃত্ব পান ২০০৯ সালে। তবে চোটের কারণে তখন অধিনায়কত্ব করা হয়নি তার। চোট কাটিয়ে ২০১০ সালে ইংল্যান্ড সফরে প্রথমবার ওয়ানডে’তে অধিনায়কত্ব করেন তিনি।তবে এটা বেশিদিন ধরে রাখতে পারেননি তিনি। ইনজুরির কারণে বারবার মাঠের বাইরে যেতে হয়েছে তাকে। অধিনায়কত্ব তখন সাকিব ও মুশফিকের মধ্যে ঘুর পাক খাচ্ছে। নেতৃত্ব ফিরে পেয়েছেন ২০১৪ সালের নভেম্বরে। এরপর বাংলাদেশ ৬৪টি ওয়ানডে খেলেছে। তার ৬১টি ম্যাচেই নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি। বিশ্রামে থাকা ও মন্থর ওভাররেটের কারণে এ সময় তিনি খেলতে পারেননি তিনটি ম্যাচ। কেআই/

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি