ঢাকা, রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৪:৫০:৫২

আমেরিকায় তিন মাসে চাকরি যেতে পারে অনেক ভারতীয়ের

আমেরিকায় তিন মাসে চাকরি যেতে পারে অনেক ভারতীয়ের

আগামী তিন মাসের মধ্যেই আমেরিকায় চাকরির অধিকার হারাতে পারেন এইচ১বি ভিসাধারীদের স্বামী বা স্ত্রীরা। একটি মার্কিন আদালতে গতকাল শনিবার ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন জানিয়েছে, এইচ৪ ভিসা যাদের রয়েছে, তাদের ‘ওয়ার্ক পারমিট’ বা আমেরিকায় চাকরি করা বন্ধ করতে মাস তিনেকের মধ্যেই আইন তৈরি হবে। তা জমা পড়বে হোয়াইট হাউসের অফিস অব ম্যানেজমেন্ট অব বাজেট (ওএমবি)-এ। এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে বড়সড় বিপাকে পড়বেন আমেরিকায় কর্মরত ভারতীয়রা। কারণ পরিসংখ্যান বলছে, এইচ১বি ভিসাধারীদের ৯০ শতাংশই ভারতীয় এবং এদের একটা বড় অংশই তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী, যারা কর্মসূত্রে সপরিবার আমেরিকায় গিয়েছেন। এইচ১বি ভিসাধারীদের জীবনসঙ্গী এবং ২১ বছরের কমবয়সি সন্তানদের এইচ৪ ভিসা দেয় আমেরিকা। এই এইচ৪ ভিসাধারীদেরও ওয়ার্ক পারমিট দিয়েছিল বারাক ওবামা প্রশাসন। এর ফলে মার্কিন শহরে বাড়ি নেওয়ার চড়া খরচের ধাক্কা সামলাতে স্বামী-স্ত্রীর দু’জনের রোজগার কিছুটা সুরাহা দিয়েছিল অনেককেই। কিন্তু ট্রাম্প গোড়া থেকেই বলে এসেছেন, মার্কিনদের চাকরিকেই অগ্রাধিকার দেবেন তিনি। তাই এইচ১বি এবং এইচ৪ ভিসা নীতি আগাগোড়া পর্যালোচনা করবে তার সরকার। ‘সেভ জবস ইউএসএ’ নামে মার্কিন কর্মীদের একটি সংস্থাও আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিল মার্কিনদের চাকরি সুরক্ষিত রাখার দাবিতে। আদালতে গিয়েছিল তারা। কলম্বিয়ার ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে গতকাল নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে মার্কিন সরকারের হোমল্যান্ড সিকিয়োরিটি বিভাগ বলেছে, মামলাটি এবার স্থগিত রাখা হোক। সরকারের কথায়, ‘এইচ১বি অভিবাসীদের স্বামী বা স্ত্রী, যারা এইচ৪ ভিসা নিয়ে রয়েছেন, তাদের কাজের অধিকার নিষিদ্ধ করার লক্ষ্যে আমরা দৃঢ়ভাবে ও দ্রুত এগোচ্ছি।’ ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের সূত্রের বক্তব্য, বিষয়টি নতুন কিছু নয়। বহু দিন ধরেই আমেরিকা এইচ৪ ভিসাধারীদের চাকরি বন্ধের হুমকি দিচ্ছিল। আর ভারত সরকারও তা রুখতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল। ভবিষ্যতেও সেই চেষ্টা চলবে। এক কর্মকর্তার কথায়, ‘যে ভারতীয়দের নিয়ে অসন্তোষ, মার্কিন অর্থনীতিতে তাদেরই একটা বড় অংশের যথেষ্ট অবদান আছে। ভারত-মার্কিন কৌশলগত সহযোগিতাও রয়েছে নানা ক্ষেত্রে। ফলে মার্কিন সরকার এই সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবে বলেই আশা রাখছি। ইতিমধ্যে দিল্লিও মার্কিন কংগ্রেস থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট সমস্ত শিবিরের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাবে।’ ভারতীয় সংস্থাগুলোর কাছে আসা সিংহভাগ আইটি প্রকল্পই আমেরিকার। তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলির সংগঠন ন্যাসকমের পূর্বাঞ্চলীয় কর্তা নিরুপম চৌধুরী বলেন, ‘এই বিষয়টি নিয়ে আমরা লাগাতার আলোচনা চালাচ্ছি। সমস্যাটা রয়েছে। এইচ১বি ভিসাধারীদের স্বামী বা স্ত্রীরা যথেষ্ট শিক্ষিত। নিজেদের যোগ্যতাতেই তারা চাকরি পেতে পারেন। অর্থনীতিতেও তাদের ভূমিকা রয়েছে।’ তবে তথ্যপ্রযুক্তি মহলের মতে, আলোচনা যতই হোক, গভীরতর হচ্ছে সমস্যা। তাই ক্রমশ এইচ১বি নির্ভরতা কমানোর চেষ্টা হচ্ছে। কিন্তু দক্ষ মার্কিন কর্মী পাওয়াটাও সমস্যার। যে কারণে কোনও কোনও ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাকে স্থানীয় কর্মী তৈরি করতে আমেরিকায় স্কুল-কলেজের মতো প্রকল্পে নামতে হয়েছে। টিসিএস, কগনিজেন্টের মতো সংস্থাগুলি অবশ্য এ দিন মুখ খুলতে চায়নি। সূত্র: আনন্দবাজার একে//
কানাডার রাজধানী অটোয়ার কাছে টর্নেডোর আঘাত

কানাডার রাজধানী অটোয়ার কাছে একটি টর্নেডোর আঘাতে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এছাড়াও এতে বাড়িঘরের ক্ষতি হয়েছে, বেশ কয়েকটি গাড়ি উল্টে গেছে। বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ায় ১ লাখ ৩০ হাজারেরও বেশি লোক বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে। স্থানীয় গণমাধ্যমে একথা বলা হয়েছে। আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছে, শুক্রবার রাজধানী থেকে প্রায় পাঁচ মাইল উত্তরে গাতিনেয়াউ নগরীতে ঝড়টি ঘণ্টায় প্রায় ১২০ কিলোমিটার আঘাত হানে। অটোয়া জরুরি বিভাগের কর্মকর্তা এন্থনী ডি মন্টে স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, ঝড়ে প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা গুরুতর। এ দিকে বিদ্যুৎ কোম্পানি হাইড্রোকুইবেক জানিয়েছে, শুক্রবার সন্ধ্যায় অটোয়া এলাকার ১ লাখ ৩০ হাজার গ্রাহকের বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো দুর্যোগপূর্ণ এই সময়ে প্রতিবেশীদের লক্ষ্য রাখার জন্য বাসিন্দাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। তিনি টুইটারে জানান, ‘আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি এবং যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তাদের প্রত্যেকের প্রতি লক্ষ্য রাখছি।’ সূত্র : বিবিসি। কেআই/ এসএইচ/

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহত ৩

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে এক নারী বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলিতে ৩ জন নিহত এবং আরও ৩ জন গুরুতর আহত হয়েছেন।স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে স্নচিয়া মসেলে (২৬) একটি ওষুধের দোকানে ওই নারী বন্দুকধারী গুলি চালান। পরে নিজের কাছে থাকা নাইন এমএম আগেয়াস্ত্র দিয়ে নিজের মাথায় গুলি করে আত্মহত্যা করেন ওই হামলাকারী। তবে কী কারণে ওই নারী নির্বিচারে এভাবে গুলি করে মানুষ হত্যা করলো তার কারণ এখনও জানতে পারেনি পুলিশ। মেরিল্যান্ডের ঘটনার একদিন আগেই পেনসিলভানিয়ায় গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। আদালত ভবনে এক ব্যক্তির চালানো গুলিতে চারজন আহত হয়। পরে পুলিশের গুলিতে ওই বন্দুকধারী নিহত হন।এসএ/

অ্যাটর্নি জেনারেলের বিরুদ্ধে চরম ক্ষোভ ট্রাম্পের

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবার ক্ষোভ প্রকাশ করলেন তার অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনসের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি এক টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি সেশনসকে কটাক্ষ করেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘এটি খুবই দুঃখজনক। আমার কোনো অ্যাটর্নি জেনারেল নেই।’ যুক্তরাষ্ট্রের ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ নিয়ে চলমান তদন্ত থেকে সেশনসের সরে যাওয়ার পর অ্যাটর্নি জেনারেলের উদ্দেশ্যে এটিই ট্রাম্পের করা সবচেয়ে কঠোর সমালোচনা। সাক্ষাৎকারে অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে নিয়োগের সময়ও সেশনসের পারফরম্যান্স ‘খুবই দুর্বল’ ছিল বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প। একই সঙ্গে রাশিয়া বিষয়ক তদন্ত থেকে সেশনসের সরে যাওয়ায় ‘খুবই হতাশ’ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। যদিও এখন পর্যন্ত ট্রাম্পের এসব মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সেশনস কিছু বলেননি। তবে সমালোচকরা অভিযোগ করেছেন- দায়িত্বরত কোনো প্রেসিডেন্টের পক্ষে তার অ্যাটর্নি জেনারেলকে আক্রমণ করার ঘটনা বেশ অস্বাভাবিক। এর মাধ্যমে ট্রাম্প আইনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপের চেষ্টা করছেন। অ্যাটর্নি জেনারেলকে বহিষ্কারের চিন্তা করছেন কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘আমরা দেখবো কি করা যায়। অনেকেই আমাকে এটা করতে বলছেন। কিছু বিষয়কে আমি নিজের মতো চলতে দিতে চাই, কিন্তু তিনি যা করেছেন তা সত্যিই অনুচিত ছিল।’ সূত্র : বিবিসি এসএ/  

পাঁচজন বহনক্ষম গাড়িতে ১৮জন! [ভিডিও]

প্রতিদিন যানজটে যাত্রী বোঝাই বাসের কষ্টের দীর্ঘশ্বাস অফিসে এসে উগরে দিই আমরা। কিন্তু সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে এমন একটি ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে, যা দেখে প্রতিদিনের দুঃখ ভুলে যাবেন অনেকেই। এ ভিডিওটিতে দেখা গেছে, মাত্র ৫ জন বহনক্ষম একটি প্রাইভেটকার হতে বের হচ্ছে গুনেগুনে ১৮ জন! এমন ঘটনাটি ঘটেছে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের রাষ্ট্র ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্রে। বিস্মিত হওয়ার মতো ভিডিওটিতে দেখা যায়, অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই গাড়িটিকে মহাসড়কে আটক করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর সবাইকে বের হতে বলেন তারা। এতে তারা অবাক হন যে পেছনের ৩ জন আরোহীর স্থলে একজন নারী ও এক শিশুসহ সেখান থেকে বের হচ্ছেন ১২ জন! শুধু তাই নয়, গাড়ির পেছনের ক্যারিয়ার থেকে বের হন আরও ৫ যাত্রী। ট্রাংকের ভেতরে একে অপরের ওপর সংকুচিত হয়ে শুয়েছিলেন তারা। সামাজিক মাধ্যমে ঘটনাটিকে সার্কাস, ম্যাজিক বা হাস্যকর বলে উল্লেখ করা হচ্ছে। তবে বিষয়টি নিয়ে শংকিত ডোমেনিকান ট্রাফিক কন্ট্রোল। দেশটির চালক ও অসচেতন নাগরিকদের এমনটা না করতে আইন করেছে তারা। কেননা এমন অত্যধিক বোঝাই করা গাড়ি দুর্ঘটনার আশংকায় সবচেয়ে বেশি। তবুও এ আইনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে এভাবে গাড়িতে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করে যাচ্ছে সেখানকার চালকেরা। উল্লেখ্য, এমন আরেকটি ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল রাশিয়ার এক শ্রমিক কারখানার। যেখানে দেখা গিয়েছিল, কারখানায় আসতে ব্যবহৃত পাঁচ আসনের পুলকার থেকে বের হচ্ছেন ১৭ জন শ্রমিক। শুধু তাই নয়, সঙ্গে ছিল তাদের বিনোদনের জন্য গিটার ও অন্যান্য সামগ্রি। এছাড়া ২০০৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় এমন একটি রেকর্ড হয়েছিল। সেখানে ২৬ জন ধারণক্ষম একটি মিনিবাসে যাত্রী নেওয়া হয়েছিল ১২৬ জন! একে//

বিছানায় ট্রাম্পের মতো এত পানসে আর কাউকে লাগেনি: স্টর্মি

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই একের পর এক বিতর্কিত কাণ্ডে সমালোচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর উপর আবার যোগ হয়েছে পর্ন স্টার স্টর্মি ড্যানিয়েলসের বিস্ফোরক অভিযোগ। সাবেক শয্যাসঙ্গীকে নিয়ে একের পর এক মন্তব্য করেই যাচ্ছেন স্টর্মি। এবার বলেছেন ট্রাম্পের বিছানায় সুখ নেই। বিছানায় একান্ত মুহূর্তে ট্রাম্পের মতো এতো পানসে আর কাউকে লাগেনি স্টর্মির। ভবিষ্যতে তিনি আর ট্রাম্পের সঙ্গে বিছানা ভাগ করতে চান না বলেও জানিয়েছেন এই পর্নস্টার। জানা গেছে, এক যুগ আগে স্টর্মি ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের শয্যাসঙ্গিনী। তার দাবি, ট্রাম্পের সঙ্গ তাঁর সবচেয়ে পানসে বলে মনে হয়েছে। ব্রিটিশ পত্রিকা এই খবর জানিয়েছে। স্টর্মি সম্প্রতি ‘ফুল ডিসক্লোজার’ নামে একটি বই লিখেছেন। ২ অক্টোবর সেটি প্রকাশিত হবে। তার আগেই কপি চলে গিয়েছে ব্রিটিশ ওই পত্রিকার কাছে। বই থেকে তারা স্টর্মির ‘ব্যাখ্যা’ ছড়িয়ে দিয়েছে বাজারে। শুধু ট্রাম্পের সঙ্গে যৌন সম্পর্কের ধরন নিয়ে মন্তব্য নয়। স্টর্মি বইয়ে বিশদ বিবরণ দিয়েছেন, ট্রাম্পের গোপনাঙ্গের আকৃতি নিয়েও। যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচন নভেম্বর মাসে। তার ঠিক এক মাস আগেই মাঠে পড়তে চলেছে স্টর্মির এই ‘বোমা’। ট্রাম্প যদিও বরাবরই পর্ন তারকার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক নিয়ে চুপ থেকেছেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা নিয়ে মুখ না খোলার প্রতিশ্রুতি আদায় করে তাঁর প্রাক্তন আইনজীবী মাইকেল কোহেন গোপনে স্টর্মিকে ১ লক্ষ ৩০ হাজার ডলার দিয়েছিলেন বলে দাবি। বইয়ে লেখা রয়েছে, ২০১৬ সালে রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হয়ে দৌড়ে ট্রাম্প ক্রমশ এগিয়ে যাচ্ছেন দেখে অবাক হয়েছিলেন স্টর্মি। তাঁর বক্তব্য, ‘আমি ভাবতে পারিনি, এটা কোন দিন সত্যি হবে। উনি নিজেও প্রেসিডেন্ট হতে চাননি। ২০০৬ সালে স্টর্মি-ট্রাম্প ঝড়ের শুরু। ক্যালিফোর্নিয়ার লেক টাহোয় একটা গল্ফ টুর্নামেন্টের সময়ে। ট্রাম্প তখন টিভি-তে রিয়্যালিটি শো-এর তারকা। আর তাঁর স্ত্রী মেলানিয়া সবে ব্যারনের মা হয়েছেন। গল্ফ টুর্নামেন্টেই ট্রাম্পকে প্রথম চাক্ষুষ দেখেন স্টর্মি। স্ত্রীর অসুস্থতার সুযোগে পর্ন তারকার কাছে প্রথমে নৈশভোজের আমন্ত্রণ পাঠান ট্রাম্পের এক দেহরক্ষী। ভোজ-পর্ব গড়িয়ে ট্রাম্পের পেন্টহাউসে শারীরিক ঘনিষ্ঠতার শুরু। মিলিত হওয়ার পরের অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে স্টর্মির সংযোজন, এত পানসে আমার জীবনে লাগেনি! তবে ওঁর ক্ষেত্রে ব্যাপারটা একেবারে আলাদা। ২০০৬ সালের মিলন-মুহূর্ত পেরিয়ে আরও এক বছর স্টর্মি যোগাযোগ রেখেছিলেন ট্রাম্পের সঙ্গে। মনে মনে পর্ন তারকার ইচ্ছে ছিল, যদি কোনো ভাবে ট্রাম্পের রিয়্যালিটি শো-এ মুখ দেখানো যায়! স্টর্মি-মগ্ন ট্রাম্পও সেই আশাই দেখিয়েছিলেন। বলেছিলেন, প্রয়োজনে ‘এপিসোড’ চুরি করে বাড়িয়ে দিয়ে স্টর্মিকে দেখানো হবে। বইয়ের অংশ সংবাদমাধ্যমে ফাঁস হওয়ার পরে স্টর্মির আইনজীবী মাইকেল অ্যাভেনাটির টুইট, ট্রাম্পের সঙ্গে স্টর্মির যৌন মিলন বর্ণনা করা বইটির গুরুত্বপূর্ণ অংশ নয়। এটি স্টর্মির জীবন নিয়ে। আধুনিক এক নারী ক্ষমতার সামনে দাঁড়িয়ে সত্যিটা নির্ভয়ে বলতে পেরেছেন— যার সাক্ষী এই বই। সূত্র : আনন্দবাজার। / এআর /

যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রদূত বহিষ্কারের নির্দেশ

দখলদার ইসরাইলের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর ফিলিস্তিনের বিরুদ্ধে নজিরবিহীন নানা পদক্ষেপ নিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলের ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে সবসময়ই তাদের পক্ষ অবলম্বন করে আসছে দেশটি। সর্বশেষ পদক্ষেপ হিসেবে মার্কিন সরকার সে দেশ থেকে ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত বহিষ্কারের নির্দেশ দিয়েছে। এর আগে আমেরিকা ফিলিস্তিন শরণার্থীদের জন্য জাতিসংঘের ত্রাণ সংস্থাকে সাহায্য বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল। আমেরিকায় নিযুক্ত ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত হেসাম জামলাত জানিয়েছেন, মার্কিন সরকার তার পরিবারের জন্য ২০২০ পর্যন্ত ভিসা দিলেও এখনই তাদেরকে আমেরিকা ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে। এমনকি মার্কিন সরকার তার পরিবারের ব্যাংক একাউন্টও জব্দ করেছে। মার্কিন এ পদক্ষেপকে ট্রাম্পের পক্ষ থেকে প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থা হিসেবে অভিহিত করেছেন পিএলও`র নির্বাহী কমিটির সদস্য হানান আশরাভি। তিনি বলেন, এ থেকে নারী ও শিশুসহ নির্যাতিত ফিলিস্তিনিদের প্রতি আমেরিকার বিদ্বেষ  ও নির্মমতা ফুটে উঠেছে। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র গত ১০ সেপ্টেম্বরও ওয়াশিংটনে ফিলিস্তিনিদের কূটনীতিকদের দফতর বন্ধ করে দিয়েছিল। ফিলিস্তিন স্বশাসন কর্তৃপক্ষ দখলদার ইসরাইলের সঙ্গে সরাসরি সংলাপে বসছে না এমন অভিযোগ তুলে দফতর বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়। এ দিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেছেন, যতদিন পর্যন্ত ফিলিস্তিনিরা ইসরাইলের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি না হবে ততদিন পর্যন্ত পিএলও`র কোনও রাজনৈতিক দফতরও খোলার অনুমতি দেওয়া হবে না। ফিলিস্তিন শরণার্থীদেরকে ৩০ কোটি ডলারের সাহায্য বন্ধের ঘোষণা দেওয়ার পর জন বোল্টন এ কথা জানান। সূত্র: পার্সটুডে এমএইচ/একে/

গাছমানব!

গাছপালা মানুষের প্রাণ! কারণ এই গাছপালাই মানুষকে বেঁচে থাকার জন্য সবচেয়ে মূল্যবান উপাদান অক্সিজেন সরবরাহ করে থাকে। তাই গাছপালাকে ভালোবেসে এই সবুজ গাছ দিয়েই আকর্ষণীয় সাজে সেজেছেন এক নারী। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সানফ্রান্সিকোতে বৈশ্বিক জলবায়ু কার্যক্রম সম্মেলনের শেষদিন তাকে এ সাজে দেখা যায়। অনেকে তাকে ক্যামেরায় বন্দি করেছেন।   বিশ্বকে সবুজে সবুজে সাজিয়ে তুলতে তিনি এ সাজে সেজেছেন বলে জানিয়েছেন। গাছের ডাল-পাতায় মোড়া এই শরীর দেখে যে কেউ মনে করবে এ যেন গাছমানব!    জীবাশ্ম জ্বালানি থেকে সরে আসা ও বৈদ্যুতিক গাড়ি সম্প্রসারণের অঙ্গীকার নিয়ে তিন দিনব্যাপী এ সম্মেলন শেষ হয়েছে। তথ্যসূত্র: এএফপি  এমএইচ/এসি     

৫০ হাজার বছরের আগের নেকড়ে! 

কানাডার উত্তরাঞ্চলে প্রায় ৫০ হাজার বছর আগে পৃথিবীতে বিচরণ করত এমন দুটি প্রাণীর মমিকৃত দেহের সন্ধান পাওয়া গেছে। উদ্ধারকৃত প্রাণীগুলো হলো নেকড়ে ও কারিবুর।     প্রায় দুই বছর আগে ইউকন এলাকার ডসন শহরের কাছে খনি শ্রমিকরা এ নেকড়ে ও কারিবুর দেহাবশেষের সন্ধান পান। উদ্ধারের সময় মমিতে পরিণত হওয়া প্রাণী দুটোর চুল, চামড়া ও পেশির টিস্যু অক্ষত ছিল সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। ২০১৬ সালে উদ্ধারকৃত এই প্রাণী দুটির দেহাবশেষ ডসন শহরে প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছে। বিজ্ঞানীরা আশা প্রকাশ করে বলেন, এই প্রাণী দুটির দেহাবশেষগুলো নিয়ে গবেষণায় ৫০ হাজার বছর আগেকার বরফ যুগে ওই এলাকার জীবনযাত্রা সম্বন্ধে সম্যক ধারণা পাওয়া যাবে। মমিতে পরিণত হওয়া এ দুটো প্রাণীর দেহাবশেষই সবচেয়ে পুরনো বলে ধারণা করছে বিজ্ঞানীরা। বিশেষ করে এত পুরনো স্তন্যপায়ী প্রাণীর কোমল টিস্যুর সন্ধান এটিই প্রথম। এমএইচ/এসি       

ট্রাম্প অশরীরী শক্তি: মুর

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনল্ড ট্রাম্পকে ‘এক অশরীরী শক্তি’ হিসেবে উল্লেখ করে দেশটির খ্যাতিমান ডকুমেন্টারি চলচ্চিত্র নির্মাতা মাইকেল মুর বলেন, ‘আমার ধারণা, তিনি দ্বিতীয় মেয়াদে প্রেসিডেন্ট হবেন।’ সম্প্রতি সিএনএনের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন। এদিকে ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়ী হওয়ার প্রভাব নিয়ে মুরের মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘ফারেনহাইট ১১/৯’ চলচ্চিত্র। এই চলচ্ছিত্রের প্রচার-প্রচারণার অংশ হিসেবে তিনি সিএনএনের সঙ্গে এ সাক্ষাৎকার দেন। ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়ী হওয়া প্রসঙ্গে মুর বলেন, অনেকেই একদম নিশ্চিত ছিল যে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হতে যাচ্ছেন। লোকজন বলছিল, এই ইডিয়টকে (ট্রাম্প) কেউ ভোট দেবে না। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে হেরে গিয়ে কীভাবে জিততে হয়, তা দেখিয়েছেন ট্রাম্প। ট্রাম্প কীভাবে নির্বাচনে জিতলেন তা নিয়ে ভবিষ্যতে ইতিহাসবেত্তারা বিচার-বিশ্লেষণ করবেন।  মুর মনে করেন হোয়াইট হাউস থেকে একের পর এক তথ্য ফাঁসের পেছনে ট্রাম্প নিজেই রয়েছেন।   এমএইচ/ এআর

চীনা পণ্যে আবারও শুল্ক আরোপ করতে পারেন ট্রাম্প

মার্কিন প্রশাসনের এক সিনিয়র কর্মকর্তা আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আজ সোমবার থেকে চীনা পণ্যের ওপর আবারও শুল্ক আরোপের ঘোষণা দিতে পারেন। শুল্কের পরিমাণ হবে ২০০ বিলিয়ন ডলার।  শুল্ক আরোপ প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত এক কর্মকর্তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে জানিয়েছেন, ১০ ভাগ হারে শুল্ক আরোপ করা হবে। এর আগে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৫ ভাগ হারে শুল্ক আরোপের কথা বলা হয়েছিল। চীনের প্রযুক্তি ও ইলেক্ট্রনিক্স সামগী, প্রিন্টেড সার্কিন বোর্ড, সামুদ্রিক খাবার, ফার্নিচার, লাইটিং প্রোডাক্টস, টায়ার, কেমিক্যাল, প্ল্যাস্টিক, বাইসাইকেল এবং শিশুদের জন্য গাড়ির আসন আমদানির ওপর শুল্ক আরোপ করা হতে পারে। এটা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি যে, এসব পণ্যের তালিকা থেকে কোনোটি বাদ পড়বে কিনা। শুক্রবার হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র লিন্ডসে ওয়াল্টার্স জানান, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বারবারই বলেছেন যে, তিনি চীনের অন্যায্য বাণিজ্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন। আমরা চাই চীন আমাদের উদ্বেগকে গুরুত্ব দিক। বাণিজ্যমন্ত্রী স্টিভ মনুচিন চীনের সঙ্গে বাণিজ্য সংঘাত নিয়ে আলোচনার কথা বললেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প শুল্ক আরোপের নির্দেশনা দিয়েছেন। সূত্র : রয়টার্সএসএ/

ম্যাটিসকে বরখাস্ত করতে পারেন ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিসকে বরখাস্ত করতে পারেন বলে খবর বেরিয়েছে। সম্প্রতি প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে প্রেসিডেন্টের সম্পর্কে মারাত্মক টানাপড়েনের মধ্যে এ খবর এল। নিউইয়র্ক টাইমস ও লস অ্যাঞ্জেলেস সূত্রে জানা যায়, নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় মধ্যবর্তী নির্বাচনের পর ম্যাটিসকে বরখাস্ত করতে পারেন। পত্রিকা ‍দুটি জানায়, ট্রাম্পের সঙ্গে ম্যাটিসের সম্পর্ক দিন দিন খুবই খারাপ পর্যায়ে চলে যাচ্ছে এবং মতপার্থক্য তীব্র হচ্ছে। ট্রাম্প প্রশাসন ও কংগ্রেসের বেশ কয়েকজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে পত্রিকা দুটি আরো বলেছে, ম্যাটিস নিজেও পদত্যাগ করতে পারেন, আবার ট্রাম্প তাকে বরখাস্তও করতে পারেন। জিম ম্যাটিসের চেয়ে আরও বেশি অনুগত কাউকে প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদে বসাতে চান ট্রাম্প। এদিকে ট্রাম্প প্রশাসনে ম্যাটিসকে সবচেয়ে বেশি মডারেট মন্ত্রী হিসেবে মনে করা হয় এবং ম্যাটিসকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী নিয়োগ দেওয়ার সময় তাকে ‘ম্যাড ডগ’ আখ্যায়িত করে ট্রাম্প গর্ব প্রকাশ করেছিলেন। সম্প্রতি ওয়াশিংটন পোস্টের সাংবাদিক বব উডওয়ার্ড তার ‘ফেয়ার: ট্রাম্প ইন দ্যা হোয়াউট হাউজ’ বইয়ে লিখেছেন, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। কিন্তু সে নির্দেশ বাস্তবায়ন করেন নি ম্যাটিস। এ জায়গা থেকেই দুজনের মধ্যে মতপার্থক্যের সৃষ্টি হয়েছে। সূত্র: পার্সটুডে। এমএইচ/ এসএইচ/      

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি