ঢাকা, শনিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৮ ২:০৯:২০

এইচ টি ইমাম সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়া প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমামকে সামরিক হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। তাকে চিকিৎসার জন্য সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার সকালে এইচ টি ইমাম উল্লাপাড়া উপজেলার রেল স্টেশন সংলগ্ন তার নামে ডিগ্রি কলেজের নাম ফলক উন্মোচন উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অংশ নেন। হঠাৎ তিনি অসুস্থ্য হয়ে পড়লে এ্যাম্বুলেন্সে দ্রুত তাকে সোনতলার বাড়িতে নেওয়া হয়। পরে দুপুর ৩ টা ১০ মিনিটে সামরিক একটি হেলিকপ্টারে করে ঢাকা নেওয়া হয়। এইচ টি ইমামের ছেলে ও উল্লাপাড়ার সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম জানান, উন্নত চিকিৎসার জন্য তার বাবাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তার অবস্থা আগের চেয়ে কিছুটা ভাল। একে//  

বিস্ময়কর তাল!  

পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার সলঙ্গী গ্রামে এক বিস্ময়কর তালের খবর এখন সবার জানা। রফিকুল ইসলামের বাড়ির একটি তালগাছের তাল নজর কেড়েছে সবার। ওই গাছের প্রতিটি তাল আকৃতিতে যেমন বড় তেমনি স্বাদেও অতুলনীয়। তাই তাল কিনতে এলাকার মানুষের আগ্রহের কমতি নেই। জানা গেছে, প্রতি তাল ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়। একেকটি তালের ওজন পাঁচ থেকে ছয় কেজি। তাল গাছের মালিক রফিকুল জানান. তার বাবার হাতে লাগানো  তালগাছটি পাঁচ- ছয় বছর ধরে ফল দিচ্ছে। গাছে তাল ধরার  পর থেকেই সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ছড়িয়ে পড়ছে এর সুনাম। প্রতি বছর ৬০ থেকে ৭০টি তাল হয় এই গাছে। একেকটি তাল ২৫০ টাকা থেকে ৩০০ টাকায় বিক্রি করেন তিনি। তাল বিক্রি করার জন্য কখনোই বাজারে যেতে হয় না । আগ্রহীরা আগে থেকেই অনেক অনুরোধ করে তালের জন্য বায়না করে রাখেন। এর পরেও সবাইকে তা দিতে পারেন না। চলতি বছরেই এ পর্যন্ত অর্ধ-শতাধিক তাল বিক্রি করেছেন তিনি।  শুক্রবার তিনি বেড়া বাজারের দু’জন স্বর্ণব্যবসায়ীর কাছে দুটি তাল বিক্রি করতে এসেছিলেন। ওই দুই ব্যবসায়ী সপ্তাহখানেক আগে তালের কথা বলে রেখেছিলেন। প্রতিটি ৩০০ টাকা হিসাবে বিক্রি করেন। কেআই/ এসএইচ/

রাজশাহীতে ট্রেনে কাটা পড়ে পলিটেকনিক ছাত্রের মৃত্যু

রাজশাহী মহানগরীর বর্ণালীর মোড় এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র মামুন-উর-রশিদ (২০) নিহত হয়েছেন। শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।  নিহত মামুন-উর-রশিদ রাজশাহী সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মেকানিক্যাল বিভাগের ৫ম সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি রংপুরে। রাজপাড়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান হাফিজ জানান, শুক্রবার রাত ৯টার দিকে মহানগরীর বর্ণালীর মোড় এলাকায় দুর্ঘটনার শিকার হন মামুন-উর-রশিদ। চলন্ত ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে তার বাঁ হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। একে//

গোদাগাড়ীতে নিখোঁজ কলেজছাত্রের লাশ উদ্ধার

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজোলার সারাংপুর গ্রামের একটি ডোবা থেকে জয়নাল আবেদিন (২০) নামের এক কলেজছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার দুপুরে উদ্ধার জয়নাল দুইদিন আগে নিখোঁজ হয়েছিল বলে পুলিশ জানিয়েছে। জয়নাল গোদাগাড়ী সরকারী কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর থানার চর হরিসপুর গ্রামের খোরশেদ আলমের ছেলে। জয়নাল সারাংপুর গ্রামের তার ফুপা তরিকুলের বাসায় থেকে লেখাপড়া করতো। গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তরিকুলের বাড়ির পাশে একটি ডোবায় জয়নালের লাশ ভাসতে দেখে স্থানীয় লোকজন থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। তরিকুলের বরাদ দিয়ে ওসি বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরে বাহিরে থেকে ঘুরে আসি বলে বাড়ি থেকে বের হয় জয়নাল। এর পর সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। তাকে খুন করে ডোবায় ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে ধারণা এই পুলিশ কর্মকর্তার। একে//

রাজশাহীতে ২১৮৪টি পূজামন্ডপ ঝুঁকিপূর্ণ

আসন্ন শারদীয় দুর্গোৎসবের নিরাপত্তার বিষয়ে পুলিশের কর্মকর্তা ও হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি খুরশীদ রাজীব। সোমবার দুপুরে রাজশাহীতে ডিআইজির কার্যালয়ে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। মতবিনিময়কালে পুজামন্ডপের নিরাপত্তায় জেলা পুলিশ সুপারদের ১৬টি নির্দেশনা দেন ডিআইজি খুরশীদ রাজীব। মতবিনিময় সভায় ডিআইজি জানান, রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় এবার তিন হাজার ৪৩৮টি পূজামন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপিত হবে। এর মধ্যে দুই হাজার ৯৩টি পুজামন্ডপ ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যার মধ্যে এক হাজার ৪১টি অধিক ঝুঁকিপূর্ণ। ইতোমধ্যেই প্রতিমা তৈরি থেকে শুরু করে পুজামন্ডপগুলোতে সতর্কতার সঙ্গে নিরাপত্তার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রতিটি পুজামন্ডপে পুলিশ আনসান-ভিডিপি ছাড়াও গোয়েন্দা সংস্থা ও সেচ্ছাসেবী সংগঠন নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবে।সার্বিক নিরাপত্তার জন্য হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দের সহযোগিতা চান পুলিশের এই কর্মকর্তা। ডিআইজি অফিসের তথ্যমতে, রাজশাহী মহানগরসহ বিভাগের আট জেলায় এবার পূজামন্ডপ স্থাপন করা হবে তিন হাজার ৫৩৬টি।এর মধ্যে রাজশাহী নগরীতে ৯৮টি ও আট জেলায় তিন হাজার ৪৩৮টি। যার মধ্যে রাজশাহী জেলায় ৩৬২টি, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ১৩২টি, নওগাঁ জেলায় ৭৮৫টি, নাটোরে ৩৭১টি, পাবনায় ৩৪০টি, সিরাজগঞ্জ জেলায় ৪৯৩টি, বগুড়া জেলায় ৬৬৫টি এবং জয়পুরহাট জেলায় ২৯০টি। ডিআইজি খুরশীদ রাজীব বলেন, গত বছরের চেয়ে এবার রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় ২১১টি পুজামন্ডপ বেশি তৈরি হয়েছে। নিরাপত্তার দিক দিয়ে এবার এক হাজার ৪১টি পুজামন্ডপকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ, এক হাজার ৫২টি ঝুঁকিপূর্ণ এবং এক হাজার ৩৪৫টি সাধারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। মতবিনিময় সভায় রাজশাহী বিভাগের আট জেলার পুলিশ সুপার ও গোয়েন্দা পুলিশের কর্মকর্তারা ছাড়াও হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। কেআই/ এসএইচ/

রাজশাহীতে পুলিশ পেটানো মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

রাজশাহীতে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে আলমগীর হোসেন আলো (৪৯) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। রোববার ভোর সাড়ে তিনটার দিকে নগরীর কাটাখালি থানার খিদিরপুর মধ্যচর এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ১৯৮ বোতল ফেনসিডিল ও একটি সাটারগান উদ্ধার করা হয়েছে। আলোর বিরুদ্ধে পুলিশের উপর হামলা, হত্যা ও মাদক দ্রব্য আইনে বিভিন্ন থানায় ১১টি মামলা রয়েছে। গত ১ অক্টোবর মধ্যচর এলাকায় পুলিশের উপর হামলা ঘটনার মামলায় সে ৩ নম্বর এজাহারভুক্ত আসামি ছিল বলে জানিয়েছেন নগর পুলিশের মুখপাত্র ও সিনিয়র সহকারি কমিশনার (এসি) ইফতে খায়ের আলম। নিহত আলমগীর হোসেন আলো নগরের মতিহার থানার ডাশমারী এলাকার মোক্তার হোসেনের ছেলে। গত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আলামগীর হোসেন ২৯ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এসি ইফতে খায়ের আলম বলেন, গত ১ অক্টোবর কাটাখালি থানার খিদিরপুর মধ্যচর এলাকায় মাদক বিরোধী অভিযান চালায় গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই মাহবুব ও কনস্টেবল সুজন কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে। এ ঘটনায় কাটাখালি থানায় পুলিশ বাদি হয়ে ৪১ জনের নাম উল্লেখ্য করে ৯১ জনকে আসামি করে মামলা করে। ওই মামলার আসামিদের ধরতে মধ্যচর এলাকায় পুলিশ অভিযান চালায়। ইফতে খায়ের বলেন, অভিযানের সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশের উপর হামলা চালায়। এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুঁড়ে। উভয়ের মধ্যে কয়েক রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়। এক পর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে গেলে ওই এলাকায় তল্লাশি করে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আলামগীর হোসেনকে পাওয়া যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করে। একে//

ছুটির দিনে নগর ভবনে মেয়র লিটন

ছুটির দিনে নগর ভবনে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। রাসিকের নগর ভবনে প্রবেশ করে তিনি প্রথমেই তার কক্ষে যান। এ সময় রাসিকের বিভিন্ন  কর্মকর্তা তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। এরপর মেয়র কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।  রাসিক সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল ১১টার দিকে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন নগর ভবনে প্রবেশ করেন। এ সময় নগর ভবনে থাকা বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান। পরে তিনি বিভিন্ন দপ্তর ঘুরে দেখেন এবং কর্মকর্তা কর্মচারিদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। মেয়র লিটন নগর ভবনের ১০ম থেকে তৃতীয় তলা পর্যন্ত বিভিন্ন দফতর ও কক্ষে যান। এ  সময় মেয়র পরিচ্ছন্ন বিভাগ, সম্পত্তি শাখা, কর আদায় শাখা, ট্রেড লাইনেন্স শাখা, বিদ্যুৎ শাখা, প্ল্যানিং শাখা, সাধারণ প্রশাসনিক শাখা, স্বাস্থ্য শাখা, কাউন্সিলর’স রুমসহ আরও বিভিন্ন কক্ষ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর শরিফুল ইসলাম বাবু, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মোমিনসহ বিভিন্ন দফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্বভার গ্রহণ করায় রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে ফুলের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল্লাহ। শনিবার দুপুরে নগর ভবনে মেয়রকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। পরে মেয়র ও পুলিশ সুপার কুশল ও মতবিনিময় করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহমুদুল হাসান, সুমন দেব, সহকারী পুলিশ সুপার ইবনে রায়হান প্রমুখ। প্রসঙ্গত, গত ৩০ জুলাই রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএচ খায়রুজ্জামান লিটন। গত ৫ সেপ্টেম্বর গণভবনে মেয়র লিটনকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার বিকেলে নগর ভবনের গ্রীন প্লাজায় এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এ সময় রাসিকের ৩০ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ১০ জন নারী কাউন্সিলরও দায়িত্বগ্রহণ করেন।   কেআই/ এসএইচ/

নগর উন্নয়নে প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে দায়িত্ব নিলেন লিটন

স্মরণকালের জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের দায়িত্ব নিলেন মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। বিপুল সংখ্যক নগরবাসী ও বিশিষ্ট নাগরিকদের উপস্থিতিতে শুক্রবার বিকেলে দায়িত্বভার গ্রহণ করেন তিনি। এ সময় সিটি করপোরেশনের ৪০ জন কাউন্সিলরও সবার হাতে হাত রেখে উন্নয়নে নগরীকে এগিয়ে নেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠানে রাসিকের বিগত পরিষদের প্যানেল মেয়র আনোয়ারুল আজিম আজবের কাজ থেকে দায়িত্ব গ্রহণ করেন মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠানে রাজশাহী সদর আসনের এমপি ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী-১ আসনের এমপি ওমর ফারুক চৌধূরী এমপি, রাজশাহী-৩ আসনের এমপি আয়েন উদ্দিন এমপি, রাজশাহী-৪ আসনের সাংসদ প্রকৌশলী এনামুল হক এমপি, রাজশাহী-৫ আসনের সাংসদ আবদুল ওয়াদুদ দারা এমপি, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ আক্তার জাহান এমপি ছাড়াও নগরীর শিক্ষাবিদ, বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ ও সুশিল সমাজের প্রতিনিধি ও রাসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। গত ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত নির্বাচনে বিএনপির মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলকে বিশাল ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে দ্বিতীয় দফায় মেয়র নির্বাচিত হন নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এর আগে ২০০৮ সালে প্রথমবার নগরপিতা নির্বাচিত হন তিনি। মেয়র হয়ে রাজশাহীকে গ্রিন, ক্লিন ও এডুকেশন সিটিতে পরিণত করেছিলেন মেয়র লিটন। ওই মেয়াদে রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, পদ্মাপারের সৌন্দর্য বৃদ্ধিসহ নানা ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়ন করে রাজশাহীকে তিনি মডেল নগরীতে পরিণত করেন। কিন্তু ২০১৩ সালের নির্বাচনে বিএনপি নেতা বুলবুলের কাছে তিনি পরাজিত হন। ফলে স্থবির হয়ে পড়ে রাজশাহীর উন্নয়ন। এবারও লিটনের সামনে রয়েছে বড় চ্যালেঞ্জ। যার মধ্যে অন্যতম হল দেনার দায়ে প্রায় দেউলিয়া রাসিকের আর্থিক গতি ফিরিয়ে আনা। বর্তমানে রাসিকে দেনা রয়েছে ১০১ কোটি টাকা। গত পাঁচ বছরে এই বিশাল দেনায় দেউলিয়া করা হয় রাসিককে। তবে অতীতে মেয়র হিসেবে লিটন যে সফলতা ও দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন, এ মেয়াদেও সেই সফলতা ও দক্ষতার পরিচয় দেবেন বলে মনে করছেন নগরবাসী। প্রশাসনিকভাবে অভিজ্ঞ ও ডাইনামিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত মেয়র খায়রুজ্জামান লিটনের কাছে নগরবাসীর প্রত্যাশা গগণচুম্বী। মেয়র লিটন নির্বাচনের আগে গ্যাস সংযোগের মাধ্যমে গার্মেন্ট শিল্প স্থাপন, অর্থনৈতিক জোন প্রতিষ্ঠা এবং বঙ্গবন্ধু হাইটেক পার্ক স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এছাড়া রেশম কারখানা ও টেক্সটাইল মিল পুরোদমে চালু, রাজশাহী জুটমিল সংস্কার, কৃষিভিত্তিক শিল্প স্থাপন এবং কুটিরশিল্পের সম্প্রসারণের মাধ্যমে আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। নগরবাসী আশা করছেন এক এক করে মেয়র লিটন তার প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়ন করবেন। মেয়র লিটনের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ রয়েছেন রাজশাহী নগরীর উন্নয়ন। নগরীর চারদিকে রিংরোড ও লেক নির্মাণ, নগরীর গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলোয় ফ্লাইওভার ও ওভারপাস নির্মাণ, পর্যটনবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি, কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপনের প্রতিশ্রুতি রয়েছে লিটনের। এছাড়া নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে খেলার মাঠ, স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং মাতৃসদন স্থাপনেও তার অঙ্গীকার রয়েছে। নিম্ন আয়ের মানুষের বসবাসের জন্য বহুতল ফ্ল্যাট নির্মাণ করে সহজ কিস্তিতে মালিকানা দেয়ারও তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ‘রাজশাহীর উন্নয়নই আমার স্বপ্ন ও সাধনা। নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী কাজ শুরু করব। আশা করছি, সেবা ও মানে রাজশাহী সিটি করপোরেশন এশিয়ার সেরা জনসেবামূলক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে। মেয়র লিটন বলেন, ‘বর্তমানে রাসিকে দেনা ১০১ কোটি টাকা। কিন্তু পাঁচ বছর আগে আমি ক্ষমতা ছাড়ার সময় ২১ কোটি টাকা উদ্বিত্ব রেখে এসেছিলাম। বিএনপির সাবেক মেয়র গত বছরে রাজশাহী নগরকে ১৫ বছর পিছিয়ে দিয়ে গেছে। আমি মেয়র থাকাকালে যে প্রকল্পগুলো হাতে নিয়েছিল সেগুলো বাস্তাবায়ন না করে নষ্ট করে দিয়েছে। এবার আমার রেখা আসা প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করবো। যার মাধ্যমে রাজশাহী মডেল নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে এক ধাপ এগুবে।’ এসএইচ/

সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চলকে চূড়ান্ত লাইসেন্স প্রদান

সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চল– দেশের সর্ববৃহৎ এবং উত্তরাঞ্চলের সর্বপ্রথম অর্থনৈতিক অঞ্চলকে চূড়ান্ত লাইসেন্স প্রদান করেছে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ। বুধবার বেজা কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ লাইসেন্স প্রদান করা হয়। সড়ক, নৌপথ, আকাশপথ এবং রেলপথে যোগাযোগের সুব্যবস্থা সম্পন্ন এ অঞ্চলে উত্তরাঞ্চলের জনগণের জন্য কর্মসংস্থানের এক নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে। এর ফলে ভারত, নেপাল এবং ভূটানের সঙ্গে বুড়িমারী, হিলি এবং বাংলাবান্ধা (তেতুলিয়া)– এর মাধ্যমে যোগাযোগের কারণে আমদানি-রফতানি এবং পণ্য পরিবহনের সুযোগ প্রসারিত হবে। যমুনা নদীর তীরে অবস্থিত সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চলের জমির আয়তন ১০৩৫.৯৩ একর। এখানে চট্টগ্রাম ও মোংলা সমুদ্র বন্দরের সঙ্গে যোগাযোগের ক্ষেত্র বৃদ্ধির জন্য একটি অভ্যন্তরীণ কন্টেইনার ডিপো স্থাপন করার পরিকল্পনা রয়েছে। বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিমে অবস্থিত এ অঞ্চল চালু হলে দেশি এবং বিদেশি বিনিয়োগের সমন্বিত উদ্যোগে উত্তরাঞ্চলের জনগণের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির পাশাপাশি জীবনযাত্রার মানের উন্নতি হবে।  ১১টি কোম্পানির সমন্বয়ে গঠিত সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চল লিমিটেডের মালিকানাধীন এ অর্থনৈতিক  অঞ্চলে সম্ভাব্য বিনিয়োগের ক্ষেত্রসমূহ হল – টেক্সটাইল, আপ্যারেল ও পাটজাত দ্রব্য, ফার্মাসিউটিক্যালস, প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, পাল্প ও কাগজ, সিরামিক, কেমিক্যাল দ্রব্য, অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রিক্যাল এন্ড ইলেক্ট্রনিক, প্লাস্টিক, চামড়াজাত দ্রব্য/জুতা, আইটি পার্ক, গ্লাস ইন্ডাস্ট্রিজ, ফার্নিচার, এলপিজি টার্মিনাল, স্টিল ইন্ডাস্ট্রিজ, প্রক্রিয়াজাত মৎস্য এবং জাহাজ শিল্প।    এখানে ভূমি উন্নয়ন, অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং পরিসেবা ও অন্যান্য সুবিধাদি স্থাপনের জন্য মোট বিনিয়োগের পরিমাণ ধরা হয়েছে প্রায় ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার এবং এখানে পর্যায়ক্রমে ৫,০০,০০০ লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। আগামী ২০২৩ সালের মধ্যে এসব উন্নয়ন কার্যক্রম সমাপ্ত হবে বলে প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা যায়।     সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিদ্যুৎ, পানি ও অন্যান্য সুবিধাসমূহ নিশ্চিত করাসহ, এখানে কেন্দ্রীয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা (CETP), ডরমিটরি, ফাইভ স্টার হোটেল, স্বাস্থ্য সেবা, ডে কেয়ার, বিনোদন কেন্দ্রসহ বাণিজ্যিক এলাকা গড়ে তোলা হবে। এছাড়াও সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চলে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলার জন্য কারিগরী প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে।  সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চল বাস্তবায়নের ফলে এক দিকে যেমন শিল্পের বিকেন্দ্রীয়করণ হবে অন্যদিকে বিপুল সংখ্যক লোকের কর্মসংস্থানের মাধ্যেমে কিছুটা হলেও ঢাকা শহরের উপর জনগনের চাক কমাতে সক্ষম হবে। সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চল তাদের মূল প্রতিপাদ্য “ মানুষের কাছ শিল্প” বাস্তবায়নের ফলে উত্তরাঞ্চলের বিশেষ করে সিরাজগন্জ , পাবনা, বগুড়া ও নাটোর এলাকার মানুষ সরাসরি উপকৃত হবে। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চলের নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী সিরাজগঞ্জ অর্থনৈতিক অঞ্চল লিমিটেডকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, বেজা ২০৪১ সালে উন্নত বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নিরলস কাজ করে চলেছে। তিনি উল্লেখ করেন, দেশে বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টির জন্য সরকারি আওতায় অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলার পাশাপাশি সব আইন ও বিধি মেনে প্রাইভেট বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকেও জোন স্থাপনে উৎসাহিত করা হচ্ছে। তিনি জানান, অদম্য বাংলাদেশের স্বপ্ন লালন করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্প নগর (মিরসরাই ও ফেনী অর্থনৈতিক অঞ্চল) –এর অবকাঠামো কাজ দুরন্ত গতিতে এগিয়ে চলেছে বলে জানান নির্বাহী চেয়ারম্যান। এসএইচ/  

পুঠিয়ায় নিখোঁজ ভ্যান চালকের লাশ উদ্ধার

নিখোঁজের দুই দিন পর রাজশাহী-নাটোরের সীমান্ত এলাকা পন্নাতপুরের ধান ক্ষেত থেকে মজিদ উদ্দিন নামের ভ্যান চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর পুঠিয়া থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। নিহতের পরিবারের সদস্যদের বরাদ দিয়ে পুঠিয়া থানার ওসি সাকিল উদ্দিন আহমেদ জানায়, মঙ্গলবার রাতে চার যাত্রী পুঠিয়া থেকে গাওপাড়া সেনভাগ যাওয়ার কথা বলে মজিদকে নিয়ে যায়। এর পর থেকে সে আর বাড়ি ফিরেনি। মজিদের বাড়ি পুঠিয়া উপজেলা নিমতলা গ্রামে। ওসি বলেন, সকালে বিলের ভিতরে মকলেসের ধান ক্ষেতে লাশ পরে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুঠিয়া থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে সেখানে আসে নাটোর থানা পুলিশ। পরে লাশটি পুঠিয়া থানা পুলিশের হেফাজতে নিয়ে ময়নাতদন্তের সিদ্ধান্ত হয়। মজিদকে খুন করে তার ভ্যান ছিনতাই করা হয়েছে বলে ধারণা এই পুলিশ কর্মকর্তার। এসএইচ/

রাজশাহীতে শয়নকক্ষে নারীকে গলাকেটে হত্যা

রাজশাহীর তানোর উপজেলায় শয়নকক্ষে জোহরা বেগম (৪৫) নামে এক নারীকে কুপিয়ে ও গলাকাটা হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় আহত হয়েছেন তার পুত্রবধু রুমি (২০)। তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার কৃষ্ণপুর জিৎপুর গ্রামে জোহরার গলাকাটা লাশ খাটের উপর পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয় প্রতিবেশীরা। নিহত জোহরা একই গ্রামের হেলাল উদ্দিনের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী। সে পুত্রবধুসহ ছেলের বাড়িতে থাকতো। ছেলে জাহাঙ্গীর চাঁপাইনবাবগঞ্জে একটি বেসরকারি ব্যাংকে গার্ডের চাকুরি করে। ঘটনার সময় তার ছেলে বাড়িতে ছিলেন না। তানোর থানার ওসি রেজাউল ইসলাম জানান, চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা তাদের বাড়ি গিয়ে দেখতে পান ঘরের দরজা খোলা। ঘরের ভেতরে খাটে জোহরা গলাকাটা ও তার পুত্রবধু রুমি রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে আছেন। পরে তারা থানায় খরব দেয়। পুলিশ গিয়ে রুমিকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সে বিষয়ে প্রতিবেশীরা কিছু বলতে পারেনি। ওসি বলেন, নিহত জোহরার লাশের পাশ থেকে একটি ছুরি ও হাঁসুয়া উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের সনাক্ত করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। একে//

রাজশাহীতে মনোনয়ন চান আ.লীগের চার নেত্রী 

নির্বাচন কমিশনের পরিকল্পনা অনুযায়ী ডিসেম্বরের শেষের দিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। আর তফসিল ঘোষণা চলতি মাসের শেষে অথবা নভেম্বরের প্রথম দিকে। ফলে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রস্তুতি নিয়েছে দলগুলো। আর দলের মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ করছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরাও। এই তালিকায় রয়েছেন রাজশাহীর চার নারী নেত্রী।           এরা হলেন, সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জিনাতুন নেছা তালুকদার, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বেগম আখতার জাহান, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন ও জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক নেত্রী অধ্যাপক নার্গিস সুরাইয়া সুলতানা শেলী। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দলের ৩৩ শতাংশ নারীকে সরাসরি মনোনয়ন ঘোষণা দেওয়ায় নারীদের মধ্যে এ নিয়ে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। রাজশাহীর ছয়টি সংসদীয় এলাকার মধ্যে তিনটি আসনে মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমেছেন রাজশাহী আওয়ামী লীগের এই চার নেত্রী। তারা নিজ নিজ এলাকায় গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করে ভোটের প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। আসনগুলো হলো- রাজশাহী-৩(পবা-মোহনপুর, রাজশাহী-৪(বাগমারা) ও রাজশাহী-৫(পুঠিয়া-দুর্গাপুর)। রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) আসনে এবার মনোনয়ন চান রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সংরক্ষিত আসনের নারী সাংসদ বেগম আখতার জাহান। বেশ কিছুদিন যাবৎ তিনি নির্বাচনী এলাকায় গণসংযোগ, উঠান বৈঠক ও উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশ নিয়ে নৌকার পক্ষে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। এছাড়াও এ আসনে এবার মনোনয়ন চাইছেন রাজশাহী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মর্জিনা পারভীন। তিনিও রয়েছেন ভোটের মাঠে। মর্জিনা পারভীন জানান, এর আগে দুই দফা আমি পবা-মোহনপুর থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলাম। ২০০৮ সালে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা মনোনয়ন পান। সেই বার আমি তৃণমূলের ভোটে মেরাজ মোল্লার চেয়ে এগিয়ে ছিলাম। এবারও আমি মনোনয়নের প্রত্যাশায় কাজ করছি। রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসন থেকে এবারও মনোনয়ন চান সাবেক মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অধ্যাপক জিনাতুন নেছা তালুকদার। তিনি ইতোমধ্যে মনোনয়ন প্রত্যাশায় এলাকায় গণসংযোগ ও প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। ২০০১ সালের নির্বাচনে তিনি এ আসন থেকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) সংসদীয় আসন থেকে মনোনয়ন পেতে কাজ করছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি অধ্যাপক নার্গিস সুরাইয়া সুলতানা শেলী। তিনি দুই দফা জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তার স্বামী আইনজীবী শরিফুল ইসলাম শরিফও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। নার্গিস সুরাইয়া বলেন, তিনি পুঠিয়া-দুর্গাপুর আসন থেকে মনোনয়ন পাওয়ার যোগ্য। কারণ তাদের দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে তিনি সম্পৃক্ত রয়েছেন।   তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের ৩৩ শতাংশ নারীদের মনোনয়ন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। সেই ঘোষণার পর আমরা যারা ছাত্র রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলাম এবং এখন আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত আছি, তারা জনগণের সেবা করার একটি সুযোগ পেয়েছি। সেই সুযোগকে কাজে লাগাতেই নির্বাচনে মনোনয়ন চেয়েছি। ইতোমধ্যে এলাকায় প্রচার-প্রচারণাও শুরু করেছি। বিভিন্ন এলাকায় ছোট ছোট আকারে উঠান বৈঠক করছি। সেখানে আওয়ামী লীগ সরকারের গত ১০ বছরের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরছি। তবে প্রচার-প্রচারণা চালালেও দলের হাইকমান্ড থেকে যাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে তার পক্ষেই কাজ করবেন বলে জানান তিনি। কেআই/এসি     

ভোরে হাটতে বেরিয়ে খুন যুবলীগ নেতা

সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তাফাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সিরাজগঞ্জ অতরিক্তি পুলিশ সুপার মো. ফোরকান সকিদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আজ বুধবার সকালে পৌর এলাকার রানীগ্রাম মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে। নিহত যুবলীগ নেতা গোলাম মোস্তাফা পৌর এলাকার রানীগ্রাম মধ্যপাড়া মহল্লার মৃত হাতেম আলীর ছেলে ও ৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি। অতরিক্তি পুলিশ সুপার মো. ফোরকান সিকদার জানান, বুধবার সকালে হাটাহাটি করে বাড়ি ফিরছিলেন যুবলীগ নেতা গোলাম মোস্তফা। সে রানীগ্রাম বাজার এলাকায় পৌছলে একদল দুর্বৃত্ত তার উপর হামলা চালায়। এ সময় তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যায়। তার চিৎকারে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে কী কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। একে//

নাটোরে গাছের সঙ্গে ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলায় গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে রনি (১১) নামে মোটরসাইকেলের এক আরোহীর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে কাউছার আলী (২৪) ও বাঁধন (১২) নামে আরও দুই আরোহী। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। বাগাতিপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত রনি উপজেলার জামনগর হাপানিয়া গ্রামের মৃত আব্দুর রশিদের ছেলে বলে জানা গেছে। ওসি মো. আতাউর রহমান জানান, মঙ্গলবার রাতে তারা তিনজন বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে করে জামনগর বাজারে যাচ্ছিলো। পথে মোটরসাইকেলের চালক হঠাৎ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে রাস্তার পাশের গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে তারা গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক রনিকে মৃত ঘোষণা করেন। একে//

শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নামে দেশের উন্নয়নের পথকে বাধাগ্রস্ত ও দেশরত্ন শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে রাজশাহীতে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। সোমবার সকালে নগরের লক্ষ্মীপুর মোড়ে এ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ। সকাল ১০টার দিকে জেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা লক্ষ্মীপুর মোড়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হয়। পরে সেখান থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে নেতাকর্মীরা। মিছিলটি সিএন্ডবি মোড় হয়ে দলীয় কার্যালয়ের সামনে শেষ হয়। পরে সেখানে আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামলী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ বদরুজ্জামান রবু। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলফোর রহমানের পরিচালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান-উল-হক মাসুদ, দফতর সম্পাদক ফারুক হোসন ডাবলু, উপ-দফতর সম্পাদক প্রভাষক শরিফুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি আবু সালেহ প্রমুখ।সমাবেশে আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে প্রতিটি আনাচে কানাচে যখন উন্নয়ন চলমান তখন দেশের উন্নয়নকে ব্যাহত করার জন্য আবারও ৭৫’এর ষড়যন্ত্রকারীরা একত্রিত হয়েছে। তারা উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে বন্ধ করে দিতে চাচ্ছে। তারা বিএনপির মত সন্ত্রাসী দলের সঙ্গে ঐক্য করছে যা দেশের জন্য মঙ্গল নয়। এসএইচ/

সিরাজগঞ্জে ট্রাক থেকে দুই লাশ উদ্ধার

সিরাজগঞ্জের সয়দাবাদে দাঁড়িয়ে থাকা ভুট্টা বোঝাই ট্রাক থেকে খুন হওয়া ট্রাক চালক ও হেলপাড়ের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এরা হলেন চালক আল আমিন (৪০) এবং হেলপার সোহেল রানা (৩২)। তবে বিস্তারিত ঠিকানা প্রাথমিকভাবে জানাতে পারেনি পুলিশ। পুলিশ জানান, গত ২৯ সেপ্টেম্বর বিকেলে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম থেকে নরসিংদী গামী একটি ভুট্টা বোঝাই ট্রাক বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম সংযোগ মহাসড়কের সয়দাবাদ মোড়ে গত রোববার দুপুর থেকে দাঁড়িয়ে ছিল। সোমবার বেলা ১২টার দিকে তা থেকে পঁচা দুর্ঘন্ধ বের হলে স্থানীয়রা থানা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে চালকের পিছনের কেবিন থেকে অজ্ঞাত দুই ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে। তাদের শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে। এছাড়া মুখে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এসিড ছোড়া হয়েছে। পরে রংপুর ট-১১০৪০৮ নম্বর ট্রাকটির বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ তাদের নাম জানতে পারে। প্রথমে বিষয়টি জেনে হয়ে থানা পুলিশকে অবহিত করেন স্থানীয় চেয়ারম্যান নবিদুল ইসলাম। তিনি জানান, লাশ দিয়ে রক্ত ঝড়ছিল এবং তা দিয়ে গন্ধ বের হচ্ছিল। বিষয়টি আসলেই মর্মান্তিক। এমন হত্যাকাণ্ডে কঠর শাস্তি হওয়া উচিৎ।এদিকে সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফোরকান হোসেন জানান, ধারনা করা হচ্ছে এটা পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। ঘটনা অনুসন্ধান করে বিস্তারিত জানা যাবে। এসএইচ/

রাজশাহী শহর সবুজায়নে মাসব্যাপী কার্যক্রমের উদ্বোধন

রাজশাহী মহানগরকে সবুজ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে মাসব্যাপী বৃক্ষরোপন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে ‘উন্নয়নের অভিযাত্রায় রাজশাহী’ নামের একটি সংগঠন। ‘বৃক্ষরোপন করি সবুজ নগরী গড়ি’ এই স্লোগান নিয়ে সোমবার সকালে দুইটি স্কুলে বৃক্ষরোপনের মাধ্যমে ‘সবুজায়ন কার্যক্রমের’ উদ্বোধন করা হয়। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও উন্নয়নের অভিযাত্রায় রাজশাহীর প্রতিষ্ঠাতা এবং মেয়র এএইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের জ্যেষ্ঠ কন্যা ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা এর উদ্বোধন করেন। এ সময় স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভিন্ন জাতের গাছের চারা বিতরণ করেন তিনি। সোমবার সকাল ১০টার দিকে রাজশাহী সরকারি পিএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বৃক্ষরোপনের মধ্য দিয়ে মাসব্যাপী এই কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, সরকারি পিএন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আফরোজা খানম, সহকারী শিক্ষক নাসরিন বেগমসহ শিক্ষার্থীরা।এর পর বেলা ১১টার দিকে ডা. অর্ণা জামান রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলে গিয়ে বৃক্ষরোপন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, প্রধান শিক্ষক ড. নূর জাহান বেগম, সহকারী শিক্ষক আকরাম হোসেন, শিক্ষক ইমতিয়াজ আলী, আব্দুস সলাম মন্ডল, হোসনে আরা, ফরিদা ইয়াসমিন, নাজনীন বেগম। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উন্নয়নের অভিযাত্রায় রাজশাহীর কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এসএম ইউনুস হাসান অন্তু, জান্নাতুন নাইম বেনী, হাসনাইন মুত্ত্বাকী বিষ্ময়. নগর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান রেজা, ক্রীড়া সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বিপু প্রমুখ। এসএইচ/

সিরাজগঞ্জে ৩ হাজার ইয়াবাসহ যুবক গ্রেফতার

সিরাজগঞ্জে  এসএ পরিবহন কুরিয়ার সার্ভিসে বিশেষ কায়দায় প্লাস্টিকের পাইপে আনা সাড়ে তিন হাজার পিছ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ একজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। আটক খোরশেদ আলম (৪৫) নাটোরের লালপুর থানার ধানাইদহ গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে। র‌্যাব-১২ সূত্রে জানা যায়, একটি সুনিদিষ্টি তথ্যের ভিত্তিতে রোববার দুপুরে র‌্যাব-১২ স্পেশাল কোম্পানি সিরাজগঞ্জ ক্যাম্পের কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাকিবুল ইসলাম খান এর নেতৃত্বে সিরাজগঞ্জ শহরের বাজার স্টেশনে অবস্থিত এসএ পরিবহন কুরিয়ার সার্ভিসে অভিযান চালায়। এ সময় প্লাস্টিকের পাইপে বিশেষভাবে কক্সবাজার থেকে আসা সাড়ে তিন হাজার পিছ ইয়াবা সংগ্রহের জন্য খোরশেদ আলমকে আটক করা হয়। ইয়াবাগুলো সাইকেলের মত টিউবের ভেতরে পলিথিনে জড়ানো ছিল। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে। কেআই/ এসএইচ/

রাবির দশম সমাবর্তন আজ, থাকবেন রাষ্ট্রপতি

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দশম সমাবর্তন আজ। এ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বিশ্ববিদ্যালয়ে আসছেন। এদিন বিকাল ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেডিয়াম মাঠে সমাবর্তনের উদ্বোধন করবেন তিনি। এর আগে দুটি দশতলা বিশিষ্ট আবাসিক হলের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন রাষ্ট্রপতি।সমাবর্তন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর এম আবদুস সোবহান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর মোস্তাফিজুর রহমান আল-আরিফ। এরপর সমাবর্তন বক্তা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ইমেরিটাস আলমগীর মোহাম্মদ সিরাজুদ্দীন বক্তব্য রাখবেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখবেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ও সেলিনা হোসেনকে সম্মানসূচক ডিলিট ও অভিজ্ঞানপত্র প্রদান করবেন রাষ্ট্রপতি। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টায় নিবন্ধিত গ্র্যাজুয়েটদের আসন গ্রহণ হবে। বিকাল ৩টায় সমাবর্তন শোভাযাত্রা বের করা হবে। এসএ/    

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি