ঢাকা, ২০১৯-০৪-২৪ ১২:৫৫:৪০, বুধবার

২০১৭ সালের মতো বন্যা হলে বাঁধ ঠেকানো অসম্ভব: প্রতিমন্ত্রী

সুনামগঞ্জে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ পরিদর্শন করেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক। আজ বুধবার দুপুরে জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার পাগনার হাওরে। সুনামগঞ্জে হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ দেখে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক। তিনি বলেছেন, এবার হাওরে বাঁধের কাজের মান গতবারের চেয়েও ভালো হয়েছে। কৃষকেরা যাতে আগাম বন্যার আগেই ফসল তুলতে পারে, সেটাই আমাদের লক্ষ্য। তবে ২০১৭ সালের মতো পাহাড়ি ঢল বা বন্যা হলে এসব বাঁধ ও ফসল ঠেকানো সম্ভব না। আজ বুধবার সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ ও ধরমপাশা উপজেলা এবং নেত্রকোনা জেলার বিভিন্ন হাওরে ফসল রক্ষা বাঁধের কাজ পরিদর্শনকালে প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী গতকাল মঙ্গলবার রাতে সুনামগঞ্জে এসে আজ বুধবার সকাল থেকে হাওরে বাঁধ পরিদর্শনে বের হন। বাঁধের কাজ পরিদর্শনে গিয়ে প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেন, গত কয়েক দিনের বৃষ্টিতে কিছু বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেগুলো মেরামতের কাজ চলছে। সরকার হাওর এলাকার ফসল রক্ষায় স্থায়ীভাবে বাঁধ নির্মাণের বিষয়টি নিয়ে ভাবছে। এবার বাঁধের কাজ ভালো হয়েছে। আগামী বছর কাজের মান আরও ভালো হবে এবং নির্ধারিত সময়েই বাঁধের কাজ শুরু ও শেষ হবে। প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এর আগে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সুনামগঞ্জের হাওরে বাঁধের কাজ পরিদর্শন করেন। তখন বাঁধের কাজের মান ও অগ্রগতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন তিনি। এ সময় নির্ধারিত সময়ে বাঁধের কাজ শেষ হওয়া নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন। সুনামগঞ্জে হাওরে বাঁধের কাজের সময়সীমা ১৫ ডিসেম্বর থেকে ২৮ ফেব্রুয়ারি। এবারও নির্ধারিত সময়ে কাজ শেষ হয়নি। পরে ১৫ মার্চ পর্যন্ত সময় বাড়ানো হয়। সুনামগঞ্জে এবার ৪২টি হাওরের ফসল রক্ষায় ৫৭২টি প্রকল্পে বাঁধের কাজ হচ্ছে। এ জন্য বরাদ্দ আছে ৯৭ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। সুনামগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সুনামগঞ্জে এবার ২ লাখ ২৪ হাজার ৪০০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছে। ধানের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১৩ লাখ ১৪ হাজার ৫৮০ মেট্রিক টন। বাঁধ পরিদর্শনের সময় প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদুল ইসলাম, যুগ্ম সচিব মন্টু কুমার বিশ্বাস, পানিসম্পদ উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মাহফুজুর রহমান, সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবদুল আহাদ, স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মো. এমরান হোসেন, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভূঁইয়া, নির্বাহী প্রকৌশলী খুশি মোহন সরকার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। আরকে//

দিনদিনই পর্যটকদের ভীড় বাড়ছে বিছানাকান্দি (ভিডিও)

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যরে আধার সিলেটের সীমান্তবর্তী এলাকা বিছনাকান্দি। শুধু সিলেট নয় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এখানে আসেন দর্শনার্থীরা, দিনদিনই বাড়ছে পর্যটকদের ভীড়। বিছানাকান্দির পাহাড় ঘেরা জলরাশি মন ভরিয়ে দেয় পর্যটকদের। তবে জায়গাটির সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতায় প্রশাসনের নজরদারি আর উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার প্রয়োজন। পাহাড়, ঝরনা আর পাথরের রাজ্য সিলেটের সীমান্তবর্তী এলাকা বিছনাকান্দি। বিছনাকান্দির এখানে ওখানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে পাথর আর পাথর, দেখে যেনো মনে হয় পাথরের বিছানা। সঙ্গে আছে ঝরনা থেকে নেমে আসা স্বচ্ছ পানির ধারা, যা ভুলিয়ে দেয় নাগরিক সব ক্লান্তি। অনেকেই ছুটি পেলে পরিবার পরিজন নিয়ে ছুটে আসেন স্বচ্ছ শীতল পানির জায়গাটিতে। আনন্দ-উল্লাসে নিজের মতো করে সময় কাটান তারা। বিছনাকান্দির অপরূপ সৌন্দর্য মুগ্ধ করে যে কাউকে। তবে পর্যটক সংখ্যা বাড়ায় জায়গাটির পরিবেশ এখন হুমকির মুখে। নেই রক্ষানাবেক্ষণ আর সরকারী তদারকী। একইসাথে যোগাযোগ ব্যবস্থাও ভালো না। বিছনাকান্দিতে যেতে সিলেটের গোয়াইন ঘাট থেকে হাদারপাড় যেতে হয় সড়ক পথে। এরপর নৌপথে যেতে হয় পাথর-পানি পাহাড় মেঘের সেই রাজ্যে। বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে : এসএ/      

সুনামগঞ্জে আ.লীগ নেতা খুন

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলায় আওয়ামীলীগ নেতা জয়নাল মিয়াকে (৫০) ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টায় উপজেলার ধলাইপাড় গ্রাম থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সদর থানার ওসি মো. শহীদুল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহত জয়নাল মিয়া সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। সে ইসলামপুর গ্রামের মুসলেম উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে সেলিম মিয়া (২৬), শাহীন (৪০), ইসলামপুরের সাগর মিয়া (১৭) এবং জগন্নাথপুর উপজেলার রবি (২৫) নামে ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকালে ধলাইপাড়ের শওকত মিয়া তার বাড়ির আম গাছের নীচে জয়নাল মিয়ার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে ফোন দেন। পরে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে। ওসি মো. শহীদুল্লাহ জানান, জয়নাল মিয়ার শরীরের ৩ স্থানে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। এ ঘটনায় আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে নিহতের কারণ জানা যাবে বলে জানান ওসি। একে//

সুনামগঞ্জে কৃষকরা নির্মাণ করলেন সড়ক (ভিডিও)

সরকারী অর্থায়নে ফসল তোলার ডুবো সড়ক নির্মাণ না হওয়ায়, নিজেদের উদ্যেগে তিন কিলোমিটার পাঁকা সড়ক নির্মান করেছে, সাধারণ কৃষকরা। তারা বিশ্বাস করে, যথাযথ কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তবেই পুরো সড়কটি চলাচলের উপযোগী করে নির্মান সম্ভব হবে। বিস্তির্ণ হাওরে, আরসিসি ঢালাইয়ের একটি পাকা সড়ক। ফসল তোলার প্রায় ১৩ শ ফুটের এই্ ডুবো সড়কের নির্মান হয়েছে, সাধারণ কৃষকের উদ্যেগে। পাঁচ গ্রামের মানুষ ধান দিয়ে চাঁদা, জলাধারের মাছ বিক্রি’র টাকায় রড, সিমেন্ট আর নিজেরদের অক্লান্ত শ্রমে এ নির্মাণ এগিয়ে নিয়েছে দুই বছরে। চাহিদার তুলনায় প্রচেষ্ঠাটি নেহায়ত নগন্য মনে হওয়াই স্বাভাবিক। এত কিছুর পরও, বিভিন্ন দফতরে ধর্ণা দিয়ে, সাড়া না পেয়ে, এ ব্যতিক্রমী পথে গেছে, সুনামগঞ্জ জগন্নাথপুরের ‘নলুয়ার হাওর’ এর কৃষকরা। ভরা মৌসুমে ভাঙ্গা আর কাঁদা পানিতে চলাচলে অনুপযোগী হওয়ায়,  বোরো ধান ঘরে তুলতে পারতো না, কৃষকরা। কষ্টের সোনার ফসল অবলিলায় নষ্ট হতো, মাঠে প্রান্তরে। সরোজমিনে ঘরে দেখা গেল, স্থানে স্থানে ভাঙ্গা, উচু নিচু এ সড়ক শুষ্ক কালে চলাচলে অবস্থায় নেই। ধান কাঁটা মাড়া ও তোলার মৌসুমেই দূর্ভোগ পৌছে আরো চরমে। হাজার হাজার মন ধান উৎপাদিত হওয়া এই হাওরে কৃষকের মুখে মুখে হিসেব প্রচলিত আছে, পুরো এক সপ্তাহের খাবারের যোগান আসে এই্ হাওর থেকেই। বিস্তারিত দেখতে ক্লিক করুন ভিডিওতে : এসএ/এসইউ

প্রকৌশলী গ্রেফতারে ইউএনও`র বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার মানহানির মামলা

হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার মানহানির মামলা দায়ের হয়েছে। হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুলতান উদ্দিন আহমেদ প্রধানের আদালতে বুধবার (১৩ মার্চ) দুপুরে মামলাটি দায়ের করেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের বাহুবল উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম মো. মহিউদ্দিন চৌধুরী। মামলায় ইউএনও’র অফিস সহকারী হরিপদ দাসসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুই/তিনজনকে আসামি করা হয়েছে। তবে মামলাটি গ্রহণ করলেও তাৎক্ষণিক কোনো আদেশ দেননি আদালত। মামলায় বাদী উল্লেখ করেন, ৬ মার্চ দুই লাখ টাকার বিলের একটি চেকে সই করার জন্য ইউএনও তার অফিস সহকারী হরিপদ দাশকে দিয়ে উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম মো. মহিউদ্দিন চৌধুরীর কাছে পাঠান। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র উপস্থাপন না করায় তিনি চেকে সই দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এ সময় অফিস সহকারী হরিপদ তাকে বলেন, ইউএনও নির্দেশ দিয়েছেন চেকটি সই করার জন্য। কিন্তু তাতেও প্রকৌশলী রাজি হননি। পরে অফিস সহকারী চেক সই না দেওয়ার কথা ইউএনও জসিম উদ্দিনকে জানান। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে আরও কয়েকজনকে নিয়ে প্রকৌশলীর কক্ষে গিয়ে নিজেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে তাকে গ্রেফতারের আদেশ দেন। পরে তাকে ইউএনও’র কক্ষে নিয়ে আটক রাখা হয়। খবর পেয়ে হবিগঞ্জ এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী শেখ মো. আবু জাকির সেকান্দর বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানান। এরপরে মুচলেকা দিয়ে উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম মো. মহিউদ্দিন ছাড়া পান। এ ঘটনায় প্রকৌশলী নিজের ও তার বিভাগের কমপক্ষে ১০ কোটি টাকার মানহানি হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করেন। উল্লেখ্য, প্রকৌশলীকে আটক করার বিষয়টি বিভিন্ন স্থানে জানাজানি হলে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের প্রকৌশলীরা। তারা ইউএনও’র বিচার দাবিতে সারাদেশে মানববন্ধন করেন এবং এ ঘটনার বিচার ও তাকে প্রত্যাহারের দাবি জানান। মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বাদীপক্ষের আইনজীবী নিলাদ্রী শেখর পুরকায়স্থ টিটু বলেন, একজন সরকারী কর্মকর্তা আরেকজন সরকারী কর্মকর্তার সঙ্গে এমন আচরণ করতে পারেন না। এটি যেমন আইনবিরোধী, তেমনি সরকারি চাকরি নীতিমালাবিরোধী। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন বলেন, প্রকৌশলী যা করছেন তা মিথ্যাচার। তিনি কর্মচারীকে মারধর করেছিলেন। তিনি একজন মাদকসেবী, বেপরোয়া চলাফেরা করেন। আমি বিষয়টি নিয়ে বিচলিত নই। আইনি বিষয় আইনগতভাবেই মোকাবেলা করবো। আরকে//

মৌলভীবাজারে হাতির আক্রমণে যুবক নিহত

মৌলভীবাজারে মনিলাল দেবনাথ (২৭) নামে এক যুবককে শনিবার রাত ১১টায় বাড়ির পাশে বাঁধা একটি হাতিশুঁড় দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে। নিহত মনি মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার গন্ধর্বপুর গ্রামের মঞ্জু দেবনাথের ছেলে। গ্রামের বাসিন্দা প্রত্যক্ষদর্শী চন্দন ভট্টাচার্য্য  জানান, অজ্ঞাত এক মাউত হাতিটিকে মনিলালের বাড়ির পাশে একটি গাছে বেঁধে বাজারে যায়। এ সময় মনি হাতিটিকে দেখতে গেলে হাতিশুঁড় দিয়ে তাকে টেনে নিয়ে আঁচড়ে মেরে ফেলে। এ অবস্থায় মনিকে শ্রীমঙ্গল সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।   শ্রীমঙ্গল  থানার ওসি কে এম নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, মনি মৌলভীবাজারে  একটি মুদি দোকানে চাকরি করতো। সে কাকাতো বোনের বিয়েতে বাড়ি এসেছিল। কেআই/

মৌলভীবাজারে জাতীয় পাট দিবস পালিত

সোনালী আঁশের সোনার দেশ, জাতির পিতার বাংলাদেশ- এই স্লোগানকে সামনে রেখে র‌্যালী ও আলোচনা সভার মধ্যে দিয়ে মৌলভীবাজারে জাতীয় পাট দিবস পালিত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আশরাফুর রহমানের নেতৃত্বে র‌্যালীটি শহর প্রদক্ষিণ করে পুণরায় একই জায়গায় এসে শেষ হয়। এতে প্রশাসনের কর্মকর্তা ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন অংশ নেয়। পরে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে এ অঞ্চলে পাটের উৎপাদন কিভাবে বাড়ানো যায় এ নিয়ে বক্তব্য রাখেন উপস্থিত নেতৃবৃন্দ। কেআই/

প্রেমের টানে সিলেটে এবার ব্রাজিলিয়ান তরুণী

ধর্ম, সমাজ, রাষ্ট্র ও সংস্কৃতিসহ সব বাধা অতিক্রম করে সুদূর ব্রাজিল থেকে প্রেমের টানে সিলেটে উড়ে এলেন লুসি ক্যালেন নামে ২৯ বছরের এক ব্রাজিলিয়ান তরুণী। এরপর ঘর বাঁধেন সিলেটের জকিগঞ্জের বিলপাড় গ্রামের সাহেদ আহমদের (২৯) সঙ্গে। বর্তমানে সাহেদ আনসার সদস্য হিসেবে কর্মরত আছেন। জানা গেছে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাদের পরিচয়। প্রায় দেড় বছর ধরে কথা বলতে বলতে প্রেম। সেই প্রেমের টানে ব্রাজিলের লুসি ক্যালেন (২৯) ছুটে এসেছেন বাংলাদেশে। গত ২০ ফেব্রুয়ারি ১৫ দিনের ভিসা নিয়ে ব্রাজিল থেকে লুসি ক্যালেন সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পা রাখেন। সেখানে ভালোবাসার মানুষকে স্বাগত জানাতে হাজির হন সাহেদ। পরের দিন সিলেটের আদালত পাড়ায় হাজির হন সাহেদ ও লুসি। ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে মুসলিম রীতিতে সাহেদের সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন লুসি। এই বিয়ের দেনমোহর ৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা। নতুন এই লুসি-সাহেদ দম্পতিকে দেখতে প্রতিদিনই ভিড় করছে বিভিন্ন এলাকার মানুষ। লুসির সঙ্গে কীভাবে পরিচয় এমন প্রশ্নের জবাবে সাহেদ বলেন, ফেসবুকে পরিচয় হয়েছে লুসির সঙ্গে। কথা বলতে বলতে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রথমে আমি তেমন ইংরেজি জানতাম না। ইন্টারনেটে বাংলা থেকে ট্রান্সলেট করে মেসেজ করতাম। একপর্যায়ে চর্চা করতে করতে ইংরেজি আয়ত্তে চলে আসে। এর পর থেকে ইংরেজিতে লুসির সঙ্গে কথা বলতাম। তার বাবা-মায়ের সঙ্গেও কথা বলেছি। এ বিষয়ে লুসি ক্যালেন বলেন, বাবা-মায়ের অনুমতি নিয়েই সাহেদকে বিয়ে করতে আমি বাংলাদেশে এসেছি। আমার বাবা মায়েরও আসার কথা ছিল কিন্তু ভিসা জটিলতার কারণে তারা আসতে পারেনি। তিনি বলেন, বাংলাদেশের আবহাওয়া অনেক ভালো। এদেশে স্থায়ীভাবে থাকার ইচ্ছা আছে। আগামী ৭ মার্চ ব্রাজিলের উদ্দেশে রওনা হব। স্বামীকে ছেড়ে চলে যাব এটা ভাবতে খারাপ লাগছে। ভবিষ্যতে লম্বা ছুটি নিয়ে বাংলাদেশে আসব, সে কথা ভেবে ভালো লাগছে। এর আগে ২০১৮ সালের ৫ নভেম্বর প্রেমের টানে বাংলাদেশের লাকসামে ছুটে এসেছিলেন জুলিয়ানা নামের ২৫ বছর বয়সী এক ব্রাজিলিয়ান তরুণী। এরপর ঘর বাঁধেন লাকসাম উপজেলার গোবিন্দপুর ইউপির দোখাইয়া গ্রামের আবুল খায়েরের ছোট ছেলে বাহরাইন প্রবাসী আবদুর রব হিরুর সঙ্গে। যদিও প্রেমের টানে বাংলাদেশে ছুটে আসা তরুণ-তরুণীর ঘটনা এর আগেও অনেক ঘটেছে। আরকে//

হবিগঞ্জে মাটিচাপায় নিহত ১

হবিগঞ্জের গরুর বাজার এলাকায় খোয়াই নদীর চরে মাটিচাপায় জনি মিয়া (২৫) নামে এক শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও চারজন। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। সদর থানার এসআই সাহিদ মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহত জনি মিয়া সদর উপজেলার রিচি গ্রামের তৈয়ব আলীর ছেলে বলে জানা গেছে। এসআই সাহিদ মিয়া বলেন, শনিবার সকালে জনিসহ পাঁচ-ছয়জন শ্রমিক গরুর বাজার এলাকায় খোয়াই নদীর চরে মাটি তুলছিলেন। মাটি তুলতে তুলতে গর্তের ভেতরে ঢুকে পড়েন তারা। এক পর্যায়ে ওপর থেকে মাটি ধসে পড়লে তারা মাটির নিচে চাপা পড়েন। পরে স্থানীয় লোকজন গিয়ে তাদের উদ্ধার করার আগেই ঘটনাস্থলে জনির মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় আহত দুইজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া আরও দুইজনকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানান এসআই। একে//

সুরমা নদী থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

সুনামগঞ্জ শহরতলীর গৌরারং ইউনিয়নের গুচ্ছগ্রামের পাশে সুরমা নদী থেকে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম নির্জণ বর্মণ (২৫)। সে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের ওয়েজখালী (নতুন বাসস্টেশন) এলাকার বাসিন্দা ও নিপেন্দ্র বর্মণের ছেলে। বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টায় স্থানীয় লোকজন সুরমা নদীতে একটি লাশ ভেসে উঠতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহীদুল্লাহ ও ওসি তদন্ত মো.আব্দুল্লা আল মামুনের নেৃতত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।  স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল (মঙ্গলবার) রাতে অতিরিক্ত মদ পান করে নদী পারাপারের সময় পানিতে পড়ে গিয়েই তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে পুলিশ ধারনা করছে। এ ব্যাপরে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহীদুল্লাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, যুবকটি মাদক সেবনকারী হওয়ার কারণেই অতিরিক্ত মদ পান করে নদী পারাপারের সময় নদীতে পড়ে পানির নীচে তলিয়ে গিয়েই তার মৃত্যু হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে তবে ময়না তদন্ত শেষে পুরো ঘটনাটি বলা যাবে। কেআই/

সুরমা নদী থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

সুনামগঞ্জ শহরতলীর গৌরারং ইউনিয়নের গুচ্ছগ্রামের পাশে সুরমা নদী থেকে নির্জন বর্মণ (২৫) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত যুবক সুনামগঞ্জ পৌর শহরের ওয়েজখালী (নতুন বাসস্টেশনের পেছনে) এলাকার বাসিন্দা ও নিপেন্দ্র বর্মণের ছেলে। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় স্থানীয় লোকজন সুরমা নদীতে একটি লাশ ভেসে উঠতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহীদুল্লাহ ও ওসি (তদন্ত) মো. আব্দুল্লা আল মামুনের নেৃতত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।  স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সে গতকাল মঙ্গলবার রাতে অতিরিক্ত মদ পান করে নদী পারাপারের সময় পানিতে পড়ে গিয়েই তার মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে পুলিশ ধারণা করছে। এ ব্যাপরে সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শহীদুল্লাহ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। বলেন, যুবকটি মাদক সেবনকারী হওয়ার কারণেই অতিরিক্ত মদ পান করে নদী পারাপারের সময় নদীতে পড়ে পানির নিচে তলিয়ে গিয়েই তার মৃত্যু হয় বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। একে//

সুনামগঞ্জে বাঁধ নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগে আটক ৭

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বিভিন্ন হাওরে ফসল রক্ষা বাধঁ নির্মাণে অনিয়ম ও কাজে গাফিলতির অভিযোগে ৩টি পিআইসির (প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি) সাত সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ফসল রক্ষা বাধঁ তদারক কমিটির সভাপতি মো. সাইফুল ইসলাম বাঁধ নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে গিয়ে অনিয়ম ও গাফিলতির অভিযোগে পিআইসির সদস্যদের আটক করার নির্দেশ দিলে পুলিশ তাদের আটক করে নিয়ে আসে। আটককৃতদের মধ্যে তাহিরপুর উপজেলার ৩৮নং পিআইসি’র সভাপতি সিরাজুল ইসলাম শাহ, জামাল আখঞ্জি, ৪৬নং পিআইসি’র সভাপতি মজনু শাহ, মনসাদ মিয়া, ৪৭নং পিআইসি’র সভাপতি মিজানুর রহমান, সদস্য সচিব তোফাজ্জল হোসেন ও হুমায়ুন কবিরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ সময় তাহিরপুর থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর, এসআই আমির হোসেনসহ উপজেলা ও থানা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সাইফুল ইসলাম আটকের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত নিশ্চিত করে জানান আটককৃতদের বিরুদ্ধে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। হাওরের ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণে কোন ধরনের অনিয়ম, দুর্নীতি সহ্য করা হবে না বলেও জানিয়েছেন। যারাই এ ধরনের অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসএইচ/

সুনামগঞ্জে সেচ দেয়া নিয়ে সংঘর্ষে নারীসহ আহত ৪০

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের আনোয়ারপুর গ্রামে বোরো জমিতে সেচ দেয়াকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষ ও বাড়িঘরে হামলায় নারীসহ উভয়পক্ষের ৪০ জন আহত হয়েছে। আহতদের সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও সুনামগঞ্জ ও দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে পাঠানো হয়েছে। আজ বুধবার দুপুর ১২টায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে দিরাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,আনোয়ারপুর গ্রামের সৈকত মিয়ার লোকজন পাশের বোরো জমিতে পানি সেচ দিতে গেলে একই গ্রামের টিপু মিয়ার লোকজন বাধাঁ দেয় এবং কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে টিপু মিয়া ও তার লোকজন সৈকত মিয়ার লোকজনের উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় এতে উভয় পক্ষের ৪০ জন আহত হলেও সৈকত মিয়ার লোকজন বেশী আহত হয়েছেন বলে জানা যায়। পরে প্রতিপক্ষরা সৈকত মিয়ার লোকজনের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এ সময় কয়েকজন নারীও আহত হন বলে জানান যায়। আহতরা হলেন সৈকত মিয়ার পক্ষে আনোয়ারপুর গ্রামের মোঃ আবুল হোসেনের ছেলে মোঃ সমুজ মিয়া(৫০),আবু তাহের(৩০) পিতা অঞ্জাত,তার সহোদর রিয়াছত আলী(৪০),ইনতাজ মিয়ার ছেলে জাহাঙ্গীর মিয়া(৪৫),তার সহোদর নাসির মিয়া(৩৫),কেরামত আলীর ছেলে সফর আলী(৩০),মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে সফর আলী(৩০),আজিজুল হকের ছেলে মোঃ আবুল লেইছ(৩০),সুরুজ আলীর ছেলে মোঃ সালেহ আহমদ(২৬)। বাকি আহতদের তাৎক্ষনিক নাম ও পরিচয় জানা যায়নি। এদের মধৌ মোঃ সমুজ আলী,রিঢাছত আলী ও আবু তাহেরের অবস্থা আশংঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের কে দ্রুত নিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোস্তফা কামাল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আরকে//

টাঙ্গুয়ার হাওরে কমেছে পরিজায়ি পাখি (ভিডিও)

পর্যটকদের আনাগোনায় মুখর সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওড়। তাদের মূল আকর্ষণ অতিথি পাখি। তবে, হাওড়ে এই মৌসুমে আসেনি আগের মত পরিজায়ি পাখি। শিকারীদের তৎপরতা আর সীমান্তে ওপার থেকে রাতে সার্চ লাইটের আলো ফেলায় পাখিদের আনাগোনা কমে গেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। দেশে অন্যতম অতিথি পাখির অভয়াশ্রম টাঙ্গুয়ার হাওর। শীতে এ হাওরে সাইবেরিয়া, চীন, হিমালয়, ভারত, থাইল্যান্ডসহ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জড়ো হতো ২১৯ প্রজাতির পাখি। কিন্তু এ বছর হাওরে অতিথি পাখিদের বিচরন কমে যাওয়ায় পর্যটকরা হতাশ। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, অতিথি পাখি আসা কমে যাবার কারণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পরিবেশ আর টাঙ্গুরা হাওড়ের শীতের অন্যতম আকর্ষন রক্ষায় দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি পর্যটক ও স্থানীয়দের। দেখুন বিস্তারিত ... এসএ/  

চার আসামির ফাঁসির রায়

চার বছর আগে সুনামগঞ্জের ছাতকে শিশু শ্রেণির ছাত্র মোস্তাফিজুর রহমান ইমনকে অপহরণের পর হত্যার দায়ে চার আসামির ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত।সিলেট দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রেজাউল করিম আজ বুধবার এ রায় ঘোষণা করেন।দণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামি ছাতকের ব্রাহ্মণজুলিয়া গ্রামের মসজিদের ইমাম সুয়েবুর রহমান সুজন (২৮), নোয়ারাই গ্রামের জায়েদ আহমদ (২৭) ও রফিকুর রহমান (৩৩)। তারা রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন।অপর আসামি বাতিরকান্দি গ্রামের সালেহ আহমদ (২৪) মামলার শুরু থেকেই পলাতক।সর্বোচ্চ সাজার পাশাপাশি চার আসামির প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন বিচারক। ছাতক উপজেলার নোয়ারাই ইউনিয়নের বাতিরকান্দি গ্রামের সৌদি প্রবাসী জহুর আলীর ছেলে ইমন লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট কারখানার কমিউনিটি বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণিতে পড়ত।মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৭ মার্চ আসামিরা ইমনকে অপহরণের পর তার পরিবারের কাছে মুক্তিপণ দাবি করে। কিন্তু তা না পাওয়ায় শিশুটিকে তারা হত্যা করে।ওই বছরের ৮ এপ্রিল মোবাইল ফোন ট্র্যাক করে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা কদমতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ইমাম সুয়েবুর রহমান সুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।পরে তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরি, বিষের বোতল ও রক্তমাখা কাপড় উদ্ধার করা হয়। বাতিরকান্দি হাওড় থেকে উদ্ধার করা হয় ইমনের মাথার খুলি ও হাতের হাড়।এ ঘটনায় ইমনের বাবা জহুর আলী ছাতক থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে ২০১৬ সালের ২১ নভেম্বর চার আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন তদন্ত কর্মকতা মঞ্জুর মোর্শেদ।বাদীপক্ষে ২৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ এবং যুক্তিতর্ক শেষে গত ৫ জানুয়ারি মামলাটি রায়ের পর্যায়ে আসে। এসএ/  

সিলেটে বাস-অটোরিকশা সংঘর্ষে নিহত ২

সিলেটে যাত্রীবাহি বাস ও সিএনজি অটোরিকশার সংঘর্ষে দুইজনের প্রাণ গেছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। নিহতরা সম্পর্কে নানি ও নাতনি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেট-ফেঞ্চুগঞ্জ সড়কের হাজিগঞ্জ বাজারের ধরমতলা নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- সিলেটের ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম মল্লিকপুর গ্রামের আহসান মিয়ার স্ত্রী ফরিদা বেগম (৪৫) ও তার নয় মাস বয়সী নাতনী ও সেলিম মিয়ার নয় মাস বয়সী শিশু কন্যা আফরোজা বেগম তিশা। এসএমপির মোগলাবাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, সিএনজি অটোরিকশাটি সিলেট শহর থেকে ফেঞ্চুগঞ্জের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিল। ঘটনাস্থলে যাওয়ামাত্র বিপরীতগামী মিনিবাসের সঙ্গে সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে ফরিদা বেগম মারা যান। গুরুতর অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক। দুর্ঘটনার পর আহতাবস্থায় অটোরিকশা চালক পালিয়ে যায় বলে জানান ওসি। একে//

সিলেটে সপ্তাহব্যাপী সংগীতবিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন

সিলেটে সপ্তাহব্যাপী সংগীতবিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা ২০১৯ সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে প্রশিক্ষণ শুরু হয় ২৮ জানুয়ারি। রোববার জেলা শিল্পকলা একাডেমি প্রশিক্ষণ কক্ষে সমাপনি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সিলেটে সপ্তাহব্যাপী সংগীতবিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে জেলা কালচারাল অফিসার অসিত বরণ দাশ গুপ্তের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম। কর্মশালায় প্রশিক্ষণ প্রদান করেন একাডেমির প্রশিক্ষক মীন আরা পারভীন। একাডেমির প্রশিক্ষণার্থী নাফিসা তানজীন ও সানজানা ইসলাম স্বর্ণার উপস্থাপনায় প্রশিক্ষণার্থীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন, সুমাইয়া ইসলাম শোভা ও শুভ্রদীপ দাস শুভ। এরপর কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী প্রশিক্ষণার্থীরা সংগীত পরিবেশন করেন। সবশেষে প্রধান অতিথি কর্মশালায় সফলভাবে অংশগ্রহণের জন্য প্রশিক্ষণার্থীর হাতে সনদপত্র তুলে দেন।   কেআই/এসএইচ/

হাকালুকিতে ২০ হাজার পাখি কমেছে

এশিয়ার বৃহত্তম হাওর মৌলভীবাজারের হাকালুকি। হাওরটিতে গত দুই বছরে ২০ হাজার ৩৫০টি পাখি কমেছে। এ বছর ৫১ প্রজাতির ৩৭ হাজার ৯৩১টি জলচর পাখির সন্ধান পাওয়া গেছে। এর আগে ৩৩ প্রজাতির যে ৩৭০টি পাখিকে বার্ড রিংগিং করা (পাখির পায়ে রিং লাগানো) হয়েছিল এবার তার একটিরও সন্ধান পাওয়া যায়নি। বাংলাদেশ বার্ড ক্লাব, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার’র (আইইউসিএন) জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। গত ২৬-২৭ জানুয়ারি হাকালুকি হাওরে ৪০টি বিলে পাখি শুমারি শেষ হয়। গতকাল সোমবার বিকেলে আইইউসিএন তাদের প্রতিবেদন প্রকাশ করে। হাওরে হুমকির মুখে আছে এমন ৬ প্রজাতির পাখি পাওয়া গেছে এ শুমারিতে। সেগুলো হলো- মহাবিপন্ন বেয়ারের ভুতিহাঁস, সংকটাপন্ন পাতি-ভুতিহাঁস ও বড় গুটিঈগল এবং প্রায় সংকটাপন্ন মরচেরঙ-ভুতিহাঁস, ফুলুরি-হাঁস ও কালামাথা-কাস্তেচরা। পাখি সমৃদ্ধ বিলের মধ্যে নাগুয়াধলিয়া বিল প্রথম দিন ৮ হাজার ৬৭৬টি পাখি। দ্বিতীয় দিন চ্যাতলা বিলে ৫হাজার ৩২৭টি পাখি। জলচর পাখিদের মধ্যে মাত্র ৪০৫টি সৈকতপাখি ছিল। পরোতি, বালিজুড়ি, নাগুয়াধলিয়া বিলে বিষটোপ দিয়ে মারা পাখি পাওয়া গেছে। হাওয়াবন্যা, কালাপানি, রঞ্চি, দুধাই, গড়কুড়ি, চোকিয়া, উজান-তরুল, ফুট, হিংগাউজুড়ি, নাগাঁও, লরিবাঈ, তল্লার বিল, কাংলি, কুড়ি, চেনাউড়া, পিংলা, পরোটি, আগদের বিল, চেতলা, নামা-তরুল, নাগাঁও-ধুলিয়া, মাইছলা-ডাক, চন্দর, মালাম, ফুয়ালা, পলোভাঙা, হাওড় খাল, কইর-কণা, মোয়াইজুড়ি, জল্লা, কুকুরডুবি, বালিজুড়ি, বালিকুড়ি, মাইছলা, গড়শিকোণা, চোলা, পদ্মা, কাটুয়া, তেকোণা, মেদা, বায়া, গজুয়া, হারামডিঙা, গোয়ালজুড় হাকালুকি হাওরের এই ৪০টি বিলে পাখিশুমারি অনুষ্ঠিত হয়। একে//

সিলেটে বিজিবি-চোরাচালানিদের গোলাগুলি, কিশোর নিহত

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায় বিজিবি ও চোরাকারবারিদের মধ্যে গুলিবিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে সিরাজ আহমদ (১৫) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। এ সময় বিজিবির চার সদস্যও আহত হয়েছেন বলে বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। সোমবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার সনাতনপুঞ্জি সীমান্তে এ ঘটনা ঘটে। কানাইঘাট থানার ওসি আব্দুল আহাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত সিরাজ আহমদ সনাতনপুঞ্জি গ্রামের আব্দুল মুতলিবের ছেলে বলে জানা গেছে। ওসি আব্দুল আহাদ জানান, সোমবার সন্ধ্যায় সুরইঘাট বিজিবি ক্যাম্পের একটি দল সীমান্তবর্তী সুনাতনপুঞ্জি এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় ভারত থেকে চোরাকারবারীদের আনা ২৫ কার্টন বিদেশি ব্র্যান্ডের সিগারেট জব্দ করেন। এ সময় শতাধিক চোরাকারবারী একত্রিত হয়ে সিগারেট ছিনিয়ে নিতে বিজিবির উপর পাথর ও গুলি ছুড়ে হামলা চালালে আত্মরক্ষার্থে বিজিবি সদস্যরা গুলি ছোড়ে। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায় সিরাজ আহমদ নামের ওই কিশোর। নিহত সিরাজের বাবা আব্দুল মুতলিব সাংবাদিকদের জানান, সোমবার বিকালে সিরাজকে সুরইঘাট বাজারে কেনাকাটা করতে পাঠিয়েছিলেন তিনি। সন্ধ্যার পরে তিনি তার ছেলের মৃত্যুর খবর পান। একে//

ক্যানসার প্রতিরোধক ‘লাল ভুট্টা’ উদ্ভাবন বাংলাদেশি বিজ্ঞানীর

সাধারণ ভুট্টার সঙ্গে জিনগত পরিবর্তন করে বিভিন্ন রং তৈরি করে এর জেনিটিক্যালি মডিফাইড করে ‘রঙিন ভুট্টা’ উদ্ভাবন করেছেন বাংলাদেশি জিন বিজ্ঞানী ড. আবেদ চৌধুরী। লভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার এই কৃতী সন্তান গতকাল রোববার এক মতবিনিময় সভায় এই তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে হাফিজা-১, জালালিয়া, তানহা ও ডুম- এই চার জাতের ধানের উদ্ভাবন করেন এই বিজ্ঞানী। ড. আবেদ চৌধুরী বলেন, ধান ও গমের তুলনায় ভুট্টায় পুষ্টিমাণ অনেক বেশি। ভুট্টায় ক্যারোটিন থাকার কারণে মূলত এর রং হলুদ হয়। তাই আমি রঙিন ভুট্টার ক্লোন উদ্ভাবন করেছি। তাৎপর্যের বিষয় হলো, এই ভুট্টা ক্যানসার প্রতিরোধক। বিজ্ঞানী ড. আবেদ চৌধুরী বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) সঙ্গে বিভিন্ন ধরনের গবেষণামূলক কাজ করার অনুমতি পেয়েছেন। এই গবেষণা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে তিনি দেশে বরাবর আবাদ হয়ে আসা ভুট্টার জিনগত পরিবর্তন ঘটিয়ে রঙিন ভুট্টার প্রজাতি উদ্ভাবন করেছেন। এই জিন বিজ্ঞানী জানান, নব উদ্ভাবিত এই রঙিন ভুট্টা বছরে চারবার চাষ করা যায়। আবার খরিপ-১ ও খরিপ-২ মৌসুমেও ভুট্টা চাষ করা যায়। হাইব্রিড ভুট্টা একটি পদ্ধতির মাধ্যমে বেরিয়ে আসতে পারে। বেরিয়ে আসা ভুট্টার ফলন হবে হাইব্রিডের সমান। কৃষকদের এই ভুট্টা চাষে উদ্বুদ্ধ করতে তিনি কুলাউড়া উপজেলার ভুট্টা চাষিসহ সফল কৃষকদের মাঝে ভুট্টার বীজ বিতরণ করেন। আবেদ চৌধুরী একজন জিন বিজ্ঞানী ও বিজ্ঞান লেখক। আধুনিক জীববিজ্ঞান নিয়ে গবেষণায় প্রথম সারির গবেষকদের অন্যতম একজন। পাশাপাশি কবিতাও লেখেন। ড. আবেদ চৌধুরী ১৯৮৩ সালে পিএইচডি গবেষণাকালে রেকডি নামের জেনেটিক রিকম্বিনেশনের একটি জিন আবিষ্কার করেন, যা নিয়ে আশির দশকে আমেরিকা ও ইউরোপে ব্যাপক গবেষণা হয়। বাংলাদেশের গর্ব এই বিজ্ঞানী-গবেষক অযৌন বীজ উৎপাদন (এফআইএস) সংক্রান্ত তিনটি নতুন জিন আবিষ্কার করেন, যার মাধ্যমে এই জিনবিশিষ্ট মিউটেন্ট নিষেক ছাড়াই আংশিক বীজ উৎপাদনে সক্ষম হয়। তার এই আবিষ্কার অ্যাপোমিক্সিসের সূচনা করেছে, যার মাধ্যমে পিতৃবিহীন বীজ উৎপাদন সম্ভব হয়। উপজেলা পরিষদের আয়োজনে এই সভায় স্থানীয় সফল কৃষক, সাংবাদিক ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। একে//

বিমানবন্দরে একাকী মুহিতের ছবি ভাইরাল

সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আজ শুক্রবার যখন সিলেটে ফিরলেন তখন তার হুইল চেয়ার ধরার মতোও ছিল না কেউ। সাবেক এপিএস জনিকে নিয়ে একা একাই ওসমানী বিমানবন্দর ত্যাগ করেন তিনি। অথচ মাত্র কয়েক দিন আগেও এই মন্ত্রীকে-ই ঘিরে নেতাকর্মীদের জটলা লেগেই থাকতো। ঢাকা থেকে সিলেট ফিরলে ভিড় লেগে থাকতো ওসমানী বিমানবন্দরে। ভিআইপি লাউঞ্জে পড়ে যেত হুড়োহুড়ি-ধাক্কাধাক্কি। গলা ফাটানো স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে উঠতো বিমানবন্দর এলাকা। মোটর শোভাযাত্রা সহকারে তাকে নিয়ে আসা হতো বাসায়। তার সিলেট যাওয়ার শোভাযাত্রায় অংশ নেওয়াটাই সবাই নিজেকে ভাগ্যের মনে করতো। রীতিমতো প্রতিযোগিতা চলতো। কিভাবে তার সুনজরে আসা যায়। কিন্তু মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে চিত্র অন্যরকম। বাসাই ফিরতে হয় একাই হুইল চেয়ারে চড়ে। গেল মন্ত্রিসভার প্রভাবশালী মন্ত্রী মুহিতকে ঘিরে সবসময়ই আনাগোনা থাকতো সু-সময়ের বন্ধুদের। কিন্তু মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়তে না পড়তেই তারাও ভুলে গেছেন মুহিতকে। আজ শুক্রবার বেলা একটা ৫০ মিনিটের সময় নভোএয়ারের একটি ফ্লাইটে ঢাকা থেকে সিলেট যান আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিমান থেকে নেমে হুইল চেয়ারে করে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ভিআইপি লাউঞ্জে। জনশূন্য ভিআইপি লাউঞ্জ তখন অনেকটা অপরিচিতই মনে হচ্ছিল মুহিতের কাছে। চিরচেনা পরিচিতমুখগুলো দেখতে না পেয়ে অনেকটা হতাশই মনে হচ্ছিল সাবেক এই অর্থমন্ত্রীকে। এতদিন যাদেরকে ‘কাছের মানুষ’ হিসেবে জানতেন তাদের মুখোশের অন্তরালের চেহারাটা হয়তো তখন ভাসছিল তার মনোচোখে! তবে তথাকথিত সেই ‘কাছের মানুষদের’ মধ্যে একমাত্র ব্যতিক্রম ছিলেন বাফুফের কার্যনির্বাহী সদস্য ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম। ভিআইপি লাউঞ্জের গেটে একমাত্র তিনিই স্বাগত জানান। পরে সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিত বিমানবন্দর থেকে চলে যান সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। সেখানে বসে দেখেন সিলেট সিক্সার্স ও ঢাকা ডায়নামাইটসের ম্যাচ। আরকে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি