ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৩:২০:১৫

৮ ডিসেম্বর: পিরোজপুর মুক্ত দিবস আজ

আজ ৮ ডিসেম্বর ২০১৮, পিরোজপুর মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এ দিনে পিরোজপুর পাকহানাদার, রাজাকার ও আলবদর মুক্ত হয়। এই দিনে ঘরে ঘরে উড়েছিল লাল সবুজের বিজয় পতাকা। পিরোজপুরের ইতিহাসে এ দিনটি বিশেষ স্মরণীয় দিন। মুক্তিযুদ্ধের সময় পিরোজপুর ছিল মুক্তিযুদ্ধের নবম সেক্টরের অধীন সুন্দরবন সাব-সেক্টর মেজর জিয়াউদ্দিনের কমান্ডের আওতায়। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করার ১৮ ঘণ্টার মধ্যে পিরোজপুরের আওয়ামী লীগের নেতৃতাধীন মহকুমা সংগ্রাম পরিষদের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধারা অস্ত্রাগার ভেঙ্গে অস্ত্র গুলি নিয়ে প্রশিক্ষণ শুরু করে ও মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার প্রস্তুতি নেয়। ১৯৭১ সালের ৩ মে পিরোজপুরে প্রথম পাক বাহিনী প্রবেশ করে। শহরের প্রবেশদ্বার হুলারহাট নৌ-বন্দর থেকে পাকবাহিনীরা প্রবেশের পথে প্রথমেই তারা মাছিমপুর ও কৃষ্ণনগর গ্রামে শুরু করে হত্যাযজ্ঞ। তারপর ৮টি মাস স্থানীয় শান্তি কমিটির নেতা ও রাজাকারদের সহায়তায় বিভিন্ন এলাকায় মুক্তিযোদ্ধা, সংখ্যালঘু ও স্বাধীনতার স্বপক্ষের লোকজনদের বাড়ি-ঘরে আগুন দেয়া হয়। হত্যা করা হয় ৩০ সহস্রাধিক মুক্তিকামী নারী-পুরুষ শিশুকে। পিরোজপুরকে হানাদার মুক্ত করতে সুন্দরবনের সাব-সেক্টর কমান্ডার মেজর জিয়াউদ্দিনের নেতৃত্বে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল ৭ ডিসেম্বর রাত ১০টায় পিরোজপুরের দক্ষিণপ্রান্ত পাড়েরহাট বন্দর দিয়ে শহরে প্রবেশ করতে থাকে। মুক্তিবাহিনীর এ আগমনের খবর পেয়ে পাক হায়নারা শহরের পূর্বদিকের কচা নদী দিয়ে বরিশালের উদ্দেশ্যে পালিয়ে যায়। এর আগে স্বরূপকাঠী পেয়ারা বাগানে মুক্তিযোদ্ধাদের গড়ে তোলা দূর্গে পাকবাহিনী আক্রমণ করলে মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে কয়েকজন পাক সেনা নিহত হয়। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা আক্রমণে পাকবাহিনী পর্যুদস্ত হতে থাকে। অবশেষে ৮ ডিসেম্বর পিরোজপুর ছেড়ে তারা পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকবাহিনী ও তাদের দোসররা পিরোজপুর অঞ্চলে প্রায় ৩০ হাজার মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করে। সম্ভ্রম লুটে নেয় প্রায় কয়েক হাজার মা-বোনের। পিরোজপুর মুক্ত দিবস উদযাপন পরিষদ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। সকাল সাড়ে ৯ টায় টাউন ক্লাব স্বাধীনতা চত্বর থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা শেষে শহীদ ভাগিরথী চত্বরে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্তম্ভে শ্রদ্ধা নিবেদন ও স্বাধীনতা মঞ্চে স্মৃতিচারণ। সন্ধ্যা ৬টা ১ মিনিটে মোমবাতি প্রজ্জলন ও আলোর মিছিল। এছাড়া উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সন্ধ্যা ৭ টায় টাউন ক্লাব স্বাধীনতা মঞ্চে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। সূত্র: বাসস একে//

৮ ডিসেম্বর : বরিশাল মুক্ত দিবস আজ

আজ ৮ ডিসেম্বর। বরিশাল মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর কবল থেকে বরিশাল মুক্ত হয়েছিল। ‘জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগান দিয়ে সে দিন মুক্তিযোদ্ধারা বরিশাল মুখর করেছিলেন।১৯৭১-এর ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বরিশাল ছিল শত্রুমুক্ত। ১৭ এপ্রিল পাকিস্তানি বাহিনী আকাশপথে বরিশাল ও পটুয়াখালীতে হামলা চালায়। দ্বিতীয় দফা হামলা চালায় ২৭ এপ্রিল জল, স্থল ও আকাশপথে। এর আগেই সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে প্রতিষ্ঠা হয়েছিল স্বাধীন বাংলা সরকারের অস্থায়ী সচিবালয়। আওয়ামী লীগ ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সবাইকে নিয়ে এ সচিবালয় গঠিত হয়। এ ঘাঁটি থেকেই দেশের বিভিন্ন এলাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের অস্ত্র ও অর্থ সরবরাহ করা হতো। মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠিত করে ভারতে প্রশিক্ষণ নিতে পাঠানোর কাজও হতো এ সচিবালয় থেকে।৮ ডিসেম্বর দুপুরে পাকিস্তানি সেনা কর্মকর্তারা গানবোট, লঞ্চ, স্টিমারে বরিশাল থেকে গোপনে পালিয়ে যায়। তবে পাকিস্তানি কর্মকর্তাদের গোপনে পালানোর খবরটি জানাজানি হয়ে যায়। ভারতীয় বিমানবাহিনী দুপুর ২টায় বরিশালে হামলা চালায়। পাকিস্তানি দখলদারদের পালিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে বিকেল ৩টায় বরিশালের অদূরে অবস্থানরত সুলতান মাস্টার ও আবদুল মান্নানের নেতৃত্বাধীন মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল প্রবেশ করে শহরের নিয়ন্ত্রণ নেয়।বরিশাল মুক্ত দিবস পালনে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে সংগঠন কার্যালয়ে আজ সকাল সাড়ে ১০টায় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া উদীচী ও বরিশাল নাটকের উদ্যোগে বিকেল ৫টায় বিজয় বিহঙ্গ চত্বরে মোম প্রজ্বালন ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এসএ/

পটুয়াখালী-৩ : গোলাম মাওলা রনির মনোনয়ন বাতিল

হলফনামায় স্বাক্ষর না থাকায় পটুয়াখালী-৩ আসনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী গোলাম মাওলা রনির মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন জেলা রিটার্নিং অফিসার।আজ রোববার দুপুর ১২টায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের সময় এ ঘোষণা দেয়া হয়।এছাড়া বিএনপি মনোনীত অপর প্রার্থী মো. শাহজাহান খান ঋণ খেলাপী হওয়ায় তার মনোনয়নপত্রও বাতিল করা হয়েছে। তবে বিএনপি থেকে মনোনীত অপর প্রার্থী হাসান মামুনের মনোনয়ন বৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে।মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া প্রার্থীরা আগামী তিন দিনের মধ্যে নির্বাচন কমিশন বরারব আপিল করতে পারবেন বলে জানান জেলা রিটার্নিং অফিসার মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী।এসএ/

ঝালকাঠির ধানক্ষেতে যুবকের লাশ উদ্ধার

ঝালকাঠির নলছিটিতে ধানক্ষেত থেকে আজিম হাওলাদার (২৬) নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার দুপুরে উপজেলার পূর্ব রায়াপুর গ্রামে বাড়ির পাশে একটি ধানক্ষেতে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। আজিম ওই গ্রামের লতিফ হাওলাদারের ছেলে। সে বরিশাল-ঝালকাঠি আঞ্চলিক মহাসড়কে চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাসচালকের সহকারী। পুলিশ জানায়, আজিম রাতে তার কক্ষে ঘুমাতে যায়। সকালে দরজা খোলা পাওয়া গেলেও আজিমকে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজির পরে বাড়ির পেছনের একটি ধানক্ষেতে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় তার লাশ দেখতে পায়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। নিহতের বাবা লতিফ হাওলাদার বলেন, আমার ছেলেকে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে লাশ ধানক্ষেতে ফেলে রেখেছে। ঘটনার তদন্ত করলেই হত্যার প্রকৃত কারণ জানা যাবে। আমি ছেলে হত্যার বিচার দাবি করছি। নলছিটি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সালেম মিয়া বলেন, লাশের সুরতহাল রিপোর্টে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করা হয়েছে। কিন্তু তিনি আত্মহত্যা করেছেন, নাকি তাকে হত্যা করা হয়েছে, তা ময়না তদন্ত রিপোর্ট পেলে যানা যাবে। এ ঘটনায় নলছিটি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে। আরকে//

ছয় বছর পর সন্তানসহ স্ত্রীর মর্যাদা পেলেন প্রতিবন্ধী মুনজিলা

ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে পিতৃত্ব প্রমাণিত হওয়ায় দীর্ঘ ছয় বছর পর বিয়ে করে সন্তানসহ স্ত্রীকে ঘরে তুলতে বাধ্য হন ধর্ষক ফজলুর রহমান। ফলে দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ে জয়ী হলেন বগুড়ার শেরপুরের বাক্প্রতিবন্ধী মুনজিলা খাতুন। গত শনিবার বিকেলে আদালতের নির্দেশে কুসুম্বী ইউনিয়নের উত্তর পেচুঁল গ্রামে সামাজিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এরপর মুনজিলা খাতুনকে স্ত্রীর মর্যাদা ও ছয় বছরের মেয়ে ফজিলা খাতুনকে কন্যার স্বীকৃতি দিয়ে ঘরে তুলে নিতে সম্মত হন ধর্ষক ফজলুর রহমান (৫৫)। ফজলুর রহমান বলেছেন, ‘আমি লজ্জায় বিষয়টি গোপন করেছিলাম। এখন আদালতের নির্দেশ মেনে নিয়েছি। মুনজিলাকে স্ত্রীর মর্যাদা এবং সন্তানকে বাবার অধিকার দিয়েছি। বগুড়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২-এর বিচারক আব্দুর রহিমের নির্দেশে বিয়ের অনুষ্ঠানে স্পেশাল এপিপি অ্যাডভোকেট তৃপ্তি বেগম, এপিপি অ্যাডভোকেট রেখা ও পরিদর্শক হিসেবে দৈনিক বাংলা বুলেটিনের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তারেক হাসান শেখ উপস্থিত থেকে বিয়ের যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেন। পরে মুনজিলা খাতুনকে ফজলুর রহমানের বাসায় তুলে দেওয়া হয়। গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, ফজলুর রহমান স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী। তাঁর স্ত্রী এবং দুই সন্তান রয়েছে। রয়েছে স্টক ও দাদন ব্যবসা। ধর্ষিতা মুনজিলা খাতুনের পরিবারে বড় ভাই খলিলুর রহমান ছাড়া কেউ নেই। খলিলুর একটি দইয়ের কারখানার শ্রমিক। ফজলুর রহমানের বাড়ির পাশেই একটি ছাপড়া (বেড়া) ঘরে তারা থাকত। ঘরে জোর করে প্রবেশ করে মুনজিলা খাতুনকে ধর্ষণ করেন খলিলুর। ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল এপিপি অ্যাডভোকেট তৃপ্তি বেগম জানান, মা-বাবা হারা বাক্প্রতিবন্ধী মুনজিলা খাতুন ২০১২ সালের জানুয়ারি মাসের শেষের দিকে ধর্ষিত হয়ে ২৬ নভেম্বর কন্যাসন্তান প্রসব করেন। ধর্ষিত হওয়ার পর ফেব্রুয়ারি মাসে শেরপুর থানায় প্রথমে ধর্ষণ মামলা করা হয়। প্রতিবেদন আদালতে পাঠানো হলে ২০১৩ সালের মাঝামাঝিতে মামলাটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে পরিবর্তন করে শুনানি শুরু করা হয়। বগুড়া কারাগারের জেলার রফিকুল ইসলাম জানান, জেল পুলিশের একটি দল কঠোর গোপনীয়তায় তিনজনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ২২ জুলাই ভিকটিম ও আসামির ডিএনএ টেস্ট করা হয়। ডিএনএ পরীক্ষা শেষ করে ফের তাদের কারাগারে ফিরিয়ে আনা হয়। আর নির্দেশনা মোতাবেক ২০ দিন পর তাদের আদালতে হাজির করা হয়। ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট তিন মাস পর আদালতের হাতে পৌঁছে। এরপর আদালতের নির্দেশে গত ১৯ নভেম্বর দেড় লাখ টাকা দেনমোহরে ফজলুর রহমানের সঙ্গে মুনজিলা খাতুনের বিয়ের কাবিননামা রেজিস্ট্রি করা হয়। অসহায় এই মেয়ের বিয়েতে এলাকাবাসী চাঁদা তুলে পাঁচ শতাধিক লোকের খাবারসহ অন্যান্য অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।   টিআর/  

বরিশালে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১

বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে আব্দুল্লাহ (১৭) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছেন। শনিবার রাতে উপজেলার হস্তিসুন্ড এলাকায় বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গৌরনদী হাইওয়ে থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শেখ আতিয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত আব্দুল্লাহ দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকের হেলপার ছিলেন বলে জানা গেছে। সে ফরিদপুরের গোপিনাথপুর এলাকার সানোয়ার মিয়ার ছেলে। ওসি শেখ আতিয়ার রহমান জানান, শনিবার রাতে ঘটনাস্থলে সড়কের পাশে দু’টি ট্রাক থামানো ছিল। যারমধ্যে একটি ট্রাক বিকল হয়ে যাওয়ার সেই ট্রাকের মালামাল অন্য ট্রাকে তোলা হচ্ছিলো। ওই জায়গা অতিক্রম করার সময় একটি বাসের সঙ্গে ওই ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। একে//

চোখের সামনে ভেসে ওঠে বিচার বিভাগের দুই উজ্জ্বল নক্ষত্র

১৪ নভেম্বর এলেই আমাদের সামনে ভেসে ওঠে চিরচেনা দুটি মুখ। বিচার বিভাগের দুই উজ্জ্বল নক্ষত্র সিনিয়র সহকারী জজ জগন্নাথ পাঁড়ে ও সিনিয়র সহকারী জজ শহীদ সোহেল আহমেদ। ২০০৫ সালের ১৪ নভেম্বর ঝালকাঠিতে কর্মরত থাকা অবস্থায় তারা উগ্র জঙ্গিবাদীদের বোমা হামলায় নিহত হন। সেদিন বিশ্ববাসী জেনেছিল, বাংলাদেশের শান্তিপ্রিয় নিরীহ মানুষ জঙ্গিবাদীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে। বোমা হামলায় নিহত দুই বিচারক জগন্নাথ পাঁড়ে ও শহীদ সোহেল আহমেদ আমার সহকর্মী ছিলেন। ১৯৯৮ সালের ২৪ জুন তারা দু`জনসহ আমরা ৯৯ জন সহকারী জজ দেশের বিভিন্ন জেলার জাজশিপে যোগদান করেছিলাম। অধস্তন আদালতের সর্বোচ্চ পদ জেলা ও দায়রা জজ। এই পদে বর্তমানে কর্মরত আমরা। বেঁচে থাকলে তারা দু`জনও আমাদের সঙ্গে জেলা ও দায়রা জজ হতে পারতেন। জঙ্গিদের নির্মম আঘাত শুধু তাদের ওপর ছিল না; ছিল দেশের বিচার বিভাগ তথা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে। রাষ্ট্র হত্যাকারীদের বিচার করে তাদের ফাঁসিতে ঝুলিয়েছে। রায় কার্যকর হয়েছে; কিন্তু এ দেশে জঙ্গিবাদীদের হামলা এবং চক্রান্ত এখনও শেষ হয়ে যায়নি। তারা এ দেশকে একটি অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায়। শেখ হাসিনা সরকার ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলাসহ জঙ্গিবাদীদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়ায় তাদের অনেক বেআইনি কার্যক্রমকে রুখে দিতে পেরেছে। এ কারণেও শেখ হাসিনার নেতৃত্ব অব্যাহত রাখা প্রয়োজন। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত `বাংলাদেশ`-এর সংবিধানের মূল লক্ষ্য ছিল অসাম্প্রদায়িক চেতনার রাষ্ট্র হবে এটি। ফলে `বাংলাদেশ` নামক রাষ্ট্রকে টিকিয়ে রাখতে হলে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জাগরণ গড়ে তুলে সব সময় এটিকে চলমান রাখতে হবে। জঙ্গিবাদীরা হিংসা বা ধ্বংসের মাধ্যমে যে সমাজ গড়ে তুলতে চায়, তা অব্যাহত থাকলে মানবসভ্যতা বিপন্ন হতে বাধ্য। সে কারণে আমাদের সমাজকে একটি শক্তিশালী প্রগতিশীল-সুকুমারবৃত্তিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে হলে জ্ঞান-বিজ্ঞান চিন্তা ও চর্চার প্রচার এবং প্রসার ঘটিয়ে জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে থাকতে হবে। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে জয়ী হতে হলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সবকিছু করতে হবে। সহকর্মী বিচারক জগন্নাথ পাঁড়ে ও শহীদ সোহেল আহমেদ জীবন উৎসর্গ করে আমাদের সবাইকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার পথ দেখিয়ে গেছেন। আমরা বিশ্বাস করি, তাদের দেখিয়ে যাওয়া পথে আমরা হাঁটতে পারলে মুক্তিযুদ্ধের সব শহীদসহ এ দেশে এ সময়ে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির ঝরে যাওয়া রক্ত কখনও বৃথা যাবে না; আমরা এগিয়ে যেতে পারব। ১৯৯৮ থেকে ২০১৮ সাল। দীর্ঘ ২০ বছরের বেশি সময় আমরা চাকরি জীবন অতিক্রম করেছি। ২০০৫ সালে জগন্নাথ-সোহেল নিহত হওয়ার পর ২০১৮ সালে আমরা সহকর্মী জগন্নাথ পাঁড়ের পৈতৃক ভিটা বরগুনা জেলার পাথরঘাটা উপজেলার পদ্মা গ্রামে গিয়েছিলাম। সেখানে গিয়ে বিস্মিত হয়েছি! আজও পদ্মা গ্রামে যাওয়ার সরাসরি কোনো রাস্তা নেই। গ্রামের আইল ধরে হাঁটতে হয়। আরও আশ্চর্যের বিষয়, এখন অবধি পদ্মা গ্রামে বিদ্যুৎ যায়নি। সেই গ্রামের একটি ছেলে পদ্মা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়-হাইস্কুল পেরিয়ে রাজধানী ঢাকার ঢাকা কলেজে পড়াশোনা শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে ভর্তি হয়েছিল। এ ঘটনা শুধু গল্প বা উপন্যাসে পাওয়া যাবে। জগন্নাথ পাঁড়ের জন্য ঢাকায় এসে জীবন যুদ্ধে জয়ী হওয়ার লড়াইটা সত্যিই কঠিন ছিল। বিচার বিভাগেও মেধা তালিকায় স্থান পেয়েছিলেন তিনি। জগন্নাথ পাঁড়ের পরিবার যে সময় একটু আশার আলো দেখেছিল, ঠিক সেই সময়েই জঙ্গিবাদীদের হামলায় তার পরিবারের স্বপ্নেরও মৃত্যু ঘটে। জগন্নাথ পাঁড়ের সেই বাড়িতে গিয়ে আমাদের চোখের জলে আমরা প্রিয় সহকর্মীকে স্মরণ করেছি। শহীদ সোহেল আহমেদ ছিলেন সচ্ছল পরিবারের সন্তান। ‘বাংলাদেশ’ নামক রাষ্ট্র এখন সুযোগ্য নেতৃত্বে সঠিক পথে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে চলেছে। এই গতি চলমান রাখতেই হবে। আমাদের সম্পদ লুটকারী পাকিস্তান রাষ্ট্র বাংলাদেশের সমকক্ষ হওয়ার স্বপ্ন দেখছে। তবে বিচার বিভাগের এই দুই শহীদের পরিবারকে আমাদের সব রকম পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান অব্যাহত রাখতে হবে। তবেই তাদের আত্মবলিদান সার্থক হবে। আমরা বিচার বিভাগে কর্মরত থাকা অবস্থায় জঙ্গিবাদীদের হামলায় শহীদ হওয়া বিচারক জগন্নাথ পাঁড়ে ও শহীদ সোহেল আহমেদকে গভীর শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় স্মরণ করি। বিচারক (জেলা ও দায়রা জজ), জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল, বরিশাল

বরিশালে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে রবিউল আলম (৩৫) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত রবিউল উপজেলার জল্লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ ঘোষ নান্টু হত্যা মামলার প্রধান আসামি বলে জানিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার ভোর ৩টার দিকে উপজেলার জল্লা ইউনিয়নের পিরেরপাড় ফুলতলা এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, তিন রাউন্ড গুলি, তিনটি রামদা উদ্ধার করেছে পুলিশ। বরিশালের পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। নিহত রবিউল মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা কুক্রিরচর এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে। তার বিরুদ্ধে রামপুরা থানায় অস্ত্রসহ ৫টি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, সোমবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মাদারীপুর থেকে রবিউল আলমকে গ্রেফতার করা হয়। পরে রবিউলের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাকে নিয়ে মঙ্গলবার ভোর ৩টার দিকে পিরেরপাড় ফুলতলা এলাকায় অস্ত্র উদ্ধারের অভিযানে যায় পুলিশ। যেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা রবিউলের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে রবিউল গুলিবিদ্ধ হলে তাকে উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসক রবিউলকে মৃত ঘোষণা করেন। প্রসঙ্গত, গত ২১ সেপ্টেম্বর উজিরপুরের জল্লা ইউনিয়নের কারফাবাজারে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু। একে//

বাউফলে ফের ৩ শিক্ষক ও ১ পরীক্ষার্থী বহিষ্কার

পটুয়াখালীর বাউফল পৌর সদরের বাউফল ছালেহিয়া মাদ্রাসা কেন্দ্রে আজ রোববার জেডিসির বাংলা বিষয়ের পরীক্ষায় বহিষ্কার করা হয়েছে ১ পরীক্ষার্থী ও ৩ শিক্ষককে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পরীক্ষার হলে দায়িত্বে থাকা এক শিক্ষক জানান, উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে হল পরিদর্শনে এসে অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে বহিষ্কার করেন মো. জিহাদুল ইসলাম নামে বাউফল ছালেহিয়া ফাযিল মাদ্রাসার এক শিক্ষার্থীকে। এ সময় কর্তব্যে অবহেলার কারণে বিলবিলাস অলিপুরা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর, তালতলী ভরিপাশা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক মো. ইছাহাক ও উত্তর দাসপাড়া দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক মো. শাহজালালকেও বহিষ্কার করা হয়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পিজুস চন্দ্র দে। আগের দিন জেএসসির উপজেলার নওমালা কেন্দ্রের আব্দুর রশিদ খান ডিগ্রি কলেজ ভ্যানু থেকে অসদুপায় অবলম্বন ও দায়িত্বে অবহেলার কারণে বহিষ্কার হন ৬ পরীক্ষার্থী ও ৩ শিক্ষকসহ ৯জন। আরকে//

কলাপাড়ায় ফসলি জমি রক্ষার দাবিতে মানববন্ধন

জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী তিন ফসলি জমি অধিগ্রহণ করা যাবে না। আর এই তিন ফসলি জমি রক্ষার দাবিতে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার ধানখালী ইউনিয়নের পাঁচ গ্রামের হাজারো নারী-পুরুষ ও শিশুরা মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। মানববন্ধন কর্মসূচিতে এলাকার জনগণ প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়ে তারা বলেন, আমাদের শেষ সম্বল রক্ষা করেন। ধানখালী ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন সোমবাড়িয়া কালু মিয়ার বাজার সড়ক শোয়ে পটুয়াখালী জেলা প্রশাসকের পথ রোধ করে পৈত্রিক ভিটা ও বেঁচে থাকার শেষ সম্বল রক্ষার দাবি জানায়। তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেছেন, যাতে তাদের জমি অধিগ্রহণ না করা হয়। ১৮ অক্টোবর পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক বরাবরে ধানখালী ও চম্পাপুর ইউনিয়নের চার গ্রামের মানুষ তিন ফসলী জমি রক্ষার দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করেন। এলাকাবাসীর দাবি সেনাকল্যান সংস্থা ও আশুগঞ্জ কোম্পানি প্রায় এক হাজার একর জমি অধিগ্রহণের জন্য গ্রামবাসীদের তিন ও ছয় ধারা নোটিশ প্রদান করেছে। বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চেীধুরী সরেজমিনে তথ্য যাচাইয়ের জন্য ধানখালী ইউনিয়নে আসলে হাজার হাজার নারী-পুরুষ ও স্কুল-কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রীরা এ জমি অধিগ্রহণ বন্ধের দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। সেই সঙ্গে তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে জমি রক্ষার জন্য আকুল আবেদন করেছে। জেলা প্রশাসক ধানখালী ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বক্তব্য শোনেন। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন কৃষক ফরিদ তালুকদার (৬০), আবদুল মান্নান (৩৫), আফজাল হোসেন (৪৫), আনসার উদ্দীন মোল্লা (৫৫) ও আতাউর রহমান মিলন মিয়া। তারা বলেন, কলাপাড়া উপজেলার প্রায় দুই লাখ হেক্টর জমির মধ্যে ২৫ একর জমি তিন ফসলী। এই ২৫ হাজার একর জমির মধ্যে ১৬ হাজার একর জমি ধানখালী ও চম্পাপুরে। এখানের উৎপাদিত তরমুজ, মুগ ডাল, আমন ধান সারা দেশে রপ্তানী হয়। এখানের মাটি সোনার চেয়েও খাটি। এই তিন ফসলী জমি অধিগ্রহণ করে ইতিমধ্যে সরকার দুটি বিদুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করেছে। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মধ্যস্ততায় জেলা প্রশাসক উপস্থিত কৃষকদের আর কোন তিন ফসলি জমি অধিগ্রহন করা হবে না বলে আশ্বস্ত করেন। পরে তিনি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স চত্বরে বের হলে উপস্থিত হাজার হাজার কৃষক তাকে ঘিরে স্রোগান দিতে থাকে।  পরে তিন ফসলী জমি রক্ষার দাবিতে অন্দোলনরত গ্রামবাসীদের সঙ্গে দুপুরে ধানখালী ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তানভীর রহমানের সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. মামুনুর রশিদ, কলাপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব তালুকদার, ধানখালী ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াজ তালুকদার, চম্পাপুর ইউপি চেয়ারম্যান রিন্টু তালুকদার, শিক্ষানুরাগী আনসার উদ্দিন মোল্লা, সমাজকর্মী মো. আতাউর রহমান মিলন মিয়া, গ্রামবাসী মো. মোস্তফা মেহেদী, ফরিদ তালুকদার, আফজাল হোসেন ও আবদুল মন্নান। গ্রামবাসীর পক্ষে ফরিদ উদ্দিন তালুকদার বলেন, কৃষি নির্ভর ৮৫ ভাগ মানুষের বেঁচে থাকার শেষ সম্বল এ জমি অধিগ্রহণ করা হলে ৯৫ ভাগ ছেলে-মেয়ের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে যাবে। মুজিবনগর খ্যাত ধানখালী ও চম্পাপুরের নৌকা পাগল মানুষকে ভিটেমাটি না ছাড়া করার দাবি জানাই প্রধানমন্ত্রীর কাছে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. মামুনুর রশিদ বলেন, জমি অধিগ্রহণে জনগণের যাতে কোন ক্ষতি না হয় সে বিষয়টি সরকারকে অবহিত করবেন। সভায় জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চেীধুরী বলেন, বর্তমান সরকার হলো কৃষি, শিল্প ও উন্নয়নবান্ধব সরকার। তাই তিন ফসলী জমিতে যাতে আবার কোন বিদ্যুত কেন্দ্র নির্মাণ না হয় এ বিয়য়টি তিনি সরকারের ঊর্ধ্বতন মহলে অবহিত করবেন এবং হাজারো গ্রামবাসীর দাবি তুলে ধরবেন। তিন ফষলী জমির ক্ষতি যাতে না হয় এ বিষয়টি তিনি দেখবেন বলে গ্রামবাসীদের আশ্বস্ত করেন। এসএইচ/

সাগরকন্যা কুয়াকাটায় পর্যটকদের ভিড় (ভিডিও)

একই স্থান থেকে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখতে, সাগরকন্যা কুয়াকাটায় বাড়ছে পর্যটকের ভিড়। হোটেল-মোটেলে শুরু হয়েছে আগাম বুকিং। অতিথির ভ্রমণ আনন্দময় করতে, সাগরপথে সুন্দরবন দেখার আয়োজন করেছে হোটেল-মোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। সাগরজলে লালচে আভা ছড়িয়ে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত। বালুতটে লাল কাঁকড়ার নৃত্য আর উত্তাল ঢেউ। রয়েছে সীমা বৌদ্ধ মন্দির, মিশ্রীপাড়া বৌদ্ধবিহার, ঝাউবন, ইকোপার্ক, সোনার নৌকা, রাখাইন পল্লি ও লেম্বুর চর। এসবের সৌন্দর্য উপভোগ করতে কুয়াকাটায় ভিড় করছেন পর্যটকরা। সৌন্দর্য পিপাসুদের চাপ সামাল দিতে এরই মধ্যে প্রস্তুত করা হয়েছে অর্ধশতাধিক হোটেল- মোটেল। অতিথির নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে তৎপর রয়েছে ট্যুরিস্ট পুলিশ। কুয়াকাটা সৈকত ও পর্যটন স্পট আরো আকর্ষণীয় করতে, মাস্টার প্ল্যান হাতে নিয়েছে সরকার।

বরিশাল-২ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাচ্ছেন যারা

বরিশাল-২ আসনের নৌকার টিকিট পেতে গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস আনুষ্ঠানিকভাবে গণসংযোগ না করলেও সংসদ সদস্য হিসেবে নিয়মিত কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি পার্শ্ববর্তী নির্বাচনী এলাকার বাসিন্দা। ২০০৮ সালে তিনি বরিশালের (গৌরনদী-আগৈলঝাড়া) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালে আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বরিশাল-১ আসন থেকে নির্বাচন করায় বরিশাল-২ আসন থেকে নির্বাচন করেন তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস। ‌তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি বরিশাল-২ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন বলে জানা গেছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নীর্বাচনে এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় দফতরবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও বিশিষ্ট সাংবাদিক সুজন হালদারও দলীয় মনোনয়ন চাইবেন বলে জানা গেছে। সুজন হালদার বলেন, বানারিপাড়া উজিরপুরের উন্নয়ন নিয়ে তার স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদী স্বপ্ন এবং পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে বিশেষ উন্নয়ন পরিকল্পনা। এ জন্য তিনি জনসংযোগ করছেন। এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গণসংযোগ করছেন সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি শাহে আলম। তিনি ১৯৯৬ সাল থেকে মনোনয়ন চেয়ে আসছেন। ২০১৪ সালে শর্ট লিস্টে তার নাম থাকলেও শেষ পর্যন্ত মনোনয়ন পাননি। এছাড়াও বানারীপাড়া পৌর সভার মেয়র সুভাষ চন্দ্র শীলও গণসংযোগ করছেন। তিনিও এই আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন চান। এছাড়াও গণসংযোগ করছেন সাবেক পাট প্রতিমন্ত্রী একে ফায়জুল হকের ছেলে এ কে ফাইয়াজুল হক রাজু, বানারীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক, ব্যবসায়ী মোয়াজ্জেম হোসেন, ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি আনিসুর রহমান, ছাত্রলীগ নেতা রুবিনা আক্তার ও ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রাজ্জাক। আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুর রহমানও ব্যস্ত সময় পার করছেন গণসংযোগে। এসএইচএস/এসএইচ/

কলাপাড়ায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের উন্নয়ন কর্মসূচি পরিদর্শন ও ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য নির্মিত স্বপ্নের ঠিকানা আবাসনের উদ্বোধনসহ পাঁচটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি আরও ১৬টি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফলক উন্মোচন করার কথা রয়েছে। শনিবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে কলাপাড়ার ধানখালী ইউনিয়নের লোন্দাগ্রামে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী হেলিকপ্টার অবতরণ করে। এর আগে সকাল ১০টায় হেলিকপ্টার যোগে তেজগাঁওয়ের পুরাতন বিমানবন্দর থেকে পটুয়াখালীর পায়রার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন তিনি। কলাপাড়ায় পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের হাতে ‘স্বপ্নের ঠিকানা’র ঠিকানার চাবি ও দলিল তুলে দিয়ে প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রাধানমন্ত্রী। এরপর যাবেন বরগুনার তালতলীতে। সেখানে ২১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনসহ বিকেল ৩টায় তালতলী সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন তিনি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগমুহূর্তে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে বরগুনা জেলার সর্বত্র বইছে উৎসবের আমেজ। সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর তালতলীতে একই মাঠে জনসভায় ভাষণ দিয়েছিলেন তিনি। উল্লেখ্য, ১৩২০ মেগাওয়াট থার্মাল পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্প বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের লক্ষ্যে পটুয়াখালীর সর্বদক্ষিণে কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নের প্রায় এক হাজার একর জমি অধিগ্রহণ করে নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড, যার নামকরণ করা হয় পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। জমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পুনর্বাসনের ১৬ একর জমির ওপর নির্মাণ করা হয় ,স্বপ্নের ঠিকানা,। এখানে নির্মিত ১৩০টি ঘরের প্রতিটিতে রয়েছে তিনটি কক্ষ, একটি মাস্টার কক্ষ, একটি রান্নাঘর, একটি স্টোর রুম ও একটি ডাইনিং রুম। স্বপ্নের ঠিকানার উদ্বোধন ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও চারটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ১৬টি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফলক উন্মোচন করবেন। সেখানে আয়োজিত সুধী সমাবেশেও ভাষণ দেবেন তিনি। এদিকে বরগুনা সফরে প্রধানমন্ত্রী বরগুনা সদর হাসপাতালকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বামনা ও বেতাগী উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল স্টেশন, জেলা গ্রন্থাগার, জেলা পুলিশ লাইনে মহিলা ব্যারাক, আমতলী ইউনুস আলী খান ডিগ্রি কলেজের চতুর্থ তলা একাডেমিক ভবন কাম ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণসহ ২১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। একে//

শনিবার পটুয়াখালী ও বরগুনা যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পটুয়াখালী যাচ্ছেন আগামীকাল শনিবার। এ সময় তিনি জেলার কলাপাড়া উপজেলার ধানখালীতে নির্মিত ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ উদ্বোধন করবেন। ওই এলাকায় ১৩২০ মেগাওয়াট ‘থার্মাল পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্প’ বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য জমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত ১৩০টি পরিবারের পুনর্বাসনের নতুন ঠিকানা হচ্ছে এটি। এরপর যাবেন বরগুনার তালতলীতে। সেখানে ২১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধনসহ বিকেল ৩টায় তালতলী সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন তিনি।শেখ হাসিনার এ আগমনকে ঘিরে সাজ সাজ প্রস্তুতি চলছে পুরো পটুয়াখালীতে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগমুহূর্তে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে বরগুনা জেলার সর্বত্র বইছে উৎসবের আমেজ। সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১৯ নভেম্বর তালতলীতে একই মাঠে জনসভায় ভাষণ দিয়েছিলেন তিনি। উল্লেখ্য, ১৩২০ মেগাওয়াট থার্মাল পাওয়ার প্ল্যান্ট প্রকল্প বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের লক্ষ্যে পটুয়াখালীর সর্বদক্ষিণে কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নের প্রায় এক হাজার একর জমি অধিগ্রহণ করে নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি লিমিটেড, যার নামকরণ করা হয় পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। জমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পুনর্বাসনের ১৬ একর জমির ওপর নির্মাণ করা হয় ‘স্বপ্নের ঠিকানা’। এখানে নির্মিত ১৩০টি ঘরের প্রতিটিতে রয়েছে তিনটি কক্ষ, একটি মাস্টার কক্ষ, একটি রান্নাঘর, একটি স্টোর রুম ও একটি ডাইনিং রুম।স্বপ্নের ঠিকানার উদ্বোধন ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও চারটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ১৬টি উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের ফলক উন্মোচন করবেন। সেখানে আয়োজিত সুধী সমাবেশেও ভাষণ দেবেন তিনি।পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মো. মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানান, এরই মধ্যে শনিবার প্রধানমন্ত্রীর আগমনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।এদিকে বরগুনা সফরে প্রধানমন্ত্রী বরগুনা সদর হাসপাতালকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বামনা ও বেতাগী উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল স্টেশন, জেলা গ্রন্থাগার, জেলা পুলিশ লাইনে মহিলা ব্যারাক, আমতলী ইউনুস আলী খান ডিগ্রি কলেজের চতুর্থ তলা একাডেমিক ভবন কাম ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণসহ ২১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন।এসএ/  

বরিশালে জেএমবির সদস্য গ্রেফতার

র‌্যাব-৮ এর অভিযানে বরিশালের বরগুনা জেলার সদর বঙ্গবন্ধু রোডের কাঁচাবাজার থেকে জেএমবির সামরিক শাখার একজন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল বুধবার রাত সোয়া ১১টায় তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত মো. হাসান মোল্লা (৪০) মৃত কাঞ্চল আলীর ছেলে। র‌্যাব-৮ জানায়, গ্রেফতারকৃত মো. হাসান মেল্লা বরগুনা জেলার সদর থানাধীন বঙ্গবন্ধু রোডের কাঁচাবাজরে একজন সবজি ব্যবসায়ী। সবজি ব্যবসার আড়ালে নিষিদ্ধ ঘোষিত উগ্রপন্থি সদস্যের সঙ্গে তার সার্বক্ষণিক যোগাযোগ হয়। সে জেএমবির সব কাজে অংশগ্রহণ করে, সে বিভিন্ন সময়ে জেএমবির বিভিন্ন বৈঠকে অংশগ্রহণ করে। সে বাংলাদেশে জেএমবির শক্ত অবস্থান ও সামরিক শাখার শক্তি বৃদ্ধিসহ হুজুরে (উপরস্থ কর্মকর্তার) নির্দেশে যে কোন বড় ধরনের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে প্রস্তুত ছিল। এসএইচ/

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব আজ সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টায় উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি থাকবেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি। অনুষ্ঠান আয়োজক কমিটির সভাপতি ও শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজের প্রাক্তন ছাত্র সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ডা. টিআইএম আব্দুল্লাহ আল ফারুক জানান, এই মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অর্ধশত বছর পূর্তিতে সাবেক ছাত্র-ছাত্রীরা মিলে এ অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেই। রবিবার থেকে তিনদিনব্যাপী মহামিলন মেলার আয়োজন করা হয়েছে। আয়োজক কমিটির দীর্ঘ এক বছরের প্রচেষ্টায় একটি সুন্দর ও মনোমুগ্ধকর অনুষ্ঠান হচ্ছে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ ক্যাম্পাসে। অনুষ্ঠানকে ঘিরে প্রশাসনের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি ৭ অক্টোবর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত গোটা মেডিক্যাল কলেজ ক্যাম্পাসে সকল ধরনের যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। এসএ/  

বরিশালে ৭ লাখ পিস ইয়াবাসহ দুইজন আটক

বরিশালে প্রায় ৭ লাখ পিচ ইয়াবাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‌্যাব- ৮। শনিবার বেলা পৌনে ১২ টায় নগরীর রুপাতলী র‌্যাব-৮ এর সদর দফতরে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক আতিকা ইসলাম।  এ সময় তিনি জানান, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার (৬ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৩ টায় পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া থানার শেখ কামাল ব্রীজের দক্ষিণ পাশে অভিযান চালিয়ে প্রাইভেটকারসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। এ সময় তাদের প্রাইভেটকার তল্লাশি চালিয়ে ৬ লাখ ৭৭ হাজার ৫৬ পিচ ইয়াবা, ১টি বিদেশি পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন,৪ রাউন্ডগুলি, ৪টি মোবাইল, ৪টি সিমকার্ড, একটি প্রাইভেটকার এবং নগদ ১ হাজার ৯৭৫ টাকা জব্দ করা হয়। আটককৃতরা হলেন, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার পশ্চিম পানখালীর মৌলভী মো. ইউনুচের ছেলে মো. ইব্রাহিম (২৫) ও একই জেলার উখিয়া থানার বালুখালী ক্যাম্পের রোহিঙ্গা আবুল হোসেনের ছেলে  মো.আলম (৩০)। এদিকে আটককৃত মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। জানা গেছে, আটক দুই মাদক ব্যবসায়ী মিয়ানমার থেকে সমুদ্রপথে ট্রলারযোগে এই ইয়াবা এনে প্রাইভেটকার যোগে ঢাকার উদ্দেশ্য নিয়ে যাচ্ছিল। কেআই/এসএইচ/

দুই মাস ঝুলে আছে বরিশালের ভোটের ফল

বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ভোটগ্রহণের পর দুই মাস পেরিয়ে গেছে। অথচ নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক ফলের গেজেট প্রকাশ করতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। গত ৩০ জুলাইয়ের ভোটের পর অর্ধশতাধিক কেন্দ্রের অনিয়ম নিয়ে তদন্ত চূড়ান্ত  না হওয়ায় একীভূত ফলাফল প্রকাশ  করা যায়নি বলে জানাচ্ছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। সূত্র জানিয়েছে বরিশাল সিটিতে বর্তমানে নির্বাচিতদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ২৩ অক্টোবর। তবে ইতোমধ্যে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন বর্তমান মেয়র আহসান হাবীব কামাল। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ৩০ জুলাই রাজশাহী, সিলেটের সঙ্গে বরিশাল সিটি করপোরেশনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু ইতোমধ্যে সিলেট ও রাজশাহীতে দায়িত্বও নিয়ে ফেলেছেন নির্বাচিত মেয়র-কাউন্সিলররা। তবে বরিশালে ১২৩টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৬টি স্থগিত হওয়ায় মেয়র প্রার্থী কাউকে বিজয়ী ঘোষণা করেননি রিটার্নিং কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান। এছাড়া পরবর্তীতে আরও ৪৬টি কেন্দ্রের ফলাফল নিয়ে অনিয়ম তদন্তে একটি কমিটি গঠন করে নির্বাচন কমিশন। রিটার্নিং কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান জানান, কমিশনের সিদ্ধান্ত পেলে স্থগিত কেন্দ্রগুলোতে দ্রুত পুনঃভোটের ব্যবস্থা করা হবে। এর পাশাপাশি ঘোষিত কেন্দ্রের বিষয়েও নির্দেশনার অপেক্ষায় রয়েছেন তিনি। কমিশনের অনুমোদন পেলেই একীভূত ফলাফল গেজেট প্রকাশ করা সম্ভব হবে বলে জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা। উল্লেখ্য, বরিশাল সিটিতে যে ১০৭ কেন্দ্রের ফল ঘোষিত হয়েছে, তাতে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী সরওয়ারের চেয়ে ৮৭ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে আছেন আওয়ামী লীগ এর মনোনীত প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহ। নৌকা প্রতীকে সাদিক পেয়েছেন ১ লাখ ৭ হাজার ৩৫৩ ভোট। আর সরোয়ার ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ১৩ হাজার ১৩৫ ভোট। একে//

আজ ভোলা যাচ্ছেন দুই বাণিজ্যমন্ত্রী

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সঙ্গে আজ মঙ্গলবার ভোলা যাবেন ভারতের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী সুরেশ প্রভু। ভোলার স্বাধীনতা জাদুঘর পরিদর্শন করবেন সুরেশ প্রভু। এ ছাড়া সেখানে সুধী সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন তিন। ভোলা থেকে আজিই তিনি ঢাকায় ফিরবেন। আগামীকাল বুধবার দুই দেশের বাণিজ্যমন্ত্রী বৈঠকে বসবেন। একই দিন তিনি বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামালের সঙ্গে বৈঠক করবেন। পরে ২৭ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী। একই দিন তিনি বঙ্গবন্ধু জাদুঘর পরিদর্শন করবেন। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর সকালে তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন। প্রসঙ্গত, গতকাল সোমবার বিকেলে পাঁচদিনের সফরে ঢাকায় এসেছেন ভারতের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী সুরেশ প্রভু। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের আমন্ত্রণে বাংলাদেশ সফরে এসেছেন তিনি। তার এই সফরে বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যিক সম্পর্কের আরও অগ্রগতির বিষয়ে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে। একে//

কাউখালীতে আইবিবিএল এর এজেন্ট ব্যাংকিং কেন্দ্র উদ্বোধন

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড-এর এজেন্ট ব্যাংকিং কেন্দ্র পিরোজপুরের কাউখালী বাজারে উদ্বোধন করা হয়েছে। ব্যাংকের ডেপুটি ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু রেজা মো. ইয়াহিয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। গত মঙ্গলবার কাউখালী উপজেলা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা আ ফ ম শাজাহান ফিতা কেটে এ কেন্দ্র উদ্বোধন করেন। ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও বরিশাল জোনপ্রধান মো. আব্দুস সালাম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন কাউখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম আহসান কবির, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চৌধুরী ফাতেমা ইয়াসমিন পপি, জেলা পরিষদ সদস্য শাহাজাদী রেবেকা শাহিন চৈতি, সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ মিল্টন, সমাজসেবক মৃদুল হাসান সুমন ও আব্দুল লতিফ খসরু। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ব্যাংকের ফার্স্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও রাজাপুর শাখাপ্রধান মো. নূর-ই-আলম জিয়া। স্থানীয় ব্যবসায়ী, পেশাজীবী ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। একে//

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি