ঢাকা, শনিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ৫:৩৩:৪৩

ভালোবাসা দিবসে পরীমনির বাগদান

ভালোবাসা দিবসে পরীমনির বাগদান

গুঞ্জনটা অনেক দিনের। প্রায় তিন বছর আগের কথা। সেই সময় বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে প্রেমের যাত্রা শুরু হয় ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনির। তিন বছর পর অবশেষে বাগদান সেরে নিজেদের প্রেমের পূর্ণতা প্রকাশ করলেন পরীমণি-তামিম জুটি। তামিম গণমাধ্যমকর্মী। এ ছাড়া একটি বেসরকারি রেডিও স্টেশনের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘লাভগুরু’র উপস্থাপক। গতকাল বৃহস্পতিবার ভালোবাসা দিবসটিকে বেছে নিয়েছেন তারা। ২০১৬ সালের একই দিনে তারা হাতে হাত রেখে বাহুডোরে বাধা পড়েছিলেন। বাগদান হয়েছে দুই পরিবারের সম্মতিতেই। বিষয়টি নিশ্চিত করে পরীমণি গণমাধ্যমকে বলেন, ‘দুই পরিবারের উপস্থিতিতে বাসায় বসে বাগদান সম্পন্ন হয়েছে। এখনও অনেক প্রোগ্রাম বাকি রয়েছে। সেগুলো সবাইকে জানিয়ে সবাইকে নিয়েই করতে চাই।’বিয়েটাও ভালোবাসা দিবসেই করতে চান এমনটি জানিয়ে পরীমণি বলেন, ‘কোনো এক ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করতে চাই।’ শুধু তাই নয়, নায়িকা তার ফেসবুকেও নিজের এই সুসংবাদটি জানান দিয়েছেন। ভক্তরাও তাকে শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি। সেই সঙ্গে পরী বেশ কিছু ছবিও শেয়ার করেছেন সোশ্যাল সাইডে।এসএ/  
চিত্রনায়ক ফারুক আহত

মঞ্চ থেকে নামতে গিয়ে পা পিছলে চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক) আহত হয়েছেন। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকালে রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত আই পি এইচ স্কুল অ্যান্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফারুক। সেখানে অনুষ্ঠান শেষে মঞ্চ থেকে নামার সময় পা পিছলেন পড়ে যান তিনি।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ফারুকের পা পিছলে গেলে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। উপস্থিত সবাই তাকে উঠিয়ে স্থানীয় হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। এ সময় এক্স-রে করে দেখা যায়, তার পায়ের গোড়ালির হাড়ে সামান্য ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে।এসএ/

শুক্রবার বঙ্গভবনে ‘ফাগুন হাওয়ায়’ দেখবেন রাষ্ট্রপতি

তৌকীর আহমেদ পরিচালিত নতুন সিনেমা ‘ফাগুন হাওয়ায়’ মুক্তি পাচ্ছে শুক্রবার। আগে থেকেই ঘোষণা ছিল সিনেমাটি দেখবেন রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ। তবে কখন দেখবেন সেই তারিখ চূড়ান্ত ছিল না। অবশেষে সিনেমাটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ইমপ্রেস টেলিফিল্মস নিশ্চিত করলো, আগামী শুক্রবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি বঙ্গভবনে ‘ফাগুন হাওয়ায়’ দেখবেন রাষ্ট্রপতি। এদিনেই সিনেমাটি মুক্তি পাবে সিনেমা হলে। রাষ্ট্রপতি মূলত সিনেমাটির প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন।ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেড ও চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর এবং পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ গত ২৮ জানুয়ারি মহামান্য রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আমন্ত্রণ জানালে রাষ্ট্রপতি এ বিষয়ে ইতিবাচক মত দেন। সাক্ষাতে তারা ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্রটি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন এবং তাকে চলচ্চিত্রটি দেখার আমন্ত্রণ জানান। তার আগ্রহ ও সময়কে প্রাধান্য দিয়ে বঙ্গভবনে চলচ্চিত্রটির বিশেষ প্রর্দশনী হবে ১৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে।রাষ্ট্রপতির প্রদর্শনীর উদ্বোধন শেষে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে চলচ্চিত্রটি উপভোগ করবেন। উল্লেখ্য, সিনেমাটির প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা ও সিয়াম। আরও আছেন সাজু খাদেম, রওনক হাসান, ফজলুর রহমান বাবু, আফরোজা বানু, শহীদুল আলম সাচ্চু, আবুল হায়াত। বলিউডের ‘লগন’খ্যাত অভিনেতা যশপাল শর্মাকে দেখা যাবে পাকিস্তানি পুলিশ অফিসারের চরিত্রে।এসএ/  

আজ টিভিতে ‘দেবী’

আজ পহেলা ফাল্গুন। এদিনে সরকারি অনুদান ও জয়া আহসানের প্রযোজনায় নির্মিত আলোচিত সিনেমা ‘দেবী’ প্রচার হচ্ছে টিভির পর্দায়। দেশ-বিদেশের রূপালি পর্দা জয় করে আজ ১৩ ফেব্রুয়ারি হচ্ছে ‘দেবী’র ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার। এ বিষয়ে অভিনেত্রী জয়া আহসান জানান, আজ সন্ধ্যা ৭টায় সিনেমাটি প্রথমবারের মতো সম্প্রচার হচ্ছে মাছরাঙা টিভিতে। পরদিন বিশ্ব ভালোবাসা দিবসেও একই সময়ে সিনেমাটি সম্প্রচার করবে চ্যানেলটি।জয়া আরও বলেন, ‌‘যে দর্শকরা নানা কারণে প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে সিনেমাটি দেখার সুযোগ পাননি, তারা এবার ঘরে বসেই উপভোগ করতে পারবেন। যারা পহেলা ফাল্গুনেও দেখতে পারবেন না তাদেরও নিরাশ হওয়ার কারণ নেই। পরের দিন ভালোবাসা দিবসেও একই সময়ে ছবিটি প্রচার করবে মাছরাঙা টেলিভিশন।’ উল্লেখ্য, হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস অবলম্বনে সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন অনম বিশ্বাস। কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয়ও করেছেন চঞ্চল চৌধুরী ও জয়া আহসান। আরও অভিনয় করেছেন শবনম ফারিয়া, ইরেশ যাকের, অনিমেষ আইচ প্রমুখ। এসএ/

‘যদি একদিন’ মুক্তি পাচ্ছে নারী দিবসে

৮ মার্চ বিশ্ব নারী দিবস। এ দিনকে সামনে রেখে মুক্তি পেতে যাচ্ছে নতুন সিনেমা ‘যদি একদিন’। মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ নির্মিত এ সিনেমাটি প্রযোজনা করেছে বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া লিমিটেড।গত ৩১ জানুয়ারি বিনা কর্তনে সেন্সর ছাড়পত্র পায় সিনেমাটি। চলচ্চিত্রটিতে অভিনয়ের মাধ্যমে বড়পর্দায় অভিষেক ঘটতে যাচ্ছে সংগীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসানের। এতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন কলকাতার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি। চলচ্চিত্রটিতে শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করেছেন রাইসা। তাকে ঘিরেই সিনেমার কাহিনী আবর্তিত হয়েছে।চলচ্চিত্রটির কাহিনী প্রসঙ্গে নির্মাতা মোস্তফা কামাল রাজ বলেন, ‘সিনেমাটিতে ছোট্ট রাইসার সঙ্গে নায়ক তাহসানের (বাবা-মেয়ে)’র এক দারুণ রসায়ন ফুটে উঠেছে। সেই সঙ্গে তাহসান-শ্রাবন্তীর প্রেম-বিরহের কিছুটা আঁচ পাওয়া যায়। সবমিলিয়ে আমাদের দেশের একটি পরিবারের গল্প উঠে এসেছে ‘যদি একদিন’ সিনেমাতে।’চলচ্চিত্রটিতে অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন- ‘ঢাকা অ্যাটাক’খ্যাত খলনায়ক তাসকিন রহমান, সাবেরী আলম, ফখরুল বাশার মাসুম, মিলি বাশারসহ প্রমুখ।এসএ/  

দুর্ঘটনায় আহত ফেরদৌস-পূর্ণিমা  

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে শুটিং করতে গিয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন নায়ক ফেরদৌস ও নায়িকা পূর্ণিমা। সেখানে তারা ‘গাঙচিল’ ছবির শুটিং করছিলেন। সিনেমাটির পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল গণমাধ্যমকে জানান, প্রাথমিকভাবে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।     তিনি বলেন, ‘সকাল ১০টার দিকে দুর্ঘটনাটি ঘটে। তারা বেশ আঘাত পেয়েছেন। তবে দুশ্চিন্তার কিছু নেই। আপাতত প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। বিকেলে তাদের নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নেয়া হবে। এক্স-রে করার পরই জানা যাবে আঘাত কতটা গুরুতর।’ নেয়ামুল বলেন, মোটরসাইকেলের একটি শট ছিল। পূর্ণিমা মোটরসাইকেলটি চালাচ্ছিলেন। ফেরদৌস ছিলেন পেছনে বসা। চলন্ত অবস্থায় মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দুজনই পড়ে গিয়ে আঘাত পান। তাদের শরীরের একাধিক স্থানে ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে ফেরদৌস-পূর্ণিমা বিশ্রামে আছেন। বাকিদের নিয়ে ‘গাঙচিল’ ছবির শুটিং চালাচ্ছেন নির্মাতা নেয়ামূল। ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে নোয়াখালী জেলার গাঙচিল কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৮নং চর এলাহি ইউনিয়নে এর শুটিং শুরু হয়ে চলবে ১২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ‘গাঙচিল’ সিনেমাটি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে। ছবিটি প্রযোজনা করছে ইচ্ছেমতো এবং ফেরদৌসের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান নুজহাত ফিল্মস। এসি    

চলচ্চিত্র নির্মাতা সুভাষ দত্তের জন্মদিন আজ

ষাটের দশককে বাংলা চলচ্চিত্রের সোনালী যুগের স্বনামধন্য নির্মাতা সুভাষ দত্তের জন্মদিন আজ। তিনি ১৯৩০ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি দিনাজপুরে জন্মগ্রহণ করেন। সেখানে ছিল তার মামার বাড়ি। বাবা বাড়ি ছিল বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে। সুভাষ দত্তের ডাক নাম পটলা। ভাল নাম সুভাষ চন্দ্র দত্ত।২০১২ সালের ১৬ নভেম্বর তিনি পাড়ি জমান না ফেরার দেশে। তার অভিনয় জীবনের শুরু শৈশবে নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে। পরবর্তীতে তিনি নাট্য নির্দেশনাও দেন। ১৯৫৫ সালে সত্যজিৎ রায়ের ‘পথের পাঁচালী’ দেখে তিনি সিনেমা নির্মাণে দারুণভাবে আগ্রহী হন। এহতেশামের ‘এ দেশ তোমার আমার’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জীবনের শুরু করেন তিনি। তবে অভিনয় করলেও নির্মাতা হওয়ার প্রবল বাসনা ছিলো তার মধ্যে। ১৯৬২ সালের শেষ দিকে এসে তিনি একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের চিন্তা-ভাবনা করতে থাকেন। শচীন ভৌমিকের একটি গল্পের চিত্রনাট্য নিয়ে এসে সৈয়দ শামসুল হককে দেখান তিনি। এরপর সঙ্গীতকার সত্য সাহাকে সঙ্গে নিয়ে নির্মাণ করেন তার প্রথম সিনেমা ‘সুতরাং’।সিনেমাটি সারাদেশে মুক্তি পেলো ১৯৬৪ সালের ২৩ এপ্রিল। সুপারহিট হয় এটি। সুপারস্টারের তকমা পেয়ে যান সিনেমার নায়িকা সারাহ বেগম কবরী। এটি নায়িকা কবরীর প্রথম অভিনীত চলচ্চিত্র। শুধু একজন নির্মাতা না তারকা ও শিল্পী নির্মাণ করতেন সুভাষ দত্ত। তার হাত ধরেই রুপালী জগতে পা রাখেন কবরী, সুচন্দা, উজ্জল, শর্মিলী আহমেদ, ইলিয়াস কাঞ্চন, আহমেদ শরীফ ও মন্দিরার।রাজধানীর বুকে, সূর্যস্নান, চান্দা, তালাশ, নতুন সুর, রূপবান, মিলন, নদী ও নারী, সোনার কাজলসহ বহু সিনেমাতে অভিনয় করেন তিনি। নির্মাণ করেছেন সুতরাং, কাগজের নৌকা, অরুণোদয়ের অগ্নিসাক্ষী, আয়না ও অবশিষ্ট, আবির্ভাব, সবুজ সাথী, বসুন্ধরা, আমার ছেলেসহ অসংখ্য চলচ্চিত্র।চলচ্চিত্রে অভিনয় ও নির্মাণের জন্য দেশে বিদেশে অসংখ্য পুরষ্কারে ভূষিত হন গুণী এই ব্যাক্তি। ১৯৭৭ সালে ‘বসুন্ধরা’ সিনেমার জন্য পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান সুভাষ দত্ত। এরপর ১৯৯৯ সালে একুশে পদক অর্জন করেন তিনি। তিনি বেগম রোকেয়া’র জীবন ও কর্ম নিয়ে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করার ইচ্ছে পোষণ করলেও তা পূরণ করে যেতে পারেননি।সুভাষ দত্ত ১৯৬৫ সালে ফ্রাংকফুর্ট চলচ্চিত্র উৎসবে সুতরাং দ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র হিসেবে পুরস্কার লাভ করে। মস্কো চলচ্চিত্র উৎসব (১৯৬৭, ১৯৭৩ ও ১৯৭৯) ও নমপেন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে (১৯৬৮) পুরষ্কার পান তিনি। ১৯৬৫ সালে পাকিস্তান চলচ্চিত্র উৎসবে শ্রেষ্ঠ সহ-অভিনেতার পুরস্কার জিতে নেন। ২০০৩ সালে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা পান তিনি।এসএ/

আজ মুক্তি পেল দুটি সিনেমা

একমাস বিরতির পর আবারও জমে উঠছে ঢালিউড। আজ মুক্তি পেয়েছে দুটি সিনেমা। শামীমুল ইসলাম শামীমের পরিচালনায় একটির নাম ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’। এ সিনেমাতে অভিনয় করেছেন- কায়েস আরজু, পরীমনি, মিশা সওদাগর, আলিরাজ, ডন প্রমুখ। এটি সারা দেশের ৪৫টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে। এ সিনেমার মাধ্যমে কায়েস আরজু দীর্ঘদিন পর বড় পর্দায় ফিরলেন। অন্যদিকে বেশ কয়েক মাস পর মুক্তি পেল পরীমনি অভিনীত নতুন সিনেমা। এতে অভিনয় প্রসঙ্গে কায়েস আরজু বলেন, ‘সংখ্যায় কম হলেও ভালো গল্পের সিনেমার জন্য অপেক্ষা করি। আমার অভিনীত এ সিনেমাটির গল্প এবং নির্মাণশৈলী চমৎকার। গ্রামীণ একটি গল্প নিয়ে এটি তৈরি হয়েছে। সপরিবারে দর্শক প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে সিনেমাটি উপভোগ করবেন বলে আমার বিশ্বাস।’ অন্যদিকে তারেক শিকদারের পরিচালনায় আজ মুক্তি পেয়েছে ‘দাগ’ নামে আরও একটি সিনেমা। এটি সারা দেশের ৪২টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিচালক। এ সিনেমার বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিদ্যা সিনহা মিম, বাপ্পী চৌধুরী, শতাব্দী ওয়াদুদ, আঁচল, ডিজে সোহেল, অরুণা বিশ্বাস, রিনা খান প্রমুখ। এ সিনেমার মাধ্যমে চিত্রনায়িকা আঁচল দীর্ঘদিন পর পর্দায় ফিরেছেন।এসএ/  

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জুরি বোর্ড গঠন

২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দিতে ১৩ সদস্যের জুরি বোর্ড গঠন করেছে সরকার। গঠিত বোর্ড সংশ্লিষ্ট নীতিমালা অনুযায়ী মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রগুলো মূল্যায়ন করে পুরস্কার দেওয়ার জন্য নাম সুপারিশ করবে। সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এ কথা জানানো হয়েছে। তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, ১৩ সদস্য বিশিষ্ট জুরি বোর্ডে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে (প্রশাসন ও চলচ্চিত্র) সভাপতি করা হয়েছে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান সদস্য-সচিব ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (চলচ্চিত্র) ও বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক সদস্য হিসেবে বোর্ডে দায়িত্ব পালন করবেন।২০১৭ সালের জুরি বোর্ডের সদস্যরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া, একুশে টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মনজুরুল আহসান বুলবুল, চলচ্চিত্র অভিনেত্রী কোহিনুর আক্তার সুচন্দা, চলচ্চিত্র অভিনেতা ও প্রযোজক এমএ আলমগীর, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, চিত্রগ্রাহক পংকজ পালিত ও সঙ্গীত পরিচালক সুজেয় শ্যাম। ২০১৮ সালের জুরি বোর্ডের অন্য সদস্যরা হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্ট অব টেলিভিশন ফিল্ম অ্যান্ড ফটোগ্রাফির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শফিউল আলম ভূঁইয়া, চলচ্চিত্র অভিনেতা ড. এনামুল হক, সঙ্গীতশিল্পী ফকির আলমগীর, দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, গীতিকার ও সঙ্গীত পরিচালক হাসান মতিউর রহমান, অভিনেত্রী রওশন আরা রোজিনা, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার ও বাংলাদেশ চিত্রগ্রাহক সংস্থার যুগ্ম-মহাসচিব তপন আহমেদ।এসএ/  

‘আমার চরিত্রে ডার্ক শেড আছে’

জয়া আহসান ব্যস্ত সময় পার করছেন। নিয়মিতই এখন তিনি দুই বাংলার ছবিতে অভিনয় করছেন। এ বার তিনি পদ্মা নয়। বৃষ্টি হয়ে ঝরে পড়বেন। অতনু ঘোষের আগামী ছবি ‘বিনিসুতো’-র জন্য তিনি এখন কলকাতায় অবস্থান করছেন। কথা বলেছেন কলকাতার একটি গণমাধ্যমে।       জয়া আহসান তার সিনেমা সম্পর্কে বলেন, ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’ নারীকেন্দ্রিক ছবি। কপ্লিট পার্সোনালিটির গল্প। সেই থেকে মেয়েটির জীবনে একটা ঘটনা ঘটে যায়। সেই নিয়ে ছবি এগোয়। এটি পুরোপুরি আলাদা রকমের সিনেমা। আমার চরিত্রে একটা অসম্ভব স্ট্রং সেন্স আছে। এই প্রথম আমি সাইকো থ্রিলার সিনেমায় অভিনয় করছি। ফলে বাড়তি একটু চাপ তো ছিলই। কিন্তু আমার সহ-অভিনেতাদের কাছ থেকে সম্পূর্ণভাবে সাহায্য পেয়েছি।’    জয়া আহসান এর আগে কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়, অরিন্দম শীল, সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের মতো প্রতিষ্ঠিত পরিচালকের সঙ্গে কাজ করেছেন। চলচ্চিত্রে অর্ণব পাল একেবারেই নতুন। তাঁর সঙ্গে কাজ করতে রাজি হলেন কেন? জয়া বললেন, ‘‘গল্পটা বেশ ভাল লেগেছিল। আর আমার চরিত্রে ডার্ক শেড আছে। গল্পে আমার চরিত্রের যে ছায়াগুলো ফুটে উঠবে, তা খুব ইন্টারেস্টিং।’’ অর্ণব পালের পরিচালনায় এই সিনেমাতে জয়া ছাড়াও অভিনয় করছেন বাদশা মৈত্র, চিরঞ্জিত চক্রবর্তী, রজতাভ দত্ত, তনুশ্রী চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত দত্ত, রাজেশ শর্মা প্রমুখ। রাজেশ শর্মাকে দেখা যাবে পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। সুব্রত দত্ত অভিনয় করবেন একজন স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন অফিসারের চরিত্রে এবং তাঁর সহকারী হলেন রজতাভ দত্ত। চিরঞ্জিৎ চক্রবর্তী অভিনয় করবেন এক নামজাদা সাইক্রিয়াটিস্টের ভূমিকায়। ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’ সিনেমার সঙ্গীত পরিচালনা করছেন দেবজ্যোতি মিশ্র ও রকেট মণ্ডল। কাহিনি, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন অংশুমান-প্রত্যূষ। দর্শকের প্রতি সম্পৃর্ণ আস্থা রেখেই বলেন জয়া, ‘‘এখন গল্প বলার যুগ। অভিনেতাদের ছবি দেখে মানুষ হলে যায় না। মুম্বইতেও খেয়াল করলে দেখা যাবে, হিরোরা ক্যারেক্টর রোল করছেন। দর্শক আসলে বিচারক। দর্শক ভাল কাজকে খুঁজে নিতে জানে। সেই কারণেই এখনও ‘বিজয়া’চলছে।’’ অতনু ঘোষের নতুন ছবিতে শুধু অভিনয় নয়, গানও রেকর্ড করেছেন জয়া। কোন গান জনাতে চাইলে জয়া বলেন, ‘সেটা এ মুহূর্তে বলা যাবে না। তবে ছবির চরিত্র যেমন তাতে গান রেকর্ড করলে কানে লাগত। তাই এই সিদ্ধান্ত। ঢাল নেই তরোয়াল নেই নিধিরাম সর্দার। গেয়ে দিলাম...বুঝলেন?’ অভিনেত্রী বা প্রযোজক জয়া নন, বলে উঠল নদী, মাঠ ঘেরা বাংলার এক মেয়ে। আজও কলকাতায় বসে বাংলাদেশের বইমেলার জন্য যাঁর মনখারাপ করে। কখনও তিনি ‘বৃষ্টি’,কখনও ‘পদ্মা’। ‘আমার জীবনের সম্পর্ক, আমি কী খাই, কী পড়ি—এ সব নিয়ে আমি কোনওদিন কথা বলতে চাইনি। আমি মনে করি, কাজ করলে তবেই কথা হবে। ব্যক্তিজীবনকে আড়ালে রাখতেই ভালবাসি আমি,’ রহস্যের হাসি নিয়ে বললেন জয়া। ‘দেবী’র সাফল্যের পর নতুন প্রযোজনার কাজেও হাত দেবেন জয়া। ছবির নাম ‘ফুড়ুৎ’। ফেসবুক নয়। ইন্স্টাগ্রামে বারে বারে ভিন্ন অভিব্যক্তির জয়াকে দেখা যায়। তাঁর ছবি যেন সব কথা বলে দেয়। শোনা যাচ্ছে ‘বিজয়া’র সিক্যুয়েল হবে? ‘হুমম। হবে হয়তো। ছবিটার সাফল্যই কৌশিকদাকে ‘বিজয়া’র সিক্যুয়েল নিয়ে ভাবতে বাধ্য করছে।’’ এসি   

বিক্রমের উপহারে কেঁদে ফেললেন ঐন্দ্রিলা  

উপহার পেলে সবাই খুশি হয়। কিন্তু উপহার পেয়ে কাউকে কি কাঁদতে দেখেছেন? নিশ্চয় নয়? যদি কারোর চোখে জল এসেও থাকে, তাহলে সেটাও আনন্দাশ্রুই হয়। সম্প্রতি বন্ধু তথা সহ অভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের কাছে উপহার পেয়ে কেঁদেই ফেললেন টেলি অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সেন। নিজেই জানিয়েছেন সেকথা।     `ফাগুন বৌ` ধারাবাহিকের ঐন্দ্রিলা সেন ও বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের জুটি বেশ জনপ্রিয়। পর্দার বাইরেও কিন্তু ঐন্দ্রিলা-বিক্রমের মধ্যে বেশ ভালোই বন্ধুত্ব রয়েছে। সম্প্রতি নিজের সোশ্যাল সাইটে নিজেরই একটি পোস্ট করেছেন ঐন্দ্রিলা। তাতে তাঁকে টি-শার্ট ও জিন্সে দেখা গেছে। ঐন্দ্রিলা সেই ছবির নিজে ক্যাপশানে লিখেছেন, বিক্রমের কাছ থেকে এই টি-শার্ট উপহার পেয়ে চোখে জল এসে গেল। পাশাপাশি লিখেছেন বিক্রমের কাছ থেকে প্রথমবার কোনও উপহার পেয়ে তিনি আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলেন।    ঐন্দ্রিলার এই কথা শুনে বেশ বোঝা যাচ্ছে উপহার পেয়ে তাঁর চোখে যে জল এসেছে তা আনন্দের। কিছুদিন আগে ঐন্দ্রিলা-বিক্রমের মোস্ট ডিসায়ারেবল পুরস্কার পাওয়ার খবরও দুঃখের সঙ্গেই জানিয়েছিলেন ঐন্দ্রিলার প্রেমিক অঙ্কুশ। তাঁদেরকে শুভেচ্ছা জানালেও, ইনস্টাগ্রামের ভিডিওতে অঙ্কুশ জানিয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা-অঙ্কুশের এই সাফল্যের খবরে তিনি মোটেও খুশি হননি। এসব দেখে শুনে অনেকেই ভাবতে পারেন যে তাহলে `ডাল মে কুচ কালা হ্যায় কেয়া?` না, তবে এমনটা ভাবারও কারণ নেই। কারণ ঐন্দ্রিলা-অঙ্কুশের প্রেম বহুদিনের, আর অঙ্কুশের সঙ্গে বিক্রমের সম্পর্ক বেশ বন্ধুত্বপূর্ণ। আর বিক্রম নেহাতই তাঁর ভালো বন্ধু বলেই দাবি করেন ঐন্দ্রিলা সেন। এসি     

সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করবেন সাইমন

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে ভেতরে ভেতরে শুরু হয়েছে প্রস্তুতি। প্যানেল ঘোষণা এখনও না হলেও এবারের নির্বাচন নিয়ে চলছে নানা সমিকরণ। আগামী জুনে শেষ হচ্ছে এ কমিটির মেয়াদ। এরপরই অনুষ্ঠিত হবে শিল্পী সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচন।    শিল্পী সমিতির এবারের নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হচ্ছেন চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক। গত নির্বাচনে কার্যকরী পরিষদ থেকে নির্বাচন করেছিলেন সাইমন। নির্বাচিতদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৬১ ভোট পেয়ে তিনি বিজয়ী হন। নিজের সেই জনপ্রিয়তাকে এবার কাজে লাগাতে চান তিনি। সাইমন সাদিক একুশে টেলিভিশন অনলাইনকে বলেন, আমি এবার সাধরণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করতে চাই। সমিতির উন্নয়নে আরও কাজ করতে চাই। শিল্পীদের পাশে আরও ভালোভাবে দাঁড়াতে চাই। এ জন্য এ পদে নির্বাচন করার ইচ্ছা। তিনি বলেন, বর্তমান কমিটি সমিতিতে অনেক উন্নয়ন করেছে। যতটুকু কাজ হওয়ার কথা ছিল তার চেয়ে বেশি করেছে। একসময় সমিতির অবস্থা অনেক খারাপ ছিল। এখন সে অবস্থা নেই। অবকাঠামোসহ অনেক উন্নয়ন হয়েছে। তাই এই উন্নয়নকে আরও এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রার্থী হচ্ছি। এদিকে একই পদে আবারও নির্বাচন করার কথা শুনা যাচ্ছে বর্তমান সাধারন সাম্পাদক জায়েদ খানের। এছাড়া প্রার্থী হতে পারেন সাবেক সাধারন সম্পাদক অমিত হাসানও। ফলে নানামুখী লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে শুরু থেকেই। এসি    

সেন্সরে প্রশংসিত তৌকীরের ‘ফাগুন হাওয়ায়’

জনপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা তৌকীর আহমেদের নতুন চলচ্চিত্র ‘ফাগুন হাওয়ায়’ সেন্সর বোর্ডের ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছে। পুরো সেন্সর বোর্ডই চলচ্চিত্রটি নিয়ে প্রশংসা করেছে। এ বিষয়ে মুশফিকুর রহমান গুলজার বলেন, ‘চমৎকার সিনেমা। খুব ভালো লেগেছে। একেবারে আনকাট ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে চলচ্চিত্রটির।’ মহান ভাষা আন্দোলনের সময়ে মফস্বলের মানুষের ভাবনা, আন্দোলনের প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘ফাগুন হাওয়ায়’। এখানে বিপ্লবী চরিত্র হাজির হয়েছেন সিয়াম আহমেদ, নুসরাত ইমরোজ তিশা, রওনক হাসান ও সাজু খাদেম। পাকিস্তানি কর্মকর্তা হিসেবে এসেছেন ‘লগান’-খ্যাত অভিনেতা যশপাল শর্মা। এছাড়া আছেন ফারুক আহমেদ, হাসান আহমেদসহ অনেকে।সিনেমাটি প্রযোজনা করছে ইমপ্রেস টেলিফিল্মস। পরিবেশনার দায়িত্বে থাকা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টাইগার মিডিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি মুক্তির প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। সিনেমাটির ট্রেলার দেখুন : এসএ/  

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি