ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২০:১৪:২৯

বরগুনায় বাস-মাইক্রোর সংঘর্ষে আহত ৭  

বরগুনায় বাস-মাইক্রোর সংঘর্ষে এক প্রসূতি নারীসহ ৭ জন মারাত্মক আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। ঘটনাটি ঘটে বেতাগী উপজেলার চান্দুখালী বাজারের ব্রিজের কাছে। শুক্রবার বিকাল ৩টায় সুবিদখালী থেকে বরগুনাগামী যাত্রীবাহি মাইক্রোর সঙ্গে বরগুনা থেকে বরিশালগামী দোয়েল পরিবহনের একটি বাসের ওই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।    গুরুতর আহতদের মধ্যে তিনজনকে বরিশাল (শেবাচিম) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। চান্দুখালী বাজারে অবস্থিত ফায়ার সার্ভিসের ক্যাপ্টেন মো. জিয়াউল করিম বলেন, দুর্ঘটনার সময় উভয় চালক বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। একইসঙ্গে বৈরী আবহাওয়ার কারণে নিয়ন্ত্রণ হারালেওই সংঘর্ষ ঘটে। এসি    

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে একাধিক পদে নিয়োগ 

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে একাধিক পদে অস্থায়ী ভিত্তিতে নিয়োগ দেবে। আগ্রহ ও যোগ্যতা থাকলে আপনিও আবেদন করতে পারেন। পদের নাম ও সংখ্যা  ১.উচ্চমান সহকারি-১টি বেতন-১১,০০০-২৬,৫৯০ টাকা  ২. ক্যাটালগার- ১টি বেতন-১১,০০০-২৬,৫৯০ টাকা ৩.  ভাণ্ডার রক্ষক-১টি বেতন-১১,০০০-২৬,৫৯০ ৪.উচ্চমান সহকারি- ১টি বেতন-১০,২০০-২৪৬৮০ টাকা ৫. ডাটা এন্ট্রি/ কন্ট্রোল অপারেটর - ২টি বেতন- ১০,২০০-২৪,৬৮০ টাকা ৬. অফিস সহকারি- কাম মুদ্রাক্ষরিক- ৩টি বেতন-৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা ৭. অফসেট প্লেট মেকার-১টি বেতন-৯৭০০-২৩৪৯০ টাকা ৮.সনদপত্র লেখক- ১টি বেতন-৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা ৯.লেটার প্রেস রাইটার- ১টি বেতন- ৯,০০০-২১,৪৯০ টাকা ১০. রিসিপশনিস্ট- ১ টি বেতন- ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা ১১. গাড়ি চালক- ১টি বেতন- ৯,৩০০-২২,৪৯০ টাকা ১২. নাম্বারিং মেশিন- ১টি বেতন-৯,০০০-২১,৮০০ টাকা ১৩. অফিস এটেনডেণ্ট- ২ টি বেতন- ৯,০০০-২১,৮০০ টাকা ১৪. কম্পিউটার ল্যাব- ১টি বেতন- ৮৫০০-২০,৫৭০ টাকা ১৫. এমএলএসএস- ৫টি বেতন-৮,২৫০-২০০১০ টাকা ১৬. সুইপার-১টি বেতন-৮২৫০-২০০১০ টাকা আবেদনের সময়ঃ ১৮ অক্টোবর ২০১৮ তারিখের মধ্যে আবেদন করতে হবে।   যেভাবে আবেদন করবেনঃ এই নিয়োগ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে লগিং করুন- www.bteb.gov.bd ওয়েভ সাইট এই বিজ্ঞপ্তি পাওয়া যাবে।     কেআই/এসি      

ক্যাটরিনার প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছেন আমির!  

ক্রমশ প্রকাশ্য... খানিকটা এই ভঙ্গিতেই `ঠগস অফ হিন্দুস্থান`-এর চরিত্রগুলির সঙ্গে আলাপ করাচ্ছেন মিস্টার `মিস্টার পারফেকশনিস্ট`। `ঠগস অফ হিন্দুস্থান`-এর লোগো প্রকাশ্যে আনার পর, পরে একে একে `খুদাবক্স` অমিতাভ, `জাফিরা` ফতিমা সানা শেখ, `জন ক্লাইভ` লয়েড ওয়েনের সঙ্গে আলাপ করিয়েছেন আমির। এবার পালা `সুরাইয়া জান`এর, থুড়ি ক্যাটরিনা কাইফের। সুরাইয়া জান চরিত্রেই ঠগস অফ হিন্দুস্থানে দেখা যাবে ক্যাটরিনাকে। তাঁর সেই লুক কেমন সেটা এবার প্রকাশ্যে আনলেন প্রযোজনা সংস্থা। মোশন পিকচারের মাধ্যমে `ঠকস অফ হিন্দুস্থান` যে `সুরাইয়া জান`-এর সঙ্গে `যশ রাজ ফিল্মস`এর তরফে আলাপ করানো হয়েছে ভালো করে দেখলে সেই সুরাইয়া জানের সঙ্গে ক্যাটরিনার `চিকনি চামেলি` লুকের বেশ মিল পাওয়া যায়। এখানে `সুরাইয়া জান` ক্যাটরিনাকে দেখা যাচ্ছে গর্জিয়াস লেহেঙ্গা পরে নাকে নথ, হাতে মেহেন্দি পরে আদাবের ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে রয়েছে। এই সেই `সুরাইয়া জান`-এর সঙ্গে আলাপ করাতে গিয়ে আমির খান লিখেছেন, ``সুরাইয়া জান হল সবথেকে সুন্দরী ঠগ, সেই ধুম ৩-র সময় থেকেই ক্যাটরিনার প্রেমে পড়েছি, তবে কিছুইতেই বলে উঠতে পারিনি, কেউ যদি আমার হয়ে তাঁকে একথা জানিয়ে দেন তাহলে ভীষণ ভালো হয়। `` এর আগে এই `ঠগস অফ হিন্দুস্থান`-এর জন্য আরও এক চমক দিয়েছিলেন আমির। এই ছবির ভিলেন `লয়েড ওয়েন`এর চরিত্রের সঙ্গে আলাপ করিয়েছিলেন। যে চরিত্রটিতে অভিনয় করছেন ব্রিটিশ অভিনেতা জন ক্লাইভ। জল ক্লাইভের সঙ্গে আলাপ করিয়ে আমির লিখেছিলেন, ``ইনি জন ক্লাইভ, এনাকে রবার্ট ক্লাইভের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলবেন না যেন। `` তারও আগে `দঙ্গল কন্যা` ফতিমা সানা শেখের `ঠকস অফ হিন্দুস্থান`-এর `যুদ্ধবাজ` জাফাইরা লুকের সঙ্গেও আলাপ করিয়েছেন আমির। লিখেছিলেন, যুদ্ধবাজ ঠক, এনার থেকে দূরে থাকুন। তবে এখনও পর্যন্ত `ঠকস অফ হিন্দুস্থান`- এর সবথেকে চমকদার লুক ছিল অমিতাভের `খুদাবক্স` চরিত্রের লুক। মোশন পিকচারে দেখা গেছে একটা বাজপাখি উড়ে এসে অমিতাভের জাহাজে রাখা কামানের উপর বসছে। আর অমিতাভকে দেখা যাচ্ছে যুদ্ধের পোশাকে তলোয়ার হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে। জানা যাচ্ছে, `ঠগস অফ হিন্দুস্থান` ছবির বেশিরভাগ শ্যুটিংই হয়েছে ইউরোপের মাল্টা উপকূলে। ছবির প্রয়োজনে তৈরি হয়েছে আস্ত দুটি জাহাজ। যে জাহাজ দুটি ১০০০ জন শ্রমিক ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন জাহাজ ডিজাইনাররা মিলে তৈরি করেছেন। ঠগসদের উপর ভিত্তি করে পুরো ছবিটিই ভিস্যুয়্যাল এফেক্স দিতে চেয়েছিলেন পরিচালক ভিক্টর ওরফে বিজয় কৃষ্ণ আচারিয়া। ফিলিপ মিডোস টেইলর এর লেখা উপন্যাস `কনফেশন অফ ঠগস`-অবল্বনে তৈরি হচ্ছে।      এসি  

নাচতে কোরিয়া যাচ্ছেন অপু বিশ্বাস

ঢালিউডের অন্যতম নায়িকা অপু বিশ্বাস। চলচ্চিত্র অভিনয়ের পাশাপাশি এখন স্টেজ শো নিয়ে রয়েছেন ব্যস্ত। তিনি এবার দক্ষিণ কোরিয়া যাচ্ছেন নাচে অংশ নিতে। আজ সন্ধ্যায় তার ঢাকা থেকে যাত্রা করার কথা। সিউলের আনসান ওয়া স্টেডিয়ামে আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর একটি অনুষ্ঠানে তিনি অংশ নেবেন। সেখানে বসবাসরত বাঙালি কমিউনিটির উদ্যোগে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ ফেস্টিভ্যাল’-এ অংশ নেবেন এই ঢালিউড কুইন। যাওয়ার আগে অপু বিশ্বাস বলেন, অভিনয় নয়, ‘এখানে তিনি নাচে অংশ নেবেন। অভিনয়ের পাশাপাশি নিয়মিত আমি স্টেজ শোগুলো করছি। বেশ ভালো এক অভিজ্ঞতা হয় এতে। সেকারণেই দুবাই থেকে ফিরেই এখন দক্ষিণ কোরিয়া যাচ্ছি।`      অপু অনুষ্ঠানের পরের দিন অর্থাৎ ২৪ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরবেন। এর আগে গত সপ্তাহে দুবাইয়ে স্টেজ শো করেছে এসেছেন। এদিকে অপু বিশ্বাস এরই মধ্যে প্রায় শেষ করেছেন দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-টু’ এবং কলকাতার শিল্পী নচিকেতা চক্রবর্তীর লেখা চলচ্চিত্র `শর্টকাট`-এর কাজ । এদিকে তার‘কানাগলি’ সিনেমারও শুটিং শিগগিরই শুরু হবে। এসি    

বার বার সাপের কামড় খেয়েও বেঁচে আছেন তারা!   

ভারতে দুই ব্যক্তিকে নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। রাজস্থানে তাদের ঘিরে সৃস্টি হয়েছে বিস্ময়। যেখানে সাপের এক কামড়ে অসংখ্যা মানুষের প্রাণ যেতে পারে, সেই সাপের কামড় খেয়ে দিনের পর দিন বেঁচে রয়েছেন রাজস্থানের এই দুই ব্যক্তি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা যায়। জানা যায়, খবর পেয়ে চণ্ডীগড়ের পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চ-এর গবেষকরা ওই দুজনকে নিয়ে আসেন এবং তাদের ওপরে গবেষণা শুরু করেন। চিকিৎসক অসীম মেহরা, দেবাশিস বসু এবং সন্দীপ গ্রোভার এই দুই ব্যক্তিকে পরীক্ষা করে দেখতে চেয়েছেন, সাপের বিষকে নেশার বস্তু হিসেবে গ্রহণ করার মিথটি কতটা সত্য।    জানা গেছে, ওই দুই ব্যক্তি গত ১৫ বছর ধরে নেশা করে আসছেন। চিকিৎসক সন্দীপ গ্রোভার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত ভারতে নেশার বস্তু হিসেবে সাপের বিষের ব্যবহার নিয়ে মাত্র চারটি রিপোর্ট রয়েছে। এই দুই ব্যক্তিকে পরীক্ষা করলে এই বিষয়ে আরও খানিকটা আলোকপাত ঘটতে পারে। এসি   

পল্লবীতে যুবকের মরদেহ উদ্ধার 

রাজধানীর পল্লবী থানার বেনারসি পল্লি এলাকায় সাব্বির (২৮) নামের এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সিটি করপোরেশনের একটি পরিত্যক্ত ভবনের পাশ থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। শুক্রবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সাব্বিরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।    ওসি জানান, নিহত ওই যুবকের নাম সাব্বির বলে তারা জানতে পেরেছেন। তিনি বলেন, ‘ স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি, বৃহস্পতিবার রাতে তাকে হত্যা করে কে বা কারা লাশ ফেলে রেখে গেছে। তবে কী কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে, সে বিষয়ে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। ’ নজরুল ইসলাম বলেন, নিহত ব্যাক্তির পূর্ণাঙ্গ পরিচয় বের করার চেষ্টা চলছে। এবং হত্যা রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে। এসি    

আসছে তুর্কি সিরিয়াল ‘জান্নাত’ 

বাংলাদেশে বিদেশি সিরিয়ালের জয়জয়কার চলতেছে। তুর্কি সিরিয়াল ‘সুলতান সুলেমান’সহ অনেকগুলো সিরিয়াল চলে আসে আলোচনার কেন্ত্রবিন্দুতে। বাংলায় ডাবকৃত টিভি সিরিজগুলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে। সেগুলোর ধারাবাহিকতা রক্ষা করে এবার বাংলাদেশে আসছে আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত তুর্কি দীর্ঘ ধারাবাহিক ‘জান্নাত’। আগামী ৭ই অক্টোবর থেকে এটিএন বাংলায় প্রতি রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় এটি প্রচার হবে।    ‘জান্নাত’ সিরিয়ালের গল্পটি যেমন একটি নিখাদ পারিবারিক, তেমনি এটি বর্তমান সময়েরও গল্প। ‘জান্নাত’-এর কাহিনী আবর্তিত হয়েছে এক এতিম মেয়ের জীবনসংগ্রামকে কেন্দ্র করে। দারিদ্র্যের মধ্যে বড় হওয়া মেয়েটি যখন আর্কিটেক্ট হয়ে তার স্বপ্নের ফার্মে চাকরি পায়। তখন ভাবে অবশেষে তার জীবনের দুঃখ-দুর্দশা দূর হতে শুরু করেছে। অথচ সেই চাকরি পাওয়ার ঘটনা থেকেই তার জীবনে নতুন করে জটিলতার সৃষ্টি হতে থাকে। তাকে ফেলে যাওয়া মা আবারো তার জীবনে ফিরে আসে। তবে, মাতৃসুলভ ভালোবাসা নিয়ে নয়, বরং তার প্রতি তীব্র বিদ্বেষ নিয়েই তার জীবনে আবির্ভূত হয়। অন্যদিকে, তার জীবনে যে প্রেম আসে, সেখানেও তার প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে দাঁড়ায় তার মায়েরই মেয়ে। এটির পুরো ডাবিং প্রক্রিয়ার তত্ত্বাবধান করছেন ‘সুলতান সুলেমান’ খ্যাত দীপক সুমন। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত তুর্কি ডেইলি সোপ ‘জান্নাত’-এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘সুরেজ ফিল্ম’। সিরিয়ালটি প্রচারিত হয়েছে তুরস্কের চ্যানেল ‘এটিভি’-তে। এটি পরিচালনা করেছেন সাদুল্লাহ জেলেন। এসি    

খালেদা জিয়ার বিচারে এত তাড়া কেন: ফকরুল

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার মামলা নিয়ে বিচার বিভাগের তাড়ার বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে মামলা শেষ করার এত তাড়া কেন? সরকার খালেদা জিয়ার মামলা দ্রুত শেষ করে তাকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেন মির্জা ফকরুল। নিম্ন আদালতকে সরকার করায়ত্ত করে ফেলেছে বলেও অভিযোগ করেন বিএনপি নেতা। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় দলের চেয়াপারসনের গুলশান কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন। বিএনপির মহাসচিব বলেন, খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচার কার্যক্রম চলবে বলে আদালতের দেওয়া আদেশ আমরা মেনে নিতে পারছি না। এ সময় এ মামলার শুনানি বন্ধ করে অবিলম্বে কোনও বেসরকারি বিশেষায়িত হাসপাতালে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবি জানান তিনি। মির্জা ফকরুল বলেন, ফৌজদারি মামলায় যার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয় তার উপস্থিতিতেই মামলার কার্যক্রম পরিচালনা করা আইনসম্মত। কিন্তু খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার শুনানি চলবে বলে যে আদেশ দেওয়া হয়েছে তা ন্যায়বিচার ও মৌলিক অধিকারের পরিপন্থী। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ড. মঈন খান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, নজরুল ইসলাম খান ও আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। একে//

ঢাবি ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা আজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের অধীনে প্রথম বর্ষ সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষা আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ৬৯টি কেন্দ্রে। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এ বছর দুই হাজার ৩৮৩ আসনের জন্য ভর্তিচ্ছু আবেদনকারী ৩৫ হাজার ৭২৬ জন। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে শিক্ষার্থীসহ সংশ্নিষ্ট সবার অবগতির জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জানিয়েছে, পরীক্ষার হলে মোবাইল বা টেলিযোগাযোগ করা যায় এমন কোনো ইলেকট্রনিক ডিভাইস বা যন্ত্র সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ। পরীক্ষায় মোবাইল কোর্ট দায়িত্ব পালন করবেন। ভর্তি পরীক্ষার সিট প্ল্যান বিশ্ববিদ্যালয়ের admission.eis. du.ac.bd ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউটসহ ক্যাম্পাসের বাইরের কেন্দ্রগুলো হলো- নীলক্ষেত স্কুল, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও কলেজ, ঢাকা কলেজ ও ইডেন কলেজ।এসএ/

উৎসে কর কমানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে: বাণিজ্যমন্ত্রী 

ব্যবসায় ব্যয় হ্রাসের লক্ষ্যে উৎসে কর কমানোসহ অন্যান্য উদ্যোগ গ্রহণের বিষয়টি সরকারের সক্রিয়ভাবে বিবেচনায় রয়েছে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। আজ বৃহষ্পতিবার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই)’র “ডিসিসিআই প্রেসিডেন্ট’স এক্সিকিউটিভ ফ্লোর” উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।    বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, সম্প্রতি মজুরি কমিশন কর্তৃক পোশাক খাতের শ্রমিকদের জন্য ৮ হাজার টাকা মজুরি নির্ধারণ করার ফলে ব্যবসা পরিচালনায় কিছুটা ব্যয় বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে, এমতাবস্থায় সরকার ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনায় ব্যয় হ্রাসের জন্য উৎসে কর কমানোর মত অন্যান্য উদ্যোগ গ্রহণের বিষয়টি সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করছে। তোফায়েল আহমেদ বলেন, দেশের ব্যবসায়ী সমাজের সার্বিক সহযোগিতার ফলে বাংলাদেশ বর্তমানে সারা পৃথিবীতে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে পরিণত হবে। তিনি বলেন, দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য ও অর্থনীতিকে গতিশীল করার জন্য দীর্ঘদিন যাবত ঢাকা চেম্বার অত্যন্ত সক্রিয়ভাবে কাজ করে আসছে। তোফায়েল আহমেদ বলেন, বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম সম্প্রসারণের লক্ষ্যে বর্তমান সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি (এফটিএ) স্বাক্ষরের জন্য প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রেখেছে এবং ভিয়েতনামের সঙ্গে এফটিএ স্বাক্ষরের বিষয়টিতে বেশ অগ্রগতি হয়েছে। ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আবুল কাসেম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডিসিসিআই ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি কামরুল ইসলাম, এফসিএ, পরিচালক ইঞ্জিনয়ার আকবর হাকিম ও হোসেন এ সিকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এসি  

সংসদে কমিউনিটি স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্ট বিল পাস  

সরকারের পাশাপাশি সামাজিক সংগঠন, ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সহায়তায় গ্রামীণ জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্ট গঠন ও আনুসাঙ্গিক অন্যান্য বিষয়ে বিধান করে আজ সংসদে কমিউনিটি স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্ট বিল, ২০১৮ পাস করা হয়েছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন।   বিলে উল্লেখিত বিধান কার্যকর হবার পর যথাশিগগির সম্ভব কমিউনিটি ক্লিনিক সহায়তা ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠার বিধান করা হয়।বিলের ট্রাস্টের প্রধান কার্যালয় ঢাকায় এবং প্রয়োজনে দেশের যে কোন স্থানে এর শাখা কার্যালয় স্থাপন করা হয়। বিলে ট্রাস্টের পরিচালনা ও প্রশাসন, ট্রাস্টের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য, উপদেষ্টা পরিষদ গঠন, একজন সভাপতির নেতৃত্বে একটি ট্রাস্টি বোর্ড গঠন, বোর্ডের দায়িত্ব ও কার্যাবলি, সমন্বয়ক ও তদারকি, কমিটি গঠন, বোর্ডের সভা, ট্রাস্টের তহবিল, ব্যবস্থাপনা পরিচালক নিয়োগ, ট্রাস্টের কর্মচারী, বাজেট, হিসাবরক্ষণ ও নিরীক্ষা, প্রতিবেদন পেশ, বিধি-প্রবিধি প্রণয়নের ক্ষমতা, নীতিমালা প্রণয়নের ক্ষমতাসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়। জাতীয় পার্টির ফখরুল ইমাম, নূরুল ইসলাম ওমর, নূরুল ইসলাম মিলন, সেলিম উদ্দিন, কাজী ফিরোজ রশীদ, মোহাম্মদ নোমান, বেগম রওশন আরা মান্নান, বেগম নূর-ই-হাসনা লিলি চৌধুরী, বেগম মাহজাবীন মোরশেদ বিলের ওপর জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলে তা কন্ঠভোটে নাকচ হয়ে যায়। এসি    

সড়কপথে ঢাকা থেকে কক্সবাজার সফর করবেন ওবায়দুল কাদের 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সড়কপথে কক্সবাজার সফর করবেন। আগামী ২২ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ৯টায় আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডিস্থ রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে সড়ক পথে এই সাংগঠনিক সফর শুরু হবে। যাত্রাপথে এদিন তিনি কুমিল্লার ইলিয়টগঞ্জ, কুমিল্লা টাউনহল মাঠ, চৌদ্দগ্রাম, ফেনী ও সীতাকুন্ড এবং ২৩ সেপ্টেম্বর রবিবার চট্টগ্রাম জেলার কর্ণফুলী থানা, লোহাগাড়া উপজেলা, কক্সবাজারের চকরিয়ায় বাসস্ট্যান্ড, রামু ঈদগাঁ মাঠে বিভিন্ন দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।    আওয়ামী লীগের এক সংবাদ বিঞ্জপ্তিতে আজ বলা হয়, কর্মসূচিতে দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, অ্যাডভোকেট আব্দুল মতিন খসরু, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, উপ-প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন ও উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ওবায়দুল কাদের’র সফরসঙ্গী হিসেবে থাকবেন। এসি   

শাকিব কী গ্যাংস্টার না পুলিশ!

ঢালিউড কিং শাকিব খান এখন দুই বাংলা দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। মুক্তি পাচ্ছে তার নতুন ছবি। সেখানে তিনি গ্যাংস্টার নাকি পুলিশ। তার উত্তর মিলবে শুক্রবার। কারণ এ দিনই কলকাতায় মুক্তি পাচ্ছে তার সিনেমা ‘নাকাব’। বাংলাদেশে একই দিন ছবিটি মুক্তি দেওয়ার কথা থাকলেও পিছিয়ে গেছে।      তবে নাকাব ছবিতে শাকিব দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন। গল্প অনুযায়ী, একজন শাকিব গ্যাংস্টারের ভূমিকায় এবং আরেকজন শাকিব পুলিশের ভুমিকায় অভিনয় করেছেন৷ ভূতের চরিত্রে রয়েছেন পুলিশ শাকিব খান৷     টলিউডে শাকিব একের পর এক হিট ছবি করে চলেছেন৷ এরই মধ্যে একটা ভালই ফ্যানবেস তৈরি হয়েছে শাকিবের৷ এবং বাংলাদেশে তাঁর ভক্তরা অগণিত তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না৷ ভূত শাকিব নাকি মানুষ শাকিব৷ রাজীব বিশ্বাস পরিচালিত এই ছবিতে শাকিবকে ডাবল রোলে দেখা যাবে৷ ছবিতে রয়েছে ভৌতিক চমক৷ ছবির নায়িকা দু’জন, সায়ন্তিকা এবং নুসরত৷ এসি  

রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

রাজধানী ঢাকায় আজ গরম ছিল তীব্র। আর এই তীব্র গরমে অতিষ্ট খেটে খাওয়া মানুষ। অবশেষে রাতে হলো স্বস্তির বৃষ্টি। এই বৃষ্টি সাধারণ মানুষের জন্য আর্শীরবাদ হয়ে নেমে আসে আজ।  এছাড়াও, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ওপর দিয়ে যে মৃদু তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে তা প্রশমিত হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরণের ভারী থেকে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে বলে আজ আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে। এতে বলা হয়, রাজশাহী, বরিশাল ও খুলনা বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দম্কা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরণের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। দেশের তাপপ্রবাহ সম্পর্কে বলা হয়েছে, ঢাকা, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, মাদারীপুর, চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি, কুমিল্লা, চাঁদপুর, মাঈজদীকোর্ট, ফেনী, খুলনা, সাতক্ষীরা, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, ভোলা ও পটুয়াখালী অঞ্চল সমূহের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া মৃদু তাপ প্রবাহ প্রশমিত হতে পারে।সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ২-৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস এবং রাতের তাপমাত্রা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে। এসএইচ/

আমি চাই না সে ওয়েব সিরিজটি দেখুক: সানি লিওন 

সানি লিওন এর জীবনী ভিত্তিক ওয়েব সিরিজ ‘করণজিৎ কউর : দি আনটোল্ড স্টোরি অব সানি লিওন’ এর প্রথম মৌসুম ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। সানি লিওনের ভাই সন্দীপ বোহরা কী সিরিজটি দেখেছিলেন? প্রথম মৌসুমে দেখানো হয়েছিল, কীভাবে বলিউডে নিজের আসন পাকা করে নিয়েছিলেন সানি লিওন। বায়োপিক ওয়েব সিরিজের দ্বিতীয় মৌসুমে দেখানো হবে পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে কীভাবে ঢুকেছিলেন তিনি। এ মৌসুমে আরো দেখানো হবে, স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবারের সঙ্গে তাঁর প্রেম ও বদলে যাওয়া জীবন।    দ্বিতীয় মৌসুমের ট্রেইলার মুক্তির পর দর্শকমনে ব্যাপক আগ্রহ ও কৌতূহল তৈরি হয়েছে। তাঁরা সানির জীবনের সব সত্য জানতে চান। আর গত রাতে প্রথম পর্ব মুক্তির ভেতর দিয়ে শুরু হয়েছে ‘করণজিৎ কউর : দ্বিতীয় মৌসুম’। সম্প্রতি তিনি কথা বলেন সংবাদমাধ্যম বলিউড লাইফের সঙ্গে। তাকে জিজ্ঞেস করা হয়, ওয়েব সিরিজে তাঁকে দেখার পর তাঁর ভাই সন্দীপ বোহরার প্রতিক্রিয়া কী। এ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার ভাই দেখতে পারবে না এটা। কারণ এখানে এমন কিছু দেখানো হয়েছে, যা একেবারেই সত্য এবং দেখা খুব কঠিন।’ সানি আরো বলেন, ‘সে আমাকে মিথ্যা বলেছে যে, সে সব পর্বই দেখেছে। তবে আমি এ জন্য খুশি। আমি এ জন্য হতাশ নই। আমি চাই না, সে দেখুক। আমি চাই না, তাঁর খারাপ লাগুক।’ কিছুদিন আগে সানি বলেছিলেন, এ ওয়েব সিরিজে তিনি তাঁর অতীতের সত্যটাই তুলে ধরেছেন। বলিউডে অভিনয়জীবন শুরুর আগে সানি ছিলেন মার্কিন পর্নো ইন্ডাস্ট্রির নামকরা তারকা। পর্নো তারকা থেকে বলিউড তারকা—ওয়েব সিরিজের দ্বিতীয় পর্বে সানি তাঁর দীর্ঘ যাত্রার কথাই বলেছেন। যা বলেছেন, তা তাঁর অতীতের সত্য। সানি লিওন বলেন, ‘অতীতে ফিরে যাওয়া খুবই কঠিন। কিন্তু এই সিরিজটি তাঁর অতীতকে উপস্থাপন করবে ও সত্য জানার সুযোগ করে দেবে।’ ‘আমি আমার গল্প বলেছি। আমি জানি, সেগুলো কী। এটা সিনেমার মতোই কঠিন। এটা আমার কাছে খুবই আবেগপ্রবণ যাত্রা। কিন্তু আমি খুশি এ কারণে যে, আমি আমার সত্যটা বলেছি। এটা আমার জন্য কতটা কঠিন ছিল, তা ব্যাপার নয়।’ এসি  

যা করবে লোকচক্ষুর আড়ালে: মিমি 

“ঘুরে বেড়াও কিন্তু কাউকে বলো না৷ সত্যিকারের প্রেমের গল্প নিয়ে বাঁচো কিন্তু কাউকে বলো না৷ সুখী হয়ে সারাজীবন বাঁচো, কিন্তু কাউকে বলো না৷ সবকিছু নষ্ট করার অভ্যেস থাকে মানুষের৷ যা করবে লোকচক্ষুর আড়ালে”       এমনই এক অদ্ভুত পোস্ট শেয়ার করেছেন অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী৷ পোস্টের ক্যাপশন দিয়েছেন, “যে কথাটা লেখা রয়েছে আমার ভীষণ ভালো লেগেছে৷” মাঝেমধ্যেই মিমির এমন আপডেটে সন্দেহ করেন ফ্যানেরা৷ তাঁর শুভাকাঙ্খীরা কমেন্ট সেকশনে লিখেছে, রাজের জন্য বেশি দুঃখ না পেতে৷ যা হওয়ার তা তো হয়ে গিয়েছে৷ তাহলে কী সত্যি অতীতকে ভুলতে পারছেন না তিনি৷ পোস্টের লেখাটি কাকে সিক্রেটলি ডেডিকেট করলেন মিমি৷ হতে পারে যে কয়েকজন পোস্টটির সম্বন্ধে একটু গভীরভাবে ভাবছেন৷ মিমির হয়তো পোস্টের লেখাটা ভালো লেগেছে তাই শেয়ার করেছেন৷ তবুও স্পেক্যুলেশন তো হতেই থাকে৷ এই লেখাই যে ব্যক্তিগত জীবনে মিমি অনুসরণ করতে চান তা বোঝাই যাচ্ছে৷ প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে মুক্তি পেয়েছে অঙ্কুশ-মিমি অভিনীত ‘ভিলেন’-এর ট্রেলার। যেখানে এক-আধটা নয়, রয়েছে বেশ কয়েকটি ট্যুইস্ট। অঙ্কুশের দ্বৈত্য চরিত্রে থাকছেন কিনা সেই নিয়ে রয়েছে কনফিউশন। মিমির অঙ্কুশকে সন্দেহ করা, বন্দুক হাতে ঋত্বিকার নয়া অবতার, এমনকি ঋত্বিকা-অঙ্কুশের বিয়ে। সবকিছু মিলেমিশে তৈরি হয়েছে জমজমাট প্যাকেজ। যে অভিনেতা অঙ্কুশকে দর্শক এতদিন দেখে এসেছে, তা যেন আপাদমস্তক পাল্টে গিয়েছে। এ কেমন অঙ্কুশ! পোস্টারে তাঁর হাবভাব বলে দিচ্ছে এক নিমেষে সব শেষ করে দেবে সে৷ অফিশিয়াল পোস্টারে ছিল ইন্টারেস্টিং একটা দিক৷ অঙ্কুশের ঘৃণা, হিংসা ভরা চোখে কোথাও যেন রয়েছে চাপা দুঃখ৷ দু’চোখের আড়ালে রয়েছে না বলা অনেক কথা৷ এমন কোনও কারণ যা তাঁকে ভিলেন হতে বাধ্য করেছে৷ কী সেই কারণ? জানা যাবে পুজোর মরশুমে। ‘হইচই’র মজা, ‘রাজা’ এবং ‘শাহজাহান’র রাজত্ব, কিশোরকন্ঠী ‘কিশোর’র মাঝে ‘ভিলেন’ ও নাম লিখিয়েছে পুজো রিলিজের তালিকায়। তাই আর মাত্র কটা দিন ভিলেনের ভিলেনগিরি দেখার৷ এসি    

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি-লিট সম্মান নেবেন না সচিন  

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি-লিট সম্মান ফিরিয়ে দিলেন ক্রিকেটের ভগবান সচিন তেন্ডুলকর। এর আগেও তিনি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্মানিক ডি-লিট নিতে রাজি হননি। এ জন্য তাঁর পরিবর্তে ভারতীয় বক্সার মেরি কমকে সাম্মানিক ডি-লিট দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে জানানো হয়েছে, সচিন নীতিগত কারণেই ওই সম্মান ফিরিয়ে দিয়েছেন।    আগামী ২৪ ডিসেম্বর যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৩তম সমাবর্তনের অনুষ্ঠানে মাস্টার ব্লাস্টারের হাতে ওই সম্মান তুলে দিতে চেয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেই মতো তোড়জোড়ও শুরু হয়ে গিয়েছিল। সচিনকে ডি-লিট দেওয়া হবে, এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ক্যাম্পাসে উৎসবের আবহ তৈরি হয়। পড়ুয়া থেকে অধ্যাপকে— সকলেই আশায় ছিলেন, তাঁদের প্রিয় ক্রিকেটারকে সামনে থেকে দেখার। কিন্তু, সচিন সেই সাম্মানিক ডি-লিট নিতে অস্বীকার করতেই যেন হঠাৎ করে বিষাদের সুর ক্যাম্পাসে। সম্প্রতি সচিন ইমেল করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেন, নীতিগত কারণে তাঁর পক্ষে এই সাম্মানিক ডি-লিট গ্রহণ করা সম্ভব নয়। এর পরেই কর্মসমিতির বৈঠকে সচিনের পরিবর্তে কাকে এই সম্মান দেওয়া যায় তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। দীর্ঘ আলোচনার পর ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জয়ী বক্সার মেরি কম-এর নাম চূড়ান্ত হয়। ইতিমধ্যেই মেরি কমকে বিষয়টি জানিয়েও দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তাঁর তরফে কোনও সম্মতি মেলেনি। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আশাবাদী, মেরি কমের হাতে সমাবর্তনের দিনই ডি-লিট উঠবে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার চিরঞ্জীব ভট্টাচার্যকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, “সচিন তেন্ডুলকর নীতিগত ভাবে ডি-লিট নিতে না পারলেও, মেরি কম-এর হাতে আমরা ডি-লিট তুলে দিতে চাই। এ ছাড়াও সমাজের বিশিষ্টদের এই সম্মান দেওয়া হবে। মলিকিউলার বায়োলজিস্ট দীপঙ্কর চট্টোপাধ্যায়কে ডিএসসি উপাধি দিয়েও সম্মানিত করা হবে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে।” ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচ বারের বক্সিং চ্যাম্পিয়ন মেরি কম। প্রথম ভারতীয় মহিলা বক্সার হিসেবে এশিয়ান গেমসেও সোনা জয় করেছেন তিনি। ২০১২-র অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। চলতি বছর কমনওয়েলথ গেমসে প্রথম ভারতীয় মহিলা বক্সার হিসেবে জিতেছেন সোনা। ভারত সরকারের পদ্মশ্রী, পদ্মবিভূষণ এবং অর্জুন পুরস্কারে সম্মানিত এই সোনার মেয়ে। সব ঠিকঠাক থাকলে যাদবপুরে সমাবর্তন অনুষ্ঠানেও তাঁকে দেখা যাবে বলে আশাবাদী পড়ুয়ারা। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে খবর, আগামী ২৪ ডিসেম্বর সমাবর্তনের অনুষ্ঠানে অর্থনীতিবিদ কৌশিক বসু, হেমাটোলজিস্ট মাম্মেন চান্ডি এবং বন্ধন ব্যাঙ্কের প্রতিষ্ঠাতা চন্দ্রশেখর ঘোষকে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে ডি-লিট দিয়ে সম্মান জানানো হবে। সূত্র: আনন্দবাজার    এসি  

‘নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে শেখ হাসিনাই বিজয়ী হবেন’

বাংলাদেশ জাতীয় জোট (বিএনএ) ও তৃণমূল বিএনপির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বলেছেন, শেখ হাসিনা তার দৃশ্যমান উন্নয়নের মাধ্যমে যে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বাংলাদেশের জনগণ তাকেই ভোট দিয়ে আবার সরকারে বসাবেন।    বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে তোপখানা রোডে মেহেরবা প্লাজায় বিএনএ মিলনায়তনে তৃণমূল জাতীয় মহিলা দলের উদ্যোগে ‘নারী জাগরণে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের অবদান’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন নাজমুল হুদা। তিনি বলেন, কেউ কেউ বলার চেষ্টা করছেন শেখ হাসিনা সরকারের জনপ্রিয়তা কমেছে, সেটি এখন অতীত। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণ, ফ্লাইওভার, পোশাক শিল্পের উন্নয়ন, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ ব্যবস্থা, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ সর্বোপরী বাংলাদেশকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে নিয়ে যাওয়ায় দেশের জনগণ অন্য যেকোনো দলের চেয়ে আওয়ামী লীগকেই ভোট দিয়ে বেশি আসনে বিজয়ী করবে। নাজমুল হুদা আরো বলেন, বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব নারী জাগরণের অগ্রদূত। তার সহযোগিতায় বঙ্গবন্ধু যেমন বঙ্গবন্ধু হয়ে উঠেছিলেন তেমনি স্বাধীন-সার্বভৌম একটি দেশ উপহার দিতে পেরেছিলেন। নারী অধিকার ও নারীর ক্ষমতায়ন তথা নারী স্বাধীনতার ওপর ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের উৎসাহ, অনুপ্রেরণা নারী জাতির কাছে সারাজীবন স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তৃণমূল জাতীয় মহিলা দলের সভানেত্রী মাকসুদা বেগম লাবনীর সভাপতিত্বে ও বিএনএর সাংগঠনিক সম্পাদক আক্কাস আলী খানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য দেন জাগো বাঙালির চেয়ারম্যান ও বিএনএ’র মহাসচিব মেজর (অব.) ডা. শেখ হাবিবুর রহমান, তৃণমূল বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান লায়ন সালাম মাহমুদ প্রমুখ। এসি  

গরুকে রাষ্ট্রমাতা ঘোষণার দাবি বিজেপি মন্ত্রীর  

বিজেপির এক মন্ত্রী দাবি করে বলেছেন ‘গরু আমাদের অক্সিজেন দেয়, তাকে রাষ্ট্রমাতা ঘোষণা করা হোক,। বিধানসভায় দাঁড়িয়েই এমন মন্তব্য করলেন তিনি। সেই মর্মে বিলও পাশ হল সর্বসম্মতিক্রমে।   বুধবার উত্তরাখণ্ড বিধানসভার অধিবেশন বসে। সেখানে হাজির ছিলেন রাজ্যের পশুপালন দপ্তরের প্রধান রেখা আর্য। বিধায়কদের সামনে গরুকে রাষ্ট্রমাতা ঘোষণা করার দাবি তোলেন তিনি। বলেন, ‘‘গরুই একমাত্র পশু, যেশ্বাস গ্রহণের সময় শুধুমাত্র অক্সিজেন গ্রহণ করে না, প্রশ্বাসের সঙ্গে তা পরিবেশে ফিরিয়েও দেয়।’’ গো-মূত্র ব্যবহার করে চিকিৎসার গুণাগুণ নিয়ে লম্বা চওড়া বক্তৃতা করেন তিনি। সেই সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘গরু মাতৃত্বের স্বরূপ। মায়ের দুধের পর, গরুর দুধই শিশুর জন্য সবচেয়ে উপকারী। বিজ্ঞানও তা মেনে নিয়েছে।’’ দেশ জুড়ে গো-সুরক্ষা নিয়ে সচেতনতা তৈরি করতে হলে, গরুকে রাষ্ট্রমাতা ঘোষণা করা ছাড়া উপায় নেই বলেও দাবি করেন তিনি।    তবে আশ্চর্যের ব্যাপার হল, বিধানসভায় দাঁড়িয়ে তিনি যখন এমন মন্তব্য করছিলেন, তখন বিন্দুমাত্র প্রতিবাদ জানাননি বাকিরা। এমনকি, এ নিয়ে উচ্চবাচ্য করতে দেখা যায়নি বিরোধীদের কাউকেও। যে কারণে সর্বসম্মতিতেই গরুকে রাষ্ট্রমাতা ঘোষণা করার প্রস্তাব পাশ হয়ে গিয়েছে উত্তরাখণ্ড বিধানসভায়। অনুমোদনের জন্য খুব শিগগির বিলটি পাঠানো হবে কেন্দ্রের কাছে। এসি     

যানজট নিরসনে প্রয়োজন সঠিক পরিকল্পনা   

যানজটে অচল ঢাকা শহর। এই শহরকে যানজটমুক্ত ও পরিবহনখাতকে সুশৃঙ্খল করার যেসব মেগা প্রকল্প হাতে নেওয়া হয় তা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হয় না। এর কারণ সরকারের কৌশল ও পর্যাপ্ত অর্থনৈতিক বরাদ্দ না থাকা। তবে পরিকল্পনা গ্রহণ করে স্বল্পমেয়াদেই বাস্তবায়নের নজির রয়েছে খোদ রাজধানীর গুলশান ও হাতিরঝিলে। এখান থেকেই সরকার, ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ (ডিটিসিএ) শিক্ষা নিতে পারে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞ ও বিশিষ্টজনরা।    বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর তোপখানা রোডস্থ সিরডাপ মিলনায়তনে ‘ঢাকা শহরের যানজট নিরসনে স্বল্প মেয়াদী কর্ম পরিকল্পনা-প্রেক্ষিত সংশোধিত কৌশলগত পরিবহন পরিকল্পনা’ এবং ‘ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহার নিয়ন্ত্রণে বহুমাধ্যম ভিত্তিক পরিবহন ব্যবস্থার গুরুত্ব’ শীর্ষক অংশীজন সভায় এসব কথা বলেন আমন্ত্রিত বিশেষজ্ঞ বিশিষ্টজনরা। ডিটিসিএ এর নির্বাহী পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) খন্দকার রাকিবুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় পৃথক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) পুরকৌশল অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের (বিআইপি) সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. আকতার হোসেন। প্রবন্ধ উপস্থাপন শেষে বিশিষ্ট কলামিস্ট আবুল মকসুদ বলেন, ‘ঢাকা শহরের সঙ্গে অন্য শহরের যদি যোগাযোগ উন্নয়ন না হয় তবে সরকারের সব উন্নয়ন পরিকল্পনাই ব্যর্থ। কী শিক্ষা আর প্রযুক্তি? অন্য সব খাতের তুলনায় এখনই সময় বরাদ্দ বাড়িয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে উন্নত করা।’ তিনি বলেন, ‘কিছু করতে চাইলেই আমরা অন্য সব উন্নত দেশের সঙ্গে তুলনা করি। এ তুলনায় বাংলাদেশের কোনো লাভ নেই। বরং দেশের সব মানুষের মানসিকতা, বাস্তবতা, মতামত, দেশের ভৌগলিক অবস্থা এবং মানুষের সংখ্যা উপলব্ধি করতে হবে। শুধু সড়কের কথা বললে হবে না, সড়কের সঙ্গে নৌ ও রেলের সমন্বয় জরুরি।’ তিনি বলেন, ‘ডিটিসিএ রিভাইস স্ট্র্যাটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্ল্যান (আরএসটিপি) তৈরি করেছে। এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সবার মতামত নিয়ে খুব দ্রুত একটা শক্তিশালী কমিশন বা কমিটি গঠন করতে হবে। যা কাজ শুরুর রুট ম্যাপ করে দেবেন। ‘ নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘মানুষ বেশি সড়ক কম। আগে আমাদের চিন্তা, আচরণের পরিবর্তন, নিয়ম মানার মানসিকতা তৈরি করতে হবে। ফুটওভার ব্রিজের চেয়ে রাজধানীতে বেশি সুবিধাজনক আন্ডারপাস সে ব্যাপারে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে হবে।’ তিনি প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘এক রাজধানীতে সব আনতে হবে কেন? জীবিকার টানে কেনই বা সবাইকে ঢাকা আসবে হবে? এই কেন এর জবাব আমরা জানি। কিন্তু বাস্তবায়নের সদিচ্ছা নেই। ডিসেন্ট্রালাইজেশন না হওয়া পর্যন্ত ট্রাফিক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন সহজ হবে না।’ বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. মোসলেহ উদ্দিন বলেন, ‘শহরের পরিবহনকেন্দ্রিক চিন্তা বাড়াতে হবে, মেগাপ্রকল্প গ্রহণ করতে হবে। পরিকল্পনাও হচ্ছে এখন অ্যাকশন জরুরি।’ বুয়েটের এক্সিডেন্ট রিচার্স ইনস্টিটিউটের (এআরআই) সহকারী অধ্যাপক কাজী মো. সাইফুন নেওয়াজ বলেন, ‘রাজধানীর ভূখণ্ড ব্যবহার ও নতুন নতুন রাস্তা তৈরি করে থাকে সিটি কর্পোরেশন। কিন্তু তাদের কোনো গাইড লাইন নেই। একটা রাস্তা তৈরির আগে অনেক কিছুই বিবেচনায় আনতে হয়। সেগুলো শুরু করা উচিত।’ বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. শামসুল হক বলেন, ‘রাজধানীতে যানবাহন চলাচলে শৃঙ্খলা ফেরানো গেলে যানজট এমনিতেই কমে আসবে। কিন্তু সেটা সরকার, কিংবা ডিটিসিএ পারেনি। তাহলে স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা যাই গ্রহণ করা হোক না কেন, সেটার বাস্তবায়ন জরুরি।’ তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটির প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক দরদ ও সাহসিকতার সঙ্গে স্বল্প সময়ের মধ্যে গুলশানে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করেছেন। সেখানকার ফুটপাত এখন রাজধানীর জন্য আদর্শ। তেমনিভাবে রাজধানীর হাতিরঝিলও আদর্শ উদাহরণ। তাহলে আমরা পুরো রাজধানীতে পারছি না কেন?’ এসি     

© ২০১৮ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি